পরীমনিকে ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টায় জড়িতদের বিচার দাবি এমপি হারুনের

পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা এবং গত এপ্রিলের শেষের দিকে রাজধানীর গুলশানের একটি ফ্ল্যাটে কলেজছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় এনে বিচার দাবি করেছেন বিএনপির সংসদ সদস্য (এমপি) হারুনুর রশীদ।
বনানীর বাসায় সাংবাদিকদের কাছে নির্যাতন ও হত্যাচেষ্টার বর্ণনা দেন পরীমনি। এসময় কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। ছবি: স্টার

পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা এবং গত এপ্রিলের শেষের দিকে রাজধানীর গুলশানের একটি ফ্ল্যাটে কলেজছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় এনে বিচার দাবি করেছেন বিএনপির সংসদ সদস্য (এমপি) হারুনুর রশীদ।

আজ সোমবার সংসদে দুটি পৃথক বিলের আলোচনায় অংশ নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসন থেকে নির্বাচিত এমপি হারুন বলেন, দুটি ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা যদি সাধারণ মানুষ হতেন, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হতো।

পরীমনির ঘটনার প্রসঙ্গে তিনি জানান, বাংলাদেশের খ্যাতিমান অভিনেত্রী চার দিন ধরে তাকে ধর্ষণ ও হামলার চেষ্টার বিচার চাচ্ছেন।

বিএনপির এই এমপি সংসদে প্রশ্ন করেন, ‘সব গণমাধ্যম এই বিষয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে। এটা কি মিথ্যা?’

‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সংসদে নেই। আমি এই বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই। এই ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের অবশ্যই বিচারের আওতায় আনতে হবে’, হারুন আরও বলেন।

অভিনেত্রী পরীমনি গতকাল যারা তাকে ধর্ষণ ও হত্যা করার চেষ্টা করেছে তাদের পরিচয় প্রকাশ করেছেন।

‘উত্তরা ক্লাব লিমিটেডের সাবেক সভাপতি নাসির ইউ মাহমুদ এবং অমি নামের এক ব্যবসায়ী আমাকে ধর্ষণ ও হত্যা করতে চেয়েছিলেন’, অভিনেত্রী গত রাতে তার বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন।

দ্য ডেইলি স্টারকে পরীমনি বলেন, ‘গত বুধবার রাত ১২টার দিকে আমাকে বিরুলিয়ার একটি ক্লাবে নিয়ে যায় অমি। সেসময় সেখানে থাকা নাছির ইউ মাহমুদ নিজেকে ঢাকা বোট ক্লাবের সভাপতি হিসেবে পরিচয় দেন।’

‘ওই ক্লাবেই নাছির ইউ মাহমুদ আমাকে বিভিন্নভাবে নির্যাতন ও হত্যার চেষ্টা করেন। অমিও এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত’, বলেন তিনি।

এর আগে, চলচ্চিত্র অভিনেত্রী পরীমনি তাকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন। রোববার সন্ধ্যায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার ভ্যারিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকে একটি পোস্টে এ অভিযোগ করেন তিনি।

গত ২ এপ্রিল গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে পুলিশ সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত এক কলেজছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করে। তার পা বিছানায় স্পর্শ করা অবস্থায় ছিল এবং উভয় হাঁটু কিছুটা বাঁকানো ছিল।

এই ঘটনার একদিন পর আত্মহত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সেই কলেজ ছাত্রীর পরিবার বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka footpaths, a money-spinner for extortionists

On the footpath next to the General Post Office in the capital, Sohel Howlader sells children’s clothes from a small table.

9h ago