হ্যান্ড গ্রেনেডটি তিনি মুক্তিযোদ্ধা স্বামীর স্মৃতিচিহ্ন হিসেবে রেখে দিয়েছিলেন

কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের বসোয়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত আব্দুর রহিমের বাড়ি থেকে পুলিশ পরিত্যক্ত অবস্থায় একটি হ্যান্ড গ্রেনেড উদ্ধার করেছেন। পুলিশের অনুমান গ্রেনেডটি ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময়কার।

কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের বসোয়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত আব্দুর রহিমের বাড়ি থেকে পুলিশ পরিত্যক্ত অবস্থায় একটি হ্যান্ড গ্রেনেড উদ্ধার করেছেন। পুলিশের অনুমান গ্রেনেডটি ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময়কার।

পুলিশ জানিয়েছে, তিন মাস আগে বাড়ির উঠানে পুরোন একটি শিমুল গাছ কাটার পর শ্রমিকরা গাছের গোড়ায় মাটিতে ওই গ্রেনেডটি পান। রিজিয়া খাতুন সেটি মুক্তিযোদ্ধা স্বামীর স্মৃতিচিহ্ন হিসেবে নিজের শোবার ঘরে রেখেছিলেন।

গ্রেনেড পাওয়ার বিষয়টি রিজিয়া খাতুন তার জামাতা মহিরকে জানান। মহির তাকে জানান গ্রেনেডটি সক্রিয় থাকতে পারে এবং বিস্ফোরিতও হতে পারে। পরে তিনি নিজেই বুধবার দুপুরে খোকসা থানায় ফোন করে ওসিকে বিষয়টি জানান।

ওসি পুলিশ পাঠিয়ে গ্রেনেডটি উদ্ধার করে স্থানীয় বসোয়া বাজারের পাশে মাঠের মধ্যে লাল পতাকা টাঙিয়ে বাঁশ দিয়ে ঘিরে রেখেছেন। সেখানে পাহারার ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

ওসি সৈয়দ আশিকুর রহমান জানান, হ্যান্ড গ্রেনেডটি ছোট আকৃতির। এটি সক্রিয় রয়েছে বলে মনে হচ্ছে। ঢাকায় পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিটকে খবর দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা ও কমান্ডার আলাউদ্দিন খান জানান, ওই এলাকায় মুক্তিযোদ্ধাদের ক্যাম্প ছিল। মুক্তিযোদ্ধারা এ ধরনের হ্যান্ড গ্রেনেড ব্যবহার করতেন।

Comments

The Daily Star  | English
Rajuk Fines Swiss Bakery

Rajuk seals off 4 restaurants on Bailey Road

Fines another eatery and the owner of a shopping mall during drive

4h ago