প্রবাসে

গ্রিসে আগুনে পুড়ে গেছে ৩০০ বাংলাদেশি কৃষি কর্মীর আবাসস্থল

গ্রিসে ভয়াবহ আগুনে প্রায় ৩০০ প্রবাসী বাংলাদেশি কৃষি কর্মীর ৩৮টি ফারাঙ্গা (অস্থায়ী আবাসস্থল) সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। সেই সঙ্গে পুড়ে গেছে তাদের টাকা-পয়সা, পাসপোর্ট, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, পোশাক ও খাদ্য সমগ্রী। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
Greece1_Fire_29June21.jpg
গ্রিসের মানোলাদা গ্রামে ভয়াবহ আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশি কৃষি কর্মীদের খোঁজ নিচ্ছেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ। ছবি: বাংলাদেশ দূতাবাস

গ্রিসে ভয়াবহ আগুনে প্রায় ৩০০ প্রবাসী বাংলাদেশি কৃষি কর্মীর ৩৮টি ফারাঙ্গা (অস্থায়ী আবাসস্থল) সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। সেই সঙ্গে পুড়ে গেছে তাদের টাকা-পয়সা, পাসপোর্ট, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, পোশাক ও খাদ্য সমগ্রী। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

রাজধানী এথেন্স থেকে ৩০০ কিলোমিটার দূরে পশ্চিম গ্রিসের মানোলাদা এলাকায় কৃষি খামারে গত রোববার এই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে বাংলাদেশ দূতাবাস নিশ্চিত করেছে।

প্রবাসীরা জানান, বিকেল ৪টার দিকে সুনামগঞ্জের শিশু মিয়ার আওতাধীন ফারাংগায় রান্নার সময় চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় এবং মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়ে।

প্রবাসী সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম জানান, মানোলাদা এলাকাটি কৃষি খামারের জন্য বিখ্যাত। সেখানে প্রায় সাড়ে সাত হাজার প্রবাসী বাংলাদেশি দীর্ঘ দিন ধরে কৃষি কাজে সম্পৃক্ত। অন্য জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে সেখানে তারা স্ট্রবেরি খামারে কাজ করেন।

Greece_Fire_29June21.jpg
গ্রিসের মানোলাদা গ্রামে ভয়াবহ আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশি কৃষি কর্মীদের আবাসস্থল। ছবি: বাংলাদেশ দূতাবাস

গতকাল গ্রিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন এবং ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসী বাংলাদেশিদের খোঁজ খবর নেন। দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) বিশ্বজিত কুমার পাল এবং বাংলাদেশি কমিউনিটির সংগঠকরা এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষি কর্মীরা রাষ্ট্রদূতকে বিনা ফিতে পুনরায় পাসপোর্ট দেওয়াসহ অন্যান্য সহযোগিতা দিতে অনুরোধ জানান। রাষ্ট্রদূত তাদের সমবেদনা জানিয়েছেন এবং পাসপোর্ট পাওয়া, আবাসস্থল, খাবার সরবরাহ এবং আইনগত সহযোগিতা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

পরবর্তীতে আসুদ আহমেদ স্থানীয় ভারদা অঞ্চলের মেয়র লেজাস ইয়ানিসের সঙ্গে দুর্ঘটনা ও এর থেকে স্থায়ীভাবে উত্তরণের উপায় নিয়ে বৈঠক করেন। বৈঠকে ক্ষতিগ্রস্ত কর্মীসহ কৃষি খাতে নিয়োজিত কর্মীদের জন্য মানোলাদা ও এর আশে পাশের গ্রামগুলোতে স্থায়ী আবাসস্থল তৈরির বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে আলোচনা হয়।

প্রবাসী বাংলাদেশিদের যে কোনো প্রয়োজনে মেয়র আন্তরিকভাবে পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন এবং বাংলাদেশিদের জন্য দ্রুততম সময়ে নতুন অস্থায়ী বাসস্থান নির্মাণসহ ক্ষতিগ্রস্তদের সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

পাশাপাশি দূতাবাসের আহ্বানে এথেন্সসহ গ্রিসের বিভিন্ন স্থানে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশি সংগঠকরা ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন।

Comments

The Daily Star  | English

Don't pay anyone for visas, or work permits: Italian envoy

Italian Ambassador to Bangladesh Antonio Alessandro has advised visa-seekers not to pay anyone for visas, emphasising that the embassy only charges small taxes and processing fees

26m ago