সিলেটে তামাবিল স্থলবন্দর উদ্বোধন

সিলেটের গোয়াইনঘাট সীমান্ত এলাকায় অবস্থিত বহু-প্রতীক্ষিত তামাবিল স্থলবন্দর আজ (২৭ অক্টোবর) দুপুরে উদ্বোধন করা হয়। আশা করা হচ্ছে, এই স্থলবন্দরের মাধ্যমে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য মেঘালয়, আসাম, মনিপুর, নাগাল্যান্ডসহ অন্যান্য রাজ্যের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য বাড়ানো সম্ভব হবে।
tamabil landport
২৭ অক্টোবর ২০১৭, সিলেটের গোয়াইনঘাট সীমান্ত এলাকায় অবস্থিত বহু-প্রতীক্ষিত তামাবিল স্থলবন্দর উদ্বোধন করা হয়। ছবি: শেখ নাসের

সিলেটের গোয়াইনঘাট সীমান্ত এলাকায় অবস্থিত বহু-প্রতীক্ষিত তামাবিল স্থলবন্দর আজ (২৭ অক্টোবর) দুপুরে উদ্বোধন করা হয়। আশা করা হচ্ছে, এই স্থলবন্দরের মাধ্যমে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য মেঘালয়, আসাম, মনিপুর, নাগাল্যান্ডসহ অন্যান্য রাজ্যের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য বাড়ানো সম্ভব হবে।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত এবং নৌমন্ত্রী শাহজাহান খান গোয়াইনঘাট উপজেলার তামাবিলে এই স্থলবন্দর উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট-৪ আসনের সংসদ সদস্য ইমরান আহমেদ, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নজিবুর রহমান, নৌ সচিব মোহাম্মদ আব্দুস সামাদ প্রমুখ।

সিলেট বিভাগের একমাত্র এবং দেশের ১১তম এই স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে কয়লা, পাথর, চুনাপাথর, ফল ইত্যাদি আমদানি এবং দেশটিতে ইট, প্রক্রিয়াজাত খাবার, প্রসাধনী পণ্য ইত্যাদি রপ্তানি করা হয়।

২০০২ সালের জানুয়ারিতে সরকার তামাবিল কাস্টমস স্টেশনকে স্থলবন্দরে উন্নীত করলেও ২০১৫ সালে বন্দরের জন্যে ভূমি অধিগ্রহণ সম্পন্ন হলে এর অবকাঠামোগত কাজ শুরু হয়। ২০১৬ সালে স্থলবন্দরটি উদ্বোধন করার কথা থাকলেও কাজের ধীর গতির কারণে তা পিছিয়ে পড়ে।

৬৯ কোটি ২৬ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত এই স্থলবন্দরটি ২৩.৭২ একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত।

Comments

The Daily Star  | English

Old, unfit vehicles taking lives

The bus involved in yesterday’s crash that left 14 dead in Faridpur would not have been on the road had the government not given into transport associations’ demand for keeping buses over 20 years old on the road.

3h ago