‘পদ্মাবতী’-র মুক্তি ঠেকাতে এবার ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন

ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ উঠায় বেশ বেকায়দায় পড়েছে ‘পদ্মাবতী’ ও এর পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানশালি। ছবিটির নির্মাণ ও প্রদর্শন ঠেকাতে বিরোধীরা শুধু হুমকি-হামলার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেননি, তাদের কেউ কেউ গিয়েছিলেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত।
Padmavati
‘পদ্মাবতী’ চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্য। ছবি: ‘পদ্মাবতী’-র অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে নেওয়া

ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ উঠায় বেশ বেকায়দায় পড়েছে ‘পদ্মাবতী’ ও এর পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানশালি। ছবিটির নির্মাণ ও প্রদর্শন ঠেকাতে বিরোধীরা শুধু হুমকি-হামলার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেননি, তাদের কেউ কেউ গিয়েছিলেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত।

কিন্তু, ‘পদ্মাবতী’-র মুক্তি বন্ধে সুপ্রিম কোর্টে করা আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ার পর এবার বিরোধীদের আবেদন গিয়েছে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে।

দীপিকা পাড়ুকোন, শহিদ কাপুর এবং রণবীর সিং অভিনীত ‘পদ্মাবতী’ চলচ্চিত্রে ভারতের রাজপুত জাতি-গোষ্ঠীকে হেয় করা হয়েছে এমন অভিযোগ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী, তথ্যমন্ত্রী ও চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের প্রধানের কাছে চিঠি লিখেছেন মেওয়ারের রাজপরিবার।

সেই চিঠিতে উদয়পুর-মেওয়ার রাজপরিবারের সদস্য এম কে বিষভরাজ সিং দাবি করেছেন, যে গ্রন্থের ভিত্তিতে বানশালি ‘পদ্মাবতী’ বানিয়েছেন তা বস্তুনিষ্ঠ হিসেবে বিবেচিত হয় না। তাঁর মতে, সুফি কবি মালিক মুহাম্মদ জয়াসির ‘পদ্মাবতী’-কে অনুসরণ করেছেন ছবিটির পরিচালক। বিষভরাজের ভাষায়, “জয়াসির লেখায় কল্পনার রঙ মেশানো রয়েছে”।

এছাড়াও, ছবিটিতে অনুমতি ছাড়াই তাদের রাজপরিবারের নাম ব্যবহার করা হয়েছে বলেও তিনি সে চিঠিতে উল্লেখ করেন। তাই বিষভরাজের আর্জি আগামী ১ ডিসেম্বর মুক্তি পেতে যাওয়া ‘পদ্মাবতী’-র প্রদর্শনের অনুমতি স্থগিত করা হোক।

আরো পড়ুন:

বিতর্কে পড়ছে সঞ্জয় লীলা বানশালি’র ‘পদ্মাবতী’

Comments

The Daily Star  | English

Cyclone Remal may make landfall anytime between evening and midnight

Rain with gusty winds hit coastal areas as a peripheral effect of the severe cyclone

1h ago