হলিউডে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক প্রাপ্ত তারকারা

চলতি বছরগুলোতে হলিউডের তারকা যেন আরও বেশি উজ্জ্বল। সেই উজ্জ্বলতা বেড়েছে তাঁদের বাড়তি পারিশ্রমিকের কারণে। বিশ্ব চলচ্চিত্রের প্রাণকেন্দ্র হলিউডের সেই বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া দশজন তারকার নাম তুলে ধরে হলো।
hollywood logo

চলতি বছরগুলোতে হলিউডের তারকা যেন আরও বেশি উজ্জ্বল। সেই উজ্জ্বলতা বেড়েছে তাঁদের বাড়তি পারিশ্রমিকের কারণে। বিশ্ব চলচ্চিত্রের প্রাণকেন্দ্র হলিউডের সেই বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া দশজন তারকার নাম তুলে ধরে হলো।

বিশ্বখ্যাত বিনোদন ম্যাগাজিন ভ্যারাইটির বরাত দিয়ে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম হলিউডের দামি তারকাদের যে তালিকা গতকাল (৮ মে) প্রকাশ করেছে সেই তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন ‘জেমস বন্ড’-খ্যাত ড্যানিয়েল ক্রেগ। কেননা, ‘বন্ড ২৫’ ছবিটির জন্যে তিনি পারিশ্রমিক হিসেবে পেয়েছেন ২৫ মিলিয়ন ডলার বা ২১২ কোটি টাকার ওপরে। ছবিটি আগামী বছর মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

এর পরেই রয়েছেন ‘দ্য রক’-এর ডোয়েন জনসন। ফোর্বস ম্যাগাজিন গত বছর তাঁকে হলিউডের দ্বিতীয় সেরা আয়ের অভিনেতা হিসেবে ঘোষণা করেছিল। তিনি পরিচালক রওসন মার্শাল থার্বারের ‘রেড নোটিশ’-এ অভিনয়ের জন্যে নিয়েছেন ২২ মিলিয়ন ডলার বা ১৮৬ কোটি টাকার বেশি। এই ছবিটিও আগামী বছর মুক্তি পাবে।

বেশি পারিশ্রমিকের তারকা হিসেবে ‘গার্ডিয়ানস অব দ্য গ্যালাক্সি’-র ভিন ডিজেল রয়েছেন তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে। গত বছরে মুক্তি পাওয়া ‘দ্য ফেট অব দ্য ফিউরিয়াস’-এর জন্যে তিনি পেয়েছিলেন ২০ মিলিয়ন ডলার বা প্রায় ১৭০ কোটি টাকা।

পারিশ্রমিকের দিক দিয়ে হলিউডে নারী-পুরুষের বৈষম্যের খবর বেশ কয়েক বছর থেকেই বেশ আলোচিত হয়ে আসছে। এমন অভিযোগের মধ্যে দেখা যায় বেশি পারিশ্রমিকের তারকার তালিকায় চতুর্থ অবস্থানে রয়েছেন ‘রেচেল গেটিং ম্যারিড’-এর অ্যান হ্যাথওয়ে। তিনি ‘বার্বি’ চলচ্চিত্রের জন্যে পারিশ্রমিক পেয়েছেন ১৫ মিলিয়ন ডলার বা ১২৭ কেটি টাকা। এটি ২০২০ সালে মুক্তি পাবে।

তালিকায় হ্যাথওয়ের পরেই রয়েছে হলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী জেনিফার লরেন্সের নাম। ‘সিলভার লাইনিংস প্লেবুক’-এর এই অভিনেত্রী গত মার্চে মুক্তি পাওয়া গোয়েন্দা কাহিনি-ভিত্তিক চলচ্চিত্র ‘রেড স্প্যারো’-র জন্যে নিয়েছিলেন হ্যাথওয়ের সমপরিমাণ অর্থ। একই পরিমাণ অর্থ নিয়ে ‘ফানি পিপল’-এর সেথ রগেন রয়েছেন তালিকায় ষষ্ঠ অবস্থানে। কমেডি মুভি ‘ফ্লারস্কাই’-এ অভিনয়ের জন্যে তিনি পেয়েছেন এই অর্থ। ছবিটি আগামী বছর মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

তালিকায় হলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় তারকা টম ক্রুজ এবং লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিওর অবস্থান যথাক্রমে সপ্তম ও দশমে। ক্রুজ গত বছরে মুক্তি পাওয়া ‘দ্য মামি’-র জন্যে পারিশ্রমিক পেয়েছিলেন ১১ মিলিয়ন ডলার থেকে ১৩ মিলিয়ন ডলার বা ৯৩ কোটি টাকা থেকে ১১০ কোটি টাকা। আর ডিক্যপ্রিও ‘ওয়ান্স আপন অ্যা টাইম ইন হলিউড’-এর জন্যে পারিশ্রমিক পেয়েছেন ১০ মিলিয়ন ডলার বা ৮৪ কোটি টাকা।

একই পরিমাণ অর্থ নিয়ে ‘গ্রাভিটি’-খ্যাত অভিনেত্রী সান্ড্রা বুলক তালিকায় নবম অবস্থানে রয়েছেন। তিনি ২০১৫ সালে মুক্তি পাওয়া ‘মিনিয়নস’-এর জন্যে ডিক্যাপ্রিওর সমপরিমাণ পারিশ্রমিক নিয়েছিলেন। তাঁর আগে তথা তালিকায় অষ্টম অবস্থানে রয়েছেন ‘স্টার ওয়ার্স’ তারকা হ্যারিসন ফোর্ড। তিনি ‘ইন্ডিয়ানা জোনস ৫’-এর জন্যে পেয়েছেন ১০ মিলিয়ন থেকে ১২ মিলিয়ন ডলার বা ৮৪ কোটি টাকা থেকে ১০১ কোটি টাকার মতো। ছবিটি ২০২০ সালে মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

ভ্যারাইটির মন্তব্য, বর্তমানে হলিউডের তারকারা যে পারিশ্রমিক পাচ্ছেন তা গত এক দশক আগেও ভাবা যায়নি।

Comments