সিনেপ্লেক্সে ডাইনোসরের হানা!

‘জুরাসিক’ ভক্তদের জন্যে সুখবর। ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড: ফলেন কিংডম’ আন্তর্জাতিকভাবে আগামী ২২ জুন মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও বাংলাদেশে তা মুক্তি পেতে যাচ্ছে আগামী ১৫ জুন।
Jurassic World Fallen Kingdom
‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড: ফলেন কিংডম’ চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

‘জুরাসিক’ ভক্তদের জন্যে সুখবর। ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড: ফলেন কিংডম’ আন্তর্জাতিকভাবে আগামী ২২ জুন মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও বাংলাদেশে তা মুক্তি পেতে যাচ্ছে আগামী ১৫ জুন।

ঈদ উপলক্ষে হলিউড ভক্তরা ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড: ফলেন কিংডম’ বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে অবস্থিত স্টার সিনেপ্লেক্সে দেখতে পাবেন ১৫ জুন থেকেই। সেদিন সকাল ১১টা ১১ মিনিট, দুপুর ১টা ৫৫ মিনিট এবং সন্ধ্যা ৭টা ৩১ মিনিটে দেখানো হবে বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনি-ভিত্তিক এই চলচ্চিত্রটি।

‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’ সিরিজের প্রথম ছবির কাহিনি যেখানে শেষ হয়েছিল, ঠিক সেখান থেকেই শুরু হয়েছে ‘ফলেন কিংডম’-এর গল্প। ছবিটির কেন্দ্রীয় চরিত্র থাকা ওয়েন গ্র্যান্ডি এবং ক্লেয়ার ডিয়ারিং ফিরে যান জুরাসিক পার্ক হিসেবে পরিচিত আইলা নুবলা দ্বীপে। এর আগের ছবিটিতে সেই পার্কটি পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেলেও, এখনো সেখানে রয়ে গেছে প্রাগৈতাহাসিক যুগের কিছু প্রাণী।

অগ্নিগিরির অগ্ন্যুৎপাত তাদেরকে পুরোপুরি নিশ্চিহ্ন করে দিতে পারেনি। তাই তাদের বাঁচাতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেখানে পৌঁছে যান ওয়েন এবং ক্লেয়ার। নানা প্রতিকূলতা আর ঘাত-প্রতিঘাতের সম্মুখীন হন তারা। শ্বাসরূদ্ধকর সেই অভিযানের কাহিনি নিয়েই নির্মিত হয়েছে ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড: ফলেন কিংডম’।

এ ছবিটির পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেছেন জে এ বায়োনা। ছবিটির পরিচালনায় পরিবর্তন এলেও বরাবরের মতোই ছবিটির কার্যনির্বাহী প্রযোজক হিসেবে রয়েছেন স্টিভেন স্পিলবার্গ।

মাইকেল ক্রিকটনের উপন্যাসের উপর ভিত্তি করে বিখ্যাত পরিচালক স্টিভেন স্পিলবার্গের ‘জুরাসিক পার্ক’ মুক্তি পায় ১৯৯৩ সালে। বিপুল সাড়া জাগানো ছবিটি এ যাবৎ প্রায় ১,০০০ মিলিয়ন ডলার আয় করেছে। চলতি বছর ‘জুরাসিক পার্ক’ সিনেমার ২৫ বছর পুর্তি হতে চলেছে।

১৯৯৭ সালে ‘দ্য লস্ট ওয়ার্ল্ড’ নামে ‘জুরাসিক পার্ক’ সিরিজের দ্বিতীয় কিস্তি মুক্তি পায় এবং ২০০১ সালে মুক্তি পায় ‘জুরাসিক পার্ক ৩’। এরপর বড় একটা বিরতি দিয়ে ১৪ বছর পর ২০১৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল সিরিজটির নতুন সংস্করণ ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’। এখন পর্যন্ত ছবিটি আয় করেছে দেড় বিলিয়ন ডলারের বেশি।

আগের ছবিটির মতো ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড: ফলেন কিংডম’ এর কেন্দ্রীয় দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন ব্রাইস ডালাস হাওয়ার্ড এবং ক্রিস প্যাট। ছবির অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন জেফ গোল্ডবাম, বিডি ওং, টবি জোনস টেড লিভাইনসহ আরও অনেকে।

আশা করা হচ্ছে, সাফল্যের দিক থেকে আগের ছবিকেও ছাড়িয়ে যাবে ‘ফলেন কিংডম’।

Comments

The Daily Star  | English
biman flyers

Biman does a 180 to buy Airbus planes

In January this year, Biman found that it would be making massive losses if it bought two Airbus A350 planes.

5h ago