কলকাতায় ঐতিহাসিক রেড রোডে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত

কলকাতার ঐতিহাসিক রেড রোডে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় আজ (১৬ জুন) ভারতীয় সময় সকাল নয়টায়। এর আগে উত্তর ও দক্ষিণ কলকাতাসহ এর পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে বাসে করে কিংবা ব্যক্তিগত পরিবহনে ধর্মতলায় এসে পৌঁছান ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা।
Eid in Kolkata
১৬ জুন ২০১৮, কলকাতার ঐতিহাসিক রেড রোডে ঈদের জামাতে অংশ নেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা। ছবি: স্টার

কলকাতার ঐতিহাসিক রেড রোডে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় আজ (১৬ জুন) ভারতীয় সময় সকাল নয়টায়। এর আগে উত্তর ও দক্ষিণ কলকাতাসহ এর পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে বাসে করে কিংবা ব্যক্তিগত পরিবহনে ধর্মতলায় এসে পৌঁছান ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা।

কলকাতা পুলিশের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, আজ ঈদের নামাজে অংশ নিয়েছিলেন প্রায় তিন লাখ মুসলমান। পুরুষদের পাশাপাশি মহিলাদের জন্য রেড রোডে নামাজের বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছিল।

এদিনের ঈদের নামাজ পড়ান ইমাম কাজী ফজলুর রহমান। নামাজের পরপরই তিনি খুতবায় অংশ নেন। সেখানে তিনি দেশ ও দুনিয়ার শান্তি কামনায় মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করেন।

ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে জাতিগত সমস্যা নিয়েও এদিনের খুতবায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন ইমাম ফজলুর রহমান। বলেন, “সম্প্রীতিই বড় ধর্ম। আসুন বিভেদ গড়ে নয়, একে অপরের সঙ্গে মিলে-মিশে ভারতকে বিশ্বের বুকে শ্রেষ্ঠ দেশ হিসেবে সম্মানিত করি।”

ঈদের নামাজ ও খুতবা শেষে রেড রোডে হাজির হয়েছিলেন রাজ্যটির প্রশাসনিক প্রধান মমতা ব্যানার্জি। তার সঙ্গে ছিলেন রাজ্যের পৌর ও নগর উন্নয়ন বিষয়কমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, কলকাতার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ।

মমতা ব্যানার্জি রেড রোড থেকেই দেশ ও মুসলিম উম্মার প্রতি ঈদের শুভেচ্ছা জানান। পবিত্র এই জামাতে দাঁড়িয়ে তিনি দেশ ও বিশ্বের মঙ্গল কামনাও করেন। ধর্মীয় অনুষ্ঠান হলেও মমতা এদিন এই অনুষ্ঠানে দাঁড়িয়ে রাজনৈতিক কথা বলেন। বেশ কয়েকটি ইস্যু নিয়ে কেন্দ্রীয় বিজেপি সরকারের সমালোচনা করেন তিনি।

কেন্দ্রীয় সরকারের একটি নীতিনির্ধারণের বৈঠকের তারিখ ঈদের দিন করায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন মমতা।

প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি ভারতের রাজধানী দিল্লিসহ উত্তর ও দক্ষিণ ভারতের সব রাজ্যে আজ ঈদুল ফিতর উদযাপিত হচ্ছে।

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka stares down the barrel of water

Once widely abundant, the freshwater for Dhaka-dwellers continues to deplete at a dramatic rate and threatens to disappear far below the ground.

40m ago