ব্রিটিশ মিডিয়ার কড়া সমালোচনায় মদ্রিচ

ব্রিটিশ মিডিয়ার নাক উঁচু স্বভাবের কথা কারোরই অজানা নয়। নিজেদের দলকে উঁচুতে তুলতে গিয়ে প্রতিপক্ষকে খাটো করে দেখার প্রবণতাও নতুন কিছু নয় তাদের জন্য। ইংলিশদের হারিয়ে ফাইনালে ওঠার পর সেই ব্রিটিশ মিডিয়াকেই এক হাত নিয়েছেন ক্রোয়েশিয়া অধিনায়ক লুকা মদ্রিচ।
Luka Modric
ম্যাচ জেতার পর লুকা মদ্রিচ

ব্রিটিশ মিডিয়ার নাক উঁচু স্বভাবের কথা কারোরই অজানা নয়। নিজেদের দলকে উঁচুতে তুলতে গিয়ে প্রতিপক্ষকে খাটো করে দেখার প্রবণতাও নতুন কিছু নয় তাদের জন্য। ইংলিশদের হারিয়ে ফাইনালে ওঠার পর সেই ব্রিটিশ মিডিয়াকেই এক হাত নিয়েছেন ক্রোয়েশিয়া অধিনায়ক লুকা মদ্রিচ।

ম্যাচশেষে বেইন স্পোর্টসের কাছে ব্রিটিশ মিডিয়ার প্রতি নিজের অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন গোল্ডেন বলের অন্যতম বড় দাবিদার মদ্রিচ। ব্রিটিশ মিডিয়াকে প্রতিপক্ষের প্রতি আরও শ্রদ্ধাশীল ও নম্র-ভদ্র হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি, ‘ম্যাচের আগে তাদের সাংবাদিক ও বিশেষজ্ঞরা যেন আমাদের কোন সম্ভাবনাই দেখেনি। তারা বলছিল আমরা ক্লান্ত একটি দল, আমরা নাকি মৃত মানুষের মতো প্রাণহীনভাবে হেঁটে বেড়াচ্ছি। ওদের এসব কথা আমাদের আরও তাতিয়ে দিয়েছিল। ওদেরকে ভুল প্রমাণিত করার একটা বাড়তি তাগাদা এনে দিয়েছিল আমাদের মধ্যে। ওদের উচিত আরও নম্র-ভদ্র হওয়া, প্রতিপক্ষের প্রতি আরও শ্রদ্ধাশীল আচরণ করা।’

নকআউট পর্বের সবকয়টি ম্যাচই অতিরিক্ত সময়ে নিয়ে গিয়ে জিতেছে ক্রোয়েশিয়া। মদ্রিচ তবুও বলছেন, বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের মতো ম্যাচের আগে ক্লান্ত থাকাটা অসম্ভব, ‘বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের আগে ক্লান্ত থাকাটা অসম্ভব। এই ম্যাচের তাৎপর্য আমরা বুঝি। আর্জেন্টিনা ম্যাচ বাদ দিলে টুর্নামেন্টে এটিই ছিল আমাদের সেরা ম্যাচ।’

ফাইনালে ওঠাটাকে ক্রোয়েশিয়ার প্রাপ্য বলেও মনে করছেন রিয়াল মাদ্রিদ তারকা, ‘আমাদের কাছে এটি স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মতো ব্যাপার। বিশ্বকাপের আগে কেউ আমাদের গোণায় ধরেনি। কিন্তু নিজেদের তীব্র ইচ্ছা, ঐক্যবদ্ধতা, মান ও লড়াকু মনোভাব দিয়ে আমরা এই পর্যন্ত এসেছি। আমরা এখন ফাইনালে। এবং আমার মনে হয় এটি আমাদের প্রাপ্য। শুরুর গোলটা ওরা করলেও ম্যাচের বেশিরভাগ সময় নিয়ন্ত্রণটা আমাদের হাতেই ছিল। শারীরিকভাবে ও টেকনিকালি দুইদিক থেকেই আমরা ইংল্যান্ডের চেয়ে ভালো দল ছিলাম আজকে।’

Comments

The Daily Star  | English

Sundarbans cushions blow

Cyclone Remal battered the coastal region at wind speeds that might have reached 130kmph, and lost much of its strength while sweeping over the Sundarbans, Met officials said. 

7h ago