গোলাপি সালোয়ার কামিজের কারণে লুমাকে গ্রেপ্তার করা হয়নি!

​নিরাপদ সড়কের দাবিতে ছাত্র আন্দোলনের সময় খুন ও ধর্ষণ নিয়ে ফেসবুক ভিডিওর মাধ্যমে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে লুতফুন নাহার লুমাকে গ্রেপ্তার করা হয়নি বলে দাবি করেছে পুলিশ। গতকাল পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ৪ আগস্ট ফেসবুক লাইভে গোলাপি সালোয়ার কামিজ পরিহিত এক নারীর ভাইরাল ভিডিওর কারণে লুমাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে যেসব খবর প্রকাশিত হয়েছে তা সঠিক নয়।
Lutfur Nahar Luma
কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেত্রী ইডেন কলেজের ছাত্রী লুৎফুর নাহার লুমা। ছবি: সংগৃহীত

নিরাপদ সড়কের দাবিতে ছাত্র আন্দোলনের সময় খুন ও ধর্ষণ নিয়ে ফেসবুক ভিডিওর মাধ্যমে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে লুতফুন নাহার লুমাকে গ্রেপ্তার করা হয়নি বলে দাবি করেছে পুলিশ। গতকাল পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ৪ আগস্ট ফেসবুক লাইভে গোলাপি সালোয়ার কামিজ পরিহিত এক নারীর ভাইরাল ভিডিওর কারণে লুমাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে যেসব খবর প্রকাশিত হয়েছে তা সঠিক নয়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সাইবার সিকিউরিটি বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) নাজমুল ইসলাম গতকাল দ্য ডেইলি স্টারকে বলেছেন, আন্দোলনের সময় ফেসবুকে বেশ কিছু উস্কানিমূলক পোস্ট দিয়েছিলেন লুমা। সেকারণেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার আরও দাবি, ফেসবুকে যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছিল তার কারণে সাইবার নিরাপত্তা কর্মকর্তারা তাকে গ্রেপ্তার করেনি… কোটা সংস্কার আন্দোলনে যুক্ত থাকার কারণেও গ্রেপ্তার করা হয়নি।

গত ৪ আগস্ট জিগাতলায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশ ও আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের হামলার সময় গোলাপি সালোয়ার কামিজ পরিহিত এক নারী মুখ ঢেকে ফেসবুক লাইভে বলেছিলেন, আওয়ামী লীগের অফিসে ধর্ষণ ও হত্যা করে কয়েকজন শিক্ষার্থীকে ফেলে রাখা হয়েছে। ফেসবুকে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছিল এই ভিডিওটি।

এরপর থেকেই আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের কিছু নেতা-কর্মী লুমাকে নিয়ে ফেসবুকে গুজব ছড়াতে শুরু করেন। ফেসবুকে তার যেসব ছবি ছড়ানো হয় তার প্রতিটিতেই পরনে গোলাপি রঙের সালোয়ার-কামিজ ছিল। এই রঙের পোশাক পরে কোটা সংস্কার আন্দোলনে যাওয়ার ছবি রয়েছে তার। তাদের দাবি ছিল, হত্যা ও ধর্ষণ নিয়ে ফেসবুক লাইভে গিয়ে লুমা গুজব ছড়িয়েছিল। সে দেশের শীর্ষ জঙ্গি মুফতি হান্নানের ভাইয়ের মেয়ে।

এর কয়েকদিন বাদেই কোটা সংস্কার আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ও ইডেন কলেজের ছাত্রী লুমাকে সিরাজগঞ্জে তার দাদার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। রাজধানীর রমনা থানায় তথ্য প্রযুক্তি আইনের বিতর্কিত ৫৭ ধারায় হওয়া একটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ। বৃহস্পতিবার তাকে তিন দিনের রিমান্ডে পাঠান আদালত।

লুমাকে গ্রেপ্তারের কারণ জানতে চাইলে এডিসি নাজমুল বলেন, লুমা সেই নারী হলে অবশ্যই আমরা তার বিরুদ্ধে পৃথক মামলা দায়ের করতাম।

ফেসবুক লাইভে আসা ওই নারীর ব্যাপারে তদন্ত চলছে জানিয়ে তিনি বলেন, তাকে চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।

গত শুক্রবার রাজধানীতে এক সংবাদ সম্মেলনে লুমার পরিবারের সদস্যরা তাকে নির্দোষ বলে মুক্তি দাবি করেন। সেখানে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতারা অভিযোগ করে বলেন, কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনে অংশ নেওয়ার জন্যই লুমাকে গ্রেপ্তার হতে হয়েছে।

গত ৭ আগস্ট ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়ে লুমা বলেছিলেন, ‘এক মাসের বেশি সময় ধরে ঢাকার বাইরে আছি। অনলাইনে কখনো কোনো আজাইরা স্ট্যাটাস দিয়েছি কি না, মনে পড়ে না।...একটা যৌক্তিক আন্দোলনে সক্রিয় থাকায় কত শত মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে ফাঁসানোর ব্যর্থ চেষ্টায় তারা মত্ত।’

Comments

The Daily Star  | English

Cyclone Remal: Coastal people reeling from heavy losses

Dipali Sardar of Gopi Pagla village in Khulna’s Paikgacha upazila used to rear ducks to support her family.

17m ago