ভেলেন্সিয়ার বিপক্ষেও ড্র করল বার্সেলোনা

লা লিগায় টানা তিন ম্যাচ জয়হীন থাকার পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টটেনহ্যামের মাঠে দারুণ জয় পেয়েছিল বার্সেলোনা। কিন্তু স্প্যানিশ লিগে ফিরে আবারো সেই হতাশাই তাদের সঙ্গী হয়েছে। এবার তাদের রুখে দিয়েছে ভেলেন্সিয়া। প্রতিপক্ষের মাঠে ১-১ গোলে ম্যাচটি ড্র হয়।

লা লিগায় টানা তিন ম্যাচ জয়হীন থাকার পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টটেনহ্যামের মাঠে দারুণ জয় পেয়েছিল বার্সেলোনা। কিন্তু স্প্যানিশ লিগে ফিরে আবারো সেই হতাশাই তাদের সঙ্গী হয়েছে। এবার তাদের রুখে দিয়েছে ভেলেন্সিয়া। প্রতিপক্ষের মাঠে ১-১ গোলে ম্যাচটি ড্র হয়।

মূলত বার্সেলোনার দুঃস্বপ্নের শুরু হয় জিরোনার সঙ্গে ড্র করার পর থেকেই। ২-২ গোলে সে ম্যাচ ড্র হওয়ার পরের ম্যাচে লেগানেসের কাছে হেরেই যায় তারা। এরপর অ্যাতলেতিক বিলবাওয়ের সঙ্গে আবার ১-১ গোলে ড্র করেছিল দলটি। এবার ভেলেন্সিয়ার সঙ্গেও একই পরিণতি হয় তাদের।

ম্যাচের ২ মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে বার্সেলোনা। কর্নার থেকে উড়ে আসা বলে থমাস ভারমিয়েলেনের হেড জেরার্দ পিকে গায়ে লেগে গোলমুখে বল পেয়ে যান এজিকুয়েল গারায়। আলতো টোকায় বল জালে জড়ান এ আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার।

তিন মিনিট পর আবারো গোল পেতে পারতো ভেলেন্সিয়া। মিচি বাতশুয়াইয়ের কোণাকোণি শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। পরের মিনিটে আবার জিওফ্রে কোনদগবিয়ার শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে গোলবঞ্চিত হয় ভেলেন্সিয়া। ১২ মিনিটে ভেলেন্সিয়াকে গোলবঞ্চিত করেন বার্সেলোনা গোলরক্ষক মার্ক টের স্টেগান। বাতশুয়াইয়ের শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ঠেকান তিনি।

প্রথম ২০ মিনিটে পুরো এলোমেলো ছিল বার্সেলোনা। ২১ মিনিটে প্রথম লক্ষ্যে শট রাখতে পারে তারা। তবে মেসির শট সহজেই রুখে দেন গোলরক্ষক নেতো। তবে দুই মিনিট পর আর মেসিকে রুখতে পারেননি এ গোলরক্ষক। লুইস সুয়ারেজের সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে দারুণ এক শটে জাল খুঁজে নেন এ আর্জেন্টাইন।

৩৯ মিনিটে আবার এগিয়ে যেতে পারতো ভেলেন্সিয়া। ডেনিস চেরিসেভের শট নেলসন সেমেদো ফেরালে বল পেয়ে যান হোসে গায়া। কিন্তু তার কোণাকোণি শট অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি। ৪৭ মিনিটে চেরিসভের দূরপাল্লার ভলি অল্পের জন্য জাল খুঁজে পায়নি।

৭৫ মিনিটে দিনের সেরা সুযোগটি পেয়েছিলেন ফিলিপ কৌতিনহো। মেসির পাস থেকে বল পেয়ে সামনে বাড়িয়ে ছিলেন সুয়ারেজ। ফাঁকায় বল পেয়ে শট নিতে দেরি করায় প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের ট্যাকেলে হেলায় হারান স্কোর করার দারুণ সুযোগ। এরপর আরও কিছু আক্রমণ করলেও গোল আদায় করতে পারেনি কোন দলই। ফলে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই মাঠ ছাড়ে তারা।

এ ড্রয়ে ৮ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে নেমে গেছে বার্সেলোনা। কারণ একই দিনের অন্য ম্যাচে সেল্তা ভিগোকে ২-১ গোলে হারিয়ে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠে গেছে সেভিয়া। আর রিয়াল বেতিসকে ১-০ গোলে হারিয়ে বার্সেলোনার সমান ১৫ পয়েন্ট আতলেতিকো মাদ্রিদেরও। তবে গোল ব্যবধানে তৃতীয় স্থানে আছে তারা। ১৪ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে আছে রিয়াল মাদ্রিদ।

Comments

The Daily Star  | English

Hiring begins with bribery

UN independent experts say Bangladeshi workers pay up to 8 times for migration alone due to corruption of Malaysia ministries, Bangladesh mission and syndicates

1h ago