এশিয়া কাপের শিরোপা ধরে রাখতে ১১০ ভাগ আশাবাদী নিগার

সংযুক্ত আরব আমিরাতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে অনুমিতভাবে আরও একবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ দল। মঙ্গলবার সকালে দেশে ফিরে এলে বিমানবন্দরে তাদের জানানো হয় ফুলেল অভ্যর্থনা।
Nigar Sultana Joty
বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ট্রফি নিয়ে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। ছবি: বিসিবি

২০১৮ সালে মালয়েশিয়ায় সর্বশেষ এশিয়া কাপে ভারতকে হারিয়ে ঐতিহাসিক শিরোপা ঘরে তুলেছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। এবার ঘরের মাঠে শিরোপা ধরে রাখার মিশন। তাতে শতভাগের বেশি আশাবাদী  অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে অনুমিতভাবে আরও একবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ দল। মঙ্গলবার সকালে দেশে ফিরে এলে বিমানবন্দরে তাদের জানানো হয় ফুলেল অভ্যর্থনা।

পরে গণমাধ্যমকে জ্যোতি বলেন, এশিয়া কাপের আগে এরকম একটি টুর্নামেন্ট তাদের প্রস্তুতিতে রাখছে এগিয়ে,  'আমি বলবো যে এটি আমাদের জন্য সেরা প্রস্তুতি ছিল, কারণ ম্যাচ অনুশীলনের চেয়ে ভালো কোনো প্রস্তুতি হতে পারে না। যেহেতু আমরা এই ফরম্যাটেই খেলে এসেছি, তাই এশিয়া কাপে এটি আমাদের অনেক বেশি হেল্প করবে। কারণ কমবেশি দল কিন্তু আমরা একই পাচ্ছি। আমরা একসঙ্গে খেলছি। এশিয়া কাপে যদি টিম কম্বিনেশন ঠিক থাকে, দল হিসেবে কাজ করতে পারি আমার কাছে মনে হয় এশিয়া কাপে ভালো একটা রেজাল্ট হবে।'

আগেরবার ভারতকে হারিয়ে জিততে পারলেও শক্তিতে গেল চার বছরে ভারত অনেক এগিয়ে গেছে। শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তানও সমীহ করার মতো শক্তি। তবে জ্যোতি মনে করেন শিরোপা জিততে একশো ভাগের বেশি আশাবাদ কাজ করছে তাদের,  '১১০ ভাগ অবশ্যই (আশাবাদী। কারণ নিজের মাটিতে খেলা এবং দল ভালো শেপে আছে। তাই অবশ্যই চাইবো ঘরের মাঠে ঘরের শিরোপা থাকে।'

কদিন আগে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে শিরোপা জিতে তোলপাড় ফেলে দেয় বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। তবে এশিয়া কাপের নামার আগে ফুটবল নয় নিজেদের থেকেই বেশি অনুপ্রেরণা খুঁজছেন ক্রিকেটাররা, 'অনুপ্রেরণা  আমি আমাদের দিক থেকে চিন্তা করতেছি কারণ আমরা কিন্তু বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। আমাদের দলে অনেকেই  আছে যারা এশিয়া কাপ খেলেছে। কাজেই সবাই অভিজ্ঞ। ঘরের মাঠে যেহেতু খেলা নিজেদেরকে এগিয়ে রাখাই উচিত।'

'যেহেতু আমরা ভালো একটা প্রস্তুতি পেয়েছি। চ্যাম্পিয়নশিপের মতো বড় অনুপ্রেরণা কিন্তু কিছু হতে পারে না আমার মতে। সেক্ষেত্রে আমার মনে হয় যে সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরণা হলো আমরা বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করে এসেছি যেটা হচ্ছে পুরো দলকে বোস্ট আপ করছে।'

Comments

The Daily Star  | English

International Mother Language Day: Languages we may lose soon

Mang Pru Marma, 78, from Kranchipara of Bandarban’s Alikadam upazila, is among the last seven speakers, all of whom are elderly, of Rengmitcha language.

8h ago