ওলাঙ্গা জানালেন, এখনও বেঁচে আছেন হিথ স্ট্রিক

হিথ স্ট্রিক এখনও বেঁচে আছেন বলে দাবি করেছেন তারই সাবেক সতীর্থ ও সাবেক জিম্বাবুইয়ান পেসার হেনরি ওলাঙ্গা।

বেশ কিছু আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানা যায় ক্যান্সারের কাছে হার মেনে মারা গেছেন বাংলাদেশ দলের সাবেক পেস বোলিং কোচ ও জিম্বাবুয়ের সাবেক তারকা ক্রিকেটার হিথ স্ট্রিক। তবে এর কয়েক ঘণ্টা পর এই কিংবদন্তি ক্রিকেটার এখনও বেঁচে আছেন বলে দাবি করেছেন তারই সাবেক সতীর্থ ও সাবেক জিম্বাবুইয়ান পেসার হেনরি ওলাঙ্গা।

টুইটার নামে পরিচিত সামাজিকমাধ্যম এক্সে স্ট্রিকের সঙ্গে আলাপের স্ক্রিনশট আপলোড করে এই সাবেক ক্রিকেটার লিখেছেন, 'আমি নিশ্চিত করতে পারি যে হিথ স্ট্রিকের মৃত্যুর গুজবটি ব্যাপকভাবে অতিরঞ্জিত করা হয়েছে। আমি তারসঙ্গে মাত্রই কথা বলেছি। থার্ড আম্পায়ার তাকে ফেরত ডেকেছেন। তিনি জীবন্ত একজন মানুষ।'

তবে স্ট্রিকের মৃত্যু সংবাদ বেশ কিছু জিম্বাবুয়ান খেলোয়াড়ও সামাজিকমাধ্যমে প্রচার করেছেন। যে তালিকায় ছিলেন ওলাঙ্গাও। ফক্স স্পোর্টস সহ বেশ আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমও তা ফলাও করে প্রচার করেছে।

গত মে মাসে কোলন ও লিভারের ক্যান্সার ধরা পড়ে স্ট্রিকের। জানা গেছে তখন থেকেই জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে বেঁচে আছেন স্ট্রিক। কারণ কোলন ও লিভারের ক্যান্সার পৌঁছে গিয়েছিল চতুর্থ স্তরে।

জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা বোলার স্ট্রিক দেশের হয়ে টেস্ট খেলেছেন ৬৫টি। সঙ্গে খেলেছেন ১৮৯টি ওয়ানডে। টেস্টে ২১৬টি উইকেটের পাশাপাশি করেছেন ১৯৯০ রান। আর ওয়ানডে সংস্করণে দুই হাজার ৯৪৩ রানের পাশাপাশি শিকার করেছেন ২৩৯ উইকেট।

জিম্বাবুয়ে দলের অধিনায়কও ছিলেন স্ট্রিক। তার নেতৃত্বে ২১টি টেস্ট ও ৬৮টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে জিম্বাবুয়ে। ২০০৫ সালে দেশের জার্সিতে শেষ ম্যাচ খেলেন তিনি।

পেশাদার ক্রিকেট ছাড়ার পর কোচিং পেশায় যোগ দেন স্ট্রিক। ২০০৯ সালে জিম্বাবুয়ের পেস বোলিং কোচ ছিলেন তিনি। এরপর ২০১৪ সাল থেকে দুই বছর টাইগারদের পেস বোলিং কোচের দায়িত্বে ছিলেন। তখন থেকেই জ্বলে উঠতে শুরু করে দেশের পেস বোলিং আক্রমণ। এরপর ব্যাঙ্গালুরুর জাতীয় ক্রিকেট একাডেমির কোচ হন তিনি।

তবে ২০২১ সালে আইসিসি দুর্নীতি বিরোধী বিধির কয়েকটি ধারা ভঙ্গের দায়ে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে তাকে আট বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন স্ট্রিক। যদিও সেই অভিযোগ সবসময়ই অস্বীকার করে এসেছেন তিনি।

Comments