‘অস্ট্রেলিয়ার মাঠে অস্ট্রেলিয়াকে হারাতে পারবে পাকিস্তান’, সংশয় নেই হাফিজের

পার্থে পাকিস্তানকে ৩৬০ রানের বিশাল ব্যবধানে হারায় অস্ট্রেলিয়া। ৪৫০ রান তাড়ায় প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্কের তোপে স্রেফ ৮৯ রানে অলআউট হয় সফরকারী পাকিস্তান।
Mohammad Hafeez and Pakistan

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পার্থে সিরিজের প্রথম টেস্টে স্রেফ উড়ে গেছে পাকিস্তান। ব্যাটে-বলে কোন বিন্দুমাত্র লড়াই করতে পারেনি শান মাসুদের দল। অস্ট্রেলিয়ার মাঠে টেস্টে এমনিতেই পাকিস্তানের পরিসংখ্যান বেশ জীর্ণ, তার উপর বর্তমান দলের অবস্থাও নড়বড়ে। তবু দলটির ডিরেক্টর মোহাম্মদ হাফিজ মনে করছেন, প্রতিভা দিয়েই অজিদের মাঠে জিতে যেতে পারেন তারা।

পার্থে পাকিস্তানকে ৩৬০ রানের বিশাল ব্যবধানে হারায় অস্ট্রেলিয়া। ৪৫০ রান তাড়ায় প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্কের তোপে স্রেফ ৮৯ রানে অলআউট হয় সফরকারী পাকিস্তান।

এই ম্যাচের পর গণমাধ্যমে আলাপে দলের প্রতি প্রবল আস্থার কথা জানিয়েছেন বিশ্বকাপ ব্যর্থতার পর দায়িত্ব পাওয়া হাফিজ,  'ছেলেদের যেমন প্রতিভা আছে কোন সন্দেহ নেই তারা অস্ট্রেলিয়াকে অস্ট্রেলিয়ার মাঠে হারাতে পারবে।'

অস্ট্রেলিয়ার মাঠে এখনো পর্যন্ত ৩৮ টেস্ট খেলে স্রেফ ৪টি জিততে পেরেছে পাকিস্তান, হেরেছে ২৭ ম্যাচ। সর্বশেষে অজিদের ডেরায় গিয়ে তারা জিতেছিলো ২৮ বছর আগে, সেই ১৯৯৫ সালে। বর্তমান স্কোয়াডে কারো কারো তখনো জন্মই হয়নি। অস্ট্রেলিয়ার মাঠে খেলা সর্বশেষ ১৫ টেস্টের সবগুলোই হেরেছে পাকিস্তান।

আগের প্রজন্মের বড় তারকাদের নিয়েও ব্যর্থ হয়েছে পাকিস্তান। বর্তমান দল আছে আরও নাজুক অবস্থায়। বিশ্বকাপ ব্যর্থতার পর বাবর আজম সরে গেলে অধিনায়ক করা হয় শান মাসুদকে। নতুন দায়িত্ব নিয়ে তিনি আছেন নিজেকে গুছিয়ে নেওয়ার ধাপে। পাকিস্তানের চিরায়ত পেস আক্রমণে যে ঝাঁজ থাকে সেটাও নেই এবার। কোন পেসারই ঘণ্টায় ১৪০ কিমির বেশি গড় গতি রাখতে পারছেন না। পার্থের বাউন্সি গতিময় পিচেও পাকিস্তানের পেসার গড় গতি ছিলো ঘণ্টায় ১৩২ কিলোমিটারের আশেপাশে।

দলের সেরা ব্যাটার বাবর আছেন ছন্দহীনতায়, রানের খোঁজে আছেন অধিনায়ক শানও। হাফিজ মনে করছেন প্রস্তুতি ও পরিকল্পনার দিক থেকে কোন ঘটতি নেই, আছে কন্ডিশন অনুযায়ী দক্ষতাও। স্রেফ নিজেদের দক্ষতা কাজে না লাগানোর আক্ষেপ তার,  'আমরা প্রয়োগের দিক থেকে পিছিয়ে আছে। প্রস্তুতি অনুযায়ী পরিকল্পনা ছিলো কিন্তু প্রয়োগ হয়নি। আমি বিশ্বাস করি দল হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার মাঠে পাকিস্তান অস্ট্রেলিয়াকে হারাতে পারে। কিন্তু আমাদের দক্ষতাটা প্রয়োগ করতে হবে।'

'আমরা দক্ষতা কাজে লাগাইনি। আমরা দলের জন্য পরিকল্পনা করেছিলাম, কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে দল হিসেবে তা প্রয়োগ করতে পারিনি। ছেলেরা যা চেয়েছিলো সেভাবে নিজেদের মেলে ধরতে পারেনি। আমাদের কিছু কৌশলগত ভুল ছিলো। প্রস্তুতি ছিলো, প্রয়োগ হয়নি।'

মেলবোর্নে ২৬ ডিসেম্বর বক্সিং ডেতে শুরু হবে পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় টেস্ট।

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

2h ago