'ভুল' ক্রিকেটার কিনে বিভ্রান্তিতে পাঞ্জাব

দুই জন শশাঙ্ক সিং ছিলেন এইবারের নিলামে

শশাঙ্ক সিংয়ের নাম উঠতেই নড়েচড়ে বসে পাঞ্জাব কিংস। তার জন্য বিড করে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। কিন্তু আর কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি আগ্রহ না দেখালে ভিত্তিমূল্যেই তাকে পেয়ে যায় তারা। কাঙ্ক্ষিত খেলোয়াড়কে পেয়ে বেজায় খুশি হওয়ারই কথা তাদের। কিন্তু কিছুক্ষণ পর হঠাৎই দ্বিধাগ্রস্ত হয়ে পড়েন তারা। এ নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিও আকর্ষণ করেছিল ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। 

তবে পরে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি জানিয়েছে কাঙ্ক্ষিত খেলোয়াড়কেই কিনেছে তারা। দুই খেলোয়াড়ের নাম এক হওয়ায় তাৎক্ষণিকভাবে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয় তখন। টুইটার খ্যাত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ, 'দলের পক্ষ থেকে পরিষ্কারভাবে জানানো হচ্ছে যে শশাঙ্ককে নেওয়ার লক্ষ্য আমাদের সব সময়ই ছিল। একটা জটিলতা তৈরি হয়েছিল তালিকায় দুই ক্রিকেটারের একই নাম হওয়ায়। শশাঙ্ককে দলে পেয়ে আমরা উচ্ছ্বসিত।'

পরে সেই পোস্ট শেয়ার করে শশাঙ্ক লিখেছেন, 'সবই ঠিক আছে। আমার প্রতি ভরসা করার জন্য ধন্যবাদ।'

দুবাইয়ে মঙ্গলবারের নিলামে ভারতীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা ৪৭ মিনিটে নাম ওঠে শশাঙ্ক সিংয়ের। অবিক্রিত থেকে যান বাংলার এই ক্রিকেটার। তিন মিনিট পর নাম ওঠে আরেক শশাঙ্ক সিংয়ের। তার নাম উঠতেই আগ্রহী হয় পাঞ্জাব। ভিত্তিমূল্য ২০ লাখ রুপিতেই পেয়ে যায় দলটি।

এরপর পরবর্তী খেলোয়াড় তনয় থিয়াগারাজনকেও কিনে নেয় পাঞ্জাব। কিন্তু তখন ভিন্ন আলোচনা চলতে থাকে পাঞ্জাবের টেবিলে। পাঞ্জাবের সত্ত্বাধিকারীদের একজন প্রীতি জিনতা ইশারা করেন নিলাম পরিচালনাকারীর দিকে। আরেক সত্ত্বাধিকারী নেস ওয়াদিয়া হাত নেড়ে বুঝিয়ে দেন যে, এই শশাঙ্ক সিংকে দলে চান না তারা।

তখন নাম নিলাম পরিচালনার দায়িত্বে থাকা মল্লিকা সাগর জিজ্ঞাসা করেন, 'আপনারা এই প্লেয়ারকে চান না? নেস ওয়াদিয়া আবার ইশারায় দেখান, 'না।' কিন্তু মাল্লিকা জানিয়ে দেন, এখন আর উপায় নেই, সময় শেষ হয়ে গেছে।

উল্লেখ্য, দল পাওয়া শশাঙ্ক সিং আইপিএলের গত মৌসুমে না খেললেও ২০২২ মৌসুমে খেলেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে। ১০টি ম্যাচ খেলে ১৭ গড়ে রান করেছেন ৬৯। স্ট্রাইকরেট ১৪৬.৪১। আগেও ছিলেন রাজস্থান র‌য়্যালস ও দিল্লি ক্যাপিটালস দলে। সবমিলিয়ে ৪৪ ইনিংসে ৭২৪ রান করেছেন তিনি ১৩৫.৮৩ স্ট্রাইক রেটে। বোলিংয়ে উইকেট নিয়েছেন ১৫টি।

অবিক্রিত শশাঙ্ক সিং ১৯ বছর বয়সী ক্রিকেটার। এখনও স্বীকৃত কোনো ধরনের ক্রিকেটে মাঠে নামা হয়নি তার।

Comments

The Daily Star  | English

$7b pledged in foreign funds

When Bangladesh is facing a reserve squeeze, it has received fresh commitments for $7.2 billion in loans from global lenders in the first seven months of fiscal 2023-24, a fourfold increase from a year earlier.

7h ago