ওয়ার্নারকে শয়তান বলে ডাকেন খাওয়াজার মা

সেই ছেলেবেলা থেকেই এ দুই অস্ট্রেলিয়ান তারকার বন্ধুত্ব।

ক্যারিয়ারের শেষ ইনিংসটা খেলে এগিয়ে চলে গেলেন প্যাভিলিয়নের দিকে। পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের দেওয়া গার্ড অফ অনার পেয়ে এক ক্ষুদে ভক্তকে উপহার দেন নিজের হেলমেট-গ্লাভস। এরপর জড়িয়ে ধরলেন উসমান খাওয়াজার মা ফোজিয়া তারিককে। সেই ছেলেবেলা থেকেই এ দুই অস্ট্রেলিয়ান তারকার বন্ধুত্ব।

স্থানীয় ক্লাবের গণ্ডি পেরিয়ে জাতীয় দলেও দীর্ঘদিন একত্রে ওপেনিং করেছেন। তবে শেষ হলো ওয়ার্নার ও খাওয়াজার জুটি। ২২ গজে আর দেখা যাবে না তাদের একসঙ্গে। তবে তাদের মধ্যকার পারিবারিক সম্পর্কটাও যে কতো গভীর সামাজিকমাধ্যমে এক বার্তা দিয়ে তা জানিয়ে দিলেন খাওয়াজা। এতোটাই যে ওয়ার্নারকে আদর করে 'শয়তান' বলে ডাকেন খাওয়াজার মা। 

পাকিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় ও শেষ টেস্ট ম্যাচ দিয়ে সাদা জার্সি তুলে রেখেছেন ওয়ার্নার।  সেই ম্যাচে মাঠে ছিলেন খাওয়াজার মাও। ম্যাচ শেষে ওয়ার্নারকে জড়িয়েও ধরেন খাওয়াজার মা। তার একটি ছবি সামাজিকমাধ্যমে আপলোড দিয়েছে খাওয়াজা। যা এরমধ্যেই ভাইরাল হয়ে পড়েছে।

ওয়ার্নারকে তার মা 'শয়তান' বলে ডাকেন জানিয়ে লিখেছেন, 'সে (ওয়ার্নার) আমার মাকে জড়িয়ে ধরে আছে, সে তাকে অনেক ভালোবাসে। সত্যি বলতে, আমি তার সঙ্গে ব্যাটিং উপভোগ করেছি, সে বলে  আক্রমণ করে খেলছিল, আমাকে আমার খেলা খেলতে দাও।'

'আমার মা তাকে ভালোবাসেন। তিনি তাকে শয়তান, দৈত্য বলে ডাকে। আমি, তার ছেলে নয়, ওয়ার্নারই আসল শয়তান, এই বিষয় মা পছন্দ করেন। এতে ওয়ার্নারকে লোরেন ও হাওয়ার্ডের (ওয়ার্নারের বাবা-মা) কাছে পাঠিয়ে দিতে পারেন,' যোগ করেন খাওয়াজা।

এদিন পাকিস্তানের বিপক্ষে ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট ম্যাচের শেষ ইনিংসে নেমে খেলেছেন ৫৭ রানের ইনিংস। সবমিলিয়ে টেস্টে ৮ হাজার ৭৮৬ রান করেছেন তিনি। যা টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার পঞ্চম সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক করেছে তাকে।

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka footpaths, a money-spinner for extortionists

On the footpath next to the General Post Office in the capital, Sohel Howlader sells children’s clothes from a small table.

3h ago