টাইগার যুবাদের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য ছুঁড়ে দিল ভারত

ইকবাল হোসেনের বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়েছিলেন আদর্শ সিং। কিন্তু পা ক্রিজের ভেতরে থাকলেও বিস্ময়করভাবে নো-বল ডাকেন আম্পায়ার।
ইকবালের এই ডেলিভারিতে নো-বল ডাকেন আম্পায়ার

আদর্শ সিংয়ের ক্যাচ ধরে তখন উল্লাস করছিলেন বাংলাদেশের যুবারা। কিন্তু আম্পায়ার ডাকলেন নো-বল। রিপ্লেতে দেখা গেল পায়ের বেশ কিছু অংশই ক্রিজের ভিতরে ছিল বোলার ইকবাল হোসেনের। ১৭ রানে থাকা সেই আদর্শ শেষ পর্যন্ত খেললেন ৭৬ রানের ইনিংস। আর তাকে দারুণ সঙ্গ দেন অধিনায়ক উদয় সাহারান। তাতে বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছে ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

শনিবার ব্লুমফন্টেইনে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে 'এ' গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশকে ২৫২ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৫১ রান করে ভারতীয় যুবারা।

ভারতকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে অবশ্য শুরুটা ভালোই করেছিল বাংলাদেশ। দলীয় ১৭ রানে আর্শিন কুলকার্নিকে আউট করে ওপেনিং জুটি ভাঙেন মারুফ মৃধা। উইকেটরক্ষক আশিকুর রহমানের হাতে ক্যাচ দেওয়ার আগে ৭ রান করেন আর্শিন। এরপর দলীয় ৩০ রানে সেই বিতর্কিত সিদ্ধান্ত। ইকবালের বলে আউট হলেও আম্পায়ারের ভুলে বেঁচে যান আদর্শ।

পরের ওভারে মুশের খানকে বিদায় করেন মারুফ। তাকেও উইকেটরক্ষক আশিকুরের ক্যাচে পরিণত করেন এই পেসার। ৭ বলে ৩ রান করেন মুশের। এরপর আদর্শের সঙ্গে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক উদয়। তৃতীয় উইকেটে ১১৬ রানের জুটি গড়েন এ দুই ব্যাটার। তাতেই বড় পুঁজির ভিত পেয়ে যায় ভারতীয়রা।

দলীয় ১৪৭ রানে আদর্শকে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন চৌধুরী মোহাম্মদ রিজওয়ান। তাকে রোহান উদ দৌলা বর্ষনের ক্যাচে পরিণত করেন এই পেসার। তবে আউট হওয়ার আগে খেলেন ৭৬ রানের ইনিংস। ৯৬ বলে ৬টি চারের সাহায্যে এই রান করেন এই ওপেনার।

এরপর খুব বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি অধিনায়ক উদয়। তাকে বিদায় করেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাহফুজুর রহমান রাব্বি। বর্ষণের দ্বিতীয় ক্যাচে পরিণত হওয়ার আগে ৬৪ রানের ইনিংস খেলেন উদয়। ৯৪ বলে ৪টি চারের সাহায্যে এই রান করেন তিনি।

অধিনায়কের বিদায়ের পর উইকেটে নেমে শুরু থেকে হাত খুলে খেলতে থাকেন আরাভেল্লি আভানিশ। ১৭ বলে ১টি করে চার ও ছক্কায় ২৩ রানের ইনিংস খেলে মারুফের বলে আউট হন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটার। এরপর ৪২ বলে ২৩ রান করে মারুফের চতুর্থ শিকারে পরিণত হন প্রিয়াংশু মোলিয়া। আর মুরুগান অভিষেককে আউট করে নিজের ফাইফার পূরণ করেন মারুফ।

তবে এক প্রান্তে আগ্রাসী ব্যাটিং করে দলের পুঁজি আড়াইশ স্পর্শ করেন শচিন দাস। ২০ বলে ২টি চার ও ১টি ছক্কায় ২৬ রান করেন এই ব্যাটার। বাংলাদেশের পক্ষে ৪৩ রান খরচ করে ৫ উইকেট নিয়ে সেরা বোলার মারুফ।

Comments

The Daily Star  | English

Five Transcom officials get bail in property dispute cases

A Dhaka court today granted bail to five officials of Transcom Group in connection with cases filed over property disputes

1h ago