বাবা চাইতেন না, মায়ের সাহায্যে ক্রিকেটার হয়েছেন আকাশ

রাঁচি টেস্টে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেকে দারুণ বল করে আলো ছড়িয়েছেন আকাশ। ডানহাতি পেসার নজর কেড়েছেন স্যুয়িংয়ের পসরায়। প্রথম দিনের প্রথম সেশনেই ৩ উইকেট নিয়ে আলো ছড়ান তিনি।
Akash Deep
মা ও বোনের সঙ্গে আকাশ। ছবি: সংগ্রহ

পড়াশোনা না করে ক্রিকেট খেললে ছেলে নষ্ট হয়ে যাবে, এমনটাই মনে করতেন আকাশ দ্বীপের বাবা। বাবার কঠোর বিধি নিষেধ থাকলেও মায়ের ছিলো সমর্থন। বাবাকে লুকিয়ে আকাশের ক্রিকেটার হওয়ার পর করে দেন তার মা।

রাঁচি টেস্টে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেকে দারুণ বল করে আলো ছড়িয়েছেন আকাশ। ডানহাতি পেসার নজর কেড়েছেন স্যুয়িংয়ের পসরায়। প্রথম দিনের প্রথম সেশনেই ৩ উইকেট নিয়ে আলো ছড়ান তিনি।

আকাশের মা লাডুমা দেভি সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানান, ছেলের ক্রিকেটার হওয়ার পেছনে ছিলো অনেক প্রতিবন্ধকতা,  'ওর বাবা ওকে একজন সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে দেখতে চাইত। কিন্তু ওর ক্রিকেটই ছিলো ধ্যানজ্ঞান। বাবা থেকে লুকিয়ে আমি ওকে ক্রিকেট খেলতে পাঠাতাম, ওর স্বপ্নপূরণ করতে সাহায্য করতাম।'

'ও ক্রিকেট খেলত শুনলে বলা হতো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আমি ওর উপর বিশ্বাস রেখেছিলাম।'

আকাশের বাবা রামজি সিং একটি সরকারি স্কুলের শারীরিক শিক্ষার শিক্ষক ছিলেন। ছেলের ক্রিকেট খেলায় কড়া নিষেধাজ্ঞা ছিলো তার। অবসর নেওয়ার পর পক্ষাঘাতে আক্রান্ত হন রামজি। ২০১৫ সালে তিনি মারা যান। ওই বছরই আকস্মিকভাবে মারা যান আকাশের বড় ভাই ধিরাজও।

পারিবারিক এই সংকট কালেও হাল ছাড়েননি আকাশ। মায়ের প্রবল সমর্থনে এগিয়ে খুঁজে নিয়েছেন নিজের পছন্দের পথ।

বিহারে জন্ম নেওয়া আকাশ ঘরোয়া প্রথম শ্রেণীর আসর রঞ্জি ট্রফি খেলেন বাংলার হয়ে। ২৭ পেরুনো পেসারের রেকর্ড বেশ নজরকাড়া। ৩০ ম্যাচ খেলেই তিনি নিয়ে ফেলেছেন ১০৪ উইকেট। তার ৫০ শতাংশ উইকেটই এসেছে বোল্ড কিংবা এলবিডব্লিউ থেকে।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে আকাশের বোলিং ফিগার শেষ পর্যন্ত ১৯-০-৮৩-৩। দ্বিতীয় ইনিংসে আরও ডানা মেলতে পারেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

Have faith in the top court, you won't be disappointed, PM tells students

“I believe our students will get justice. They will not be disappointed,” she said while addressing the nation this evening

19m ago