জোড়া গোলে রিয়ালকে জেতালেন বেনজেমা

গত মৌসুমে তো প্রায় একাই রিয়াল মাদ্রিদকে লা লিগায় চ্যাম্পিয়ন করেছিলেন করিম বেনজেমা। একই সঙ্গে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের স্বাদও পাইয়েছিলেন দলকে। যার পুরষ্কার কদিন আগেই উয়েফার বর্ষসেরা হয়ে পেয়েছেন তিনি। সে ধারা ধরে রেখেছেন চলতি মৌসুমেও। আগের দিনও পয়েন্ট খোয়াতে বসা রিয়ালকে এনে দিলেন দারুণ এক জয়।

গত মৌসুমে তো প্রায় একাই রিয়াল মাদ্রিদকে লা লিগায় চ্যাম্পিয়ন করেছিলেন করিম বেনজেমা। একই সঙ্গে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের স্বাদও পাইয়েছিলেন দলকে। যার পুরষ্কার কদিন আগেই উয়েফার বর্ষসেরা হয়ে পেয়েছেন তিনি। সে ধারা ধরে রেখেছেন চলতি মৌসুমেও। আগের দিনও পয়েন্ট খোয়াতে বসা রিয়ালকে এনে দিলেন দারুণ এক জয়। 

রোববার এস্পানিওলের মাঠ আরসিডিই স্টেডিয়ামে লা লিগার ম্যাচে স্বাগতিকদের ৩-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। দলের হয়ে জোড়া গোল করেছেন বেনজেমা। সঙ্গে গোল পেয়েছেন ভিনিসিয়ুস জুনিয়রও। এস্পানিওলের পক্ষে গোলটি করেন হোসেলু।

প্রতিপক্ষের মাঠেও মাঝমাঠের প্রাধান্য ছিল রিয়ালেরই। ৬৪ শতাংশ সময় বল দখলে ছিল তাদের। ১৯টি শট নেয় তারা। যার ৬টি ছিল লক্ষ্যে। খুব একটা পিছিয়ে ছিল না এস্পানিওলও। ১৫টি শট নিয়ে ৪টি লক্ষ্যে রাখে দলটি।

এদিন ম্যাচের প্রায় শুরুর দিকেই গোল পেয়ে এগিয়ে যায় রিয়াল। তবে মাঝের দিকে খেই হারায় দলটি। সে সুযোগে সমতায় ফেরে এস্পানিওল। তবে ম্যাচের প্রায় শেষ দিকে চিত্র বদলে দেন সেই বেনজেমা। তার জোড়া গোলে জয়ের ধারা ধরে রাখে চ্যাম্পিয়নরা।

ম্যাচের দ্বাদশ মিনিটে বলার মতো প্রথম আক্রমণেই এগিয়ে যায় রিয়াল। চুয়ামেনির বাড়ানো থ্রু পাস থেকে দারুণ এক কোণাকোণি শটে লক্ষ্যভেদ করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ভিনিসিয়ুস।

২০তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করতে পারতেন এ ব্রাজিলিয়ান। ফেদে ভালভার্দের পাস থেকে ভালো সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। তবে তার শট দারুণ দক্ষতায় ফেরান এস্পানিওল গোলরক্ষক বেঞ্জামিন লেকোমতে। প্রথমার্ধে আরও দুটি সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। তবে সুবিধা করে উঠতে পারেননি।

উল্টো ৪৩তম মিনিটে সমতায় ফেরে এস্পানিওল। অস্কার গিলের থ্রু বল ধরে জোরালো শট নিয়েছিলেন হোসেলু। তার শট ঠেকান রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কোর্তুয়া। তবে ফিরতি বল পেয়ে কোনাকুনি শটে জাল খুঁজে নেন এ স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই দারুণ ফুটবল খেলতে থাকে স্বাগতিকরা। একের পর এক আক্রমণে ৬০তম মিনিটে প্রায় এগিয়ে যাচ্ছিল দলটি। জটলার মধ্যে থেকে জোরাল শট নিয়েছিলেন হোসেলু। তার শট দুর্দান্ত দক্ষতায় ঠেকান কোর্তুয়া। দুই মিনিট পর পাল্টা আক্রমণ থেকে বেনজেমার শট ঠেকিয়ে দেন এস্পানিওল গোলরক্ষক।

৮৮তম মিনিটে এগিয়ে যায় রিয়াল। বাঁ প্রান্ত থেকে বদলি খেলোয়াড় রদ্রিগোর ক্রস থেকে বল জালে পাঠান বেনজেমা। যোগ করা সময়ের ষষ্ঠ মিনিটে দানি সেবাইয়োসকে ডি-বক্সের বাইরে এসে ফাউল করায় লাল কার্ড দেখেন এস্পানিওলের গোলরক্ষক লেকোমতে।

বদলি খেলোয়াড়ের কোটা আগেই শেষ করে ফেলায় বাধ্য হয়ে ডিফেন্ডার কাবরেরা গোলরক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন। তবে বেনজেমার নিখুঁত ফ্রি কিকে ঠেকাতে পারেননি তিনি।

টানা তিন ম্যাচে তিন জয়ে রিয়ালের পয়েন্ট হলো ৯। সমান ৯ পয়েন্ট রিয়াল বেতিসেরও। গোল ব্যবধানে পিছিয়ে আছে দলটি।

Comments

The Daily Star  | English
Heat wave Bangladesh

Jashore sizzles at 42.6 degree Celsius

Overtakes Chuadanga to record season’s highest temperature in the country

28m ago