রিয়াল মাদ্রিদকে নিজের বাড়ি মনে হয় এমবাপের

সবকিছু প্রায় চূড়ান্ত হয়ে গেলেও শেষ মুহূর্তে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়া থেকে বিরত থাকেন কিলিয়ান এমবাপে।
ছবি: সংগৃহীত

সবকিছু প্রায় চূড়ান্ত হয়ে গেলেও শেষ মুহূর্তে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়া থেকে বিরত থাকেন কিলিয়ান এমবাপে। পিএসজির সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করে তিনি পরিণত হন স্প্যানিশ ক্লাবটির ভক্ত-সমর্থকদের চক্ষুশূলে। এই ফরাসি স্ট্রাইকারের নতুন মন্তব্যে আলোচনা-সমালোচনার জোয়ার আরও তীব্র হতে পারে। রিয়ালে নাম না লেখালেও লা লিগার শিরোপাধারীদের নিজের ঘরের মতো অনুভব হওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।

২৩ বছর বয়সী এমবাপের রিয়ালে যোগ দেওয়ার জল্পনা-কল্পনা ছিল অনেক দিন ধরে। দুই পক্ষের মধ্যে কথাবার্তাও প্রায় পাকা হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু হঠাৎ করে সিদ্ধান্ত পাল্টে ফেলেন বিশ্বকাপজয়ী এই তারকা। চমক উপহার দিয়ে ফরাসি লিগ ওয়ানের শিরোপাধারী পিএসজির সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করেন তিনি। গত ২১ মে আসে এমবাপের নতুন চুক্তির ঘোষণা। আরও তিন বছরের জন্য অর্থাৎ ২০২৪-২৫ মৌসুম পর্যন্ত পার্ক দে প্রিন্সেসের ক্লাবটিতে থাকবেন তিনি।

তবে মঙ্গলবার আমেরিকান গণমাধ্যম দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ভবিষ্যতে রিয়ালে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেননি এমবাপে, 'আপনি জানেন না যে সামনে কী ঘটতে যাচ্ছে। আপনি কখনও সেখানে (রিয়ালে) থাকেননি কিন্তু মনে হয় যেন এটা আপনার বাড়ি অথবা এরকম কিছু।'

এমবাপেকে পিএসজিতে থেকে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেছিলেন খোদ ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি ইমানুয়েল মাখোঁ। দুজনের সেই আলাপ নিয়ে তিনি বলেছেন, 'আমি কখনও কল্পনা করিনি যে আমি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আমার ক্যারিয়ারের ভবিষ্যৎ নিয়ে কথা বলব। এটা পাগলাটে ব্যাপার ছিল, সত্যিই পাগলাটে।'

'তিনি আমাকে বলেছিলেন: "আমি চাই তুমি থাকো। আমি চাই না তুমি এখন চলে যাও। তুমি এই দেশের জন্য অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।... তোমার হাতে (রিয়ালে) যাওয়ার অনেক সময় আছে। তুমি আরও কিছুদিন এখানে থাকতে পারো।"'

পিএসজিতে এমবাপের থেকে যাওয়ার কারণ হিসেবে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার কথা উঠে এসেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে। সেসময় অবশ্য ক্লাবটির সভাপতি নাসের আল খেলাইফি জানিয়েছিলেন, রিয়াল তাকে আরও বেশি অর্থের প্রস্তাব দিয়েছিল। এ প্রসঙ্গে এমবাপে বলেছেন, 'আমি যেখানেই যাই না কেন আমি টাকা পাব। যেখানেই যাই না কেন আমি এই ধরনেরই একজন খেলোয়াড় (যে প্রচুর টাকা কামাবে)।'

Comments

The Daily Star  | English

Situation still tense at Shanir Akhra

Protesters, cops hold positions after hours of clashes; one feared dead; six wounded by shotgun pellets; Hanif Flyover toll plaza, police box set on fire

6h ago