আবারও বায়ার্নে বিধ্বস্ত বার্সেলোনা

বিদায় ঘণ্টা যে বেজে গেছে তা মাঠে নামার আগেই জেনে যায় বার্সেলোনা। তবুও বায়ার্ন মিউনিখের ম্যাচটা তাদের জন্য ছিল সম্মানের। ছিল প্রতিশোধের মিশনও। কিন্তু জমিয়ে লড়াইটাও করতে পারেনি দলটি। বরাবরের মতো মাঝমাঠের দখল রাখলেও কাজের কাজটি কিছুই করতে পারেননি তারা।

বিদায় ঘণ্টা যে বেজে গেছে তা মাঠে নামার আগেই জেনে যায় বার্সেলোনা। তবুও বায়ার্ন মিউনিখের ম্যাচটা তাদের জন্য ছিল সম্মানের। ছিল প্রতিশোধের মিশনও। কিন্তু জমিয়ে লড়াইটাও করতে পারেনি দলটি। বরাবরের মতো মাঝমাঠের দখল রাখলেও কাজের কাজটি কিছুই করতে পারেননি তারা।

বুধবার রাতে ন্যু ক্যাম্পে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের 'সি' গ্রুপের ম্যাচে বার্সেলোনাকে ৩-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছে বায়ার্ন।  এর আগে বায়ার্নের মাঠ অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনা থেকে ২-০ গোলের ব্যবধানে হেরে ফিরেছিল দলটি।

মুখোমুখি লড়াইয়ে বায়ার্নের কাছে এ নিয়ে টানা ছয়টি ম্যাচ হারল বার্সেলোনা। আর শেষ নয় ম্যাচে আটটি হার তাদের। এই নয় ম্যাচে তারা গোল হজম করেছে ৩১টি। দিতে পেরেছে কেবল ৭টি গোল।

তবে হারলেও নিজেদের ভাগ্যবানই ভাবতে পারে বার্সেলোনা। কারণ বায়ার্ন তাদের বল জালে জড়িয়েছিল আরও একবার। ভিএআরে যাচাইয়ের পর অফসাইডের কারণে গোল মিলেনি। এছাড়া ফাঁকা পোস্টেও গোল মিস করেছেন সাদিও মানে, জামাল মুসিয়ালারা। অন্যথায় ব্যবধান বড় হতে পারতো আরও।    

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এবারের মৌসুমে এ নিয়ে টানা পাঁচটি ম্যাচই জিতে নিল বায়ার্ন। একই গ্রুপের শীর্ষে থেকেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত করল তারা। পাঁচ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট তাদের। অন্যদিকে পাঁচ ম্যাচে কেবল দুর্বল ভিক্তরিয়া প্লাজেনের বিপক্ষেই জয় পেয়েছে বার্সেলোনা। টানা দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপা লিগে খেলতে হবে কাতালান দলটিকে। বায়ার্নের সঙ্গে এ গ্রুপ থেকে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করেছেন ইন্টার মিলান। এদিন প্লাজেনকে ৩-০ গোলের ব্যবধানে হারায় তারা।

ম্যাচের দশম মিনিটেই এগিয়ে যায় বায়ার্ন। পাল্টা আক্রমণ থেকে সার্জ নাব্রির নিখুঁত থ্রু পাসে অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ফাঁকায় পেয়ে যান সাদিও মানে। এগিয়ে গিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে দারুণ এক শট বার্সা গোলরক্ষক টের স্টেগেনকে পরাস্ত করেন এ ফরোয়ার্ড।

৩১তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে সফরকারীরা। নিজেদের অর্ধ থেকে সতীর্থের কাছ থেকে বল পেয়ে ডান প্রান্তে কুপো-মোটিংকে বল বাড়ান নাব্রি। অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ডি-বক্সে ঢুকে দারুণ এক কোণাকোণি শটে লক্ষ্যভেদ করেন এরিক ম্যাক্সিম কুপো-মোটিং।

৪৪তম মিনিটে অবিশ্বাস্যভাবে বেঁচে যায় বার্সেলোনা। গোলরক্ষককে একা পেয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি মানে। আলগা বল ফাঁকায় পেয়ে যান জামাল মুসিয়ালা। তার সামনে ছিলেন কেবল বেলেরিন। কিন্তু তার শট ঠেকিয়ে দেন এ ডিফেন্ডার। ফিরতি বলেও ছিল সুযোগ। এবার তার শট গোলমুখ থেকে ঠেকান টের স্টেগান।

৫৫তম মিনিটে বার্সার জালে ফের বল পাঠিয়েছিল বায়ার্ন। তবে অফসাইডের কারণে গোল মিলেনি। ম্যাচের যোগ করা সময়ে আরও একটি গোল হজম করে বার্সা। কর্নার থেকে বল পেয়ে লক্ষ্যে শট নেওয়ার চেষ্টা করেন নাব্রি। তবে ফাঁকায় পেয়ে যান বদলি খেলোয়াড় বেঞ্জামিন পাভার্ড। দারুণ এক শট স্কোরলাইন ৩-০ করেন এ ডিফেন্ডার।

Comments

The Daily Star  | English
Gold price makes new record

Gold price hits new record again

Jewellers are selling each bhori of gold at Tk 119,637 from 7pm today

1h ago