আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ইতি টানলেন লরিস

অধিনায়ক হিসেবে ফ্রান্সের হয়ে টানা দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জয়ের হাতছানি ছিল হুগো লরিসের সামনে। কিন্তু টাইব্রেকারে গিয়ে আর আর্জেন্টিনার সঙ্গে পেরে উঠেনি তার দল। সেই ব্যর্থতার পর এবার আন্তর্জাতিক ফুটবলকেই বিদায় বলে দিলেন টটেনহাম হটস্পার তারকা।

অধিনায়ক হিসেবে ফ্রান্সের হয়ে টানা দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জয়ের হাতছানি ছিল হুগো লরিসের সামনে। কিন্তু টাইব্রেকারে গিয়ে আর আর্জেন্টিনার সঙ্গে পেরে উঠেনি তার দল। সেই ব্যর্থতার পর এবার আন্তর্জাতিক ফুটবলকেই বিদায় বলে দিলেন টটেনহাম হটস্পার তারকা।

সোমবার ফরাসি গণমাধ্যম লা'কিপ প্রকাশ করে লরিসের এক সাক্ষাৎকার। সেখানে ৩৬ বছর বয়সী এই গোলরক্ষক বলেছেন, '(সামর্থ্যের) সবটুকুই দিয়েছি এমন অনুভূতি সঙ্গী করে আমি আমার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের সমাপ্তি ঘটানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমি মনে করি এটা এখন ঘোষণা করে দেওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ, ইউরো বাছাইপর্ব শুরুর আড়াই মাস আগেই।'

বিশ্বকাপের পর থেকেই অবসর নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছিলেন বলে জানান লরিস, 'বিশ্বকাপ শেষের পর থেকেই আমি এটা (অবসর) নিয়ে অনেক ভাবছিলাম। কিন্তু গত ছয় মাস ধরে আমার ভিতরে কিছু একটা বোধ করছি যেই অনুভূতি বিশ্বকাপ চলাকালে আরও বেড়েছে, আমাকে এই সিদ্ধান্তের দিকে ধাবিত করেছে।'

২০০৮ সালের নভেম্বরে উরুগুয়ের বিপক্ষে এক প্রীতি ম্যাচে প্রথমবারের মতো ফ্রান্সের জার্সি গায়ে চাপিয়েছিলেন লরিস। কাতার বিশ্বকাপেই দ্য ব্লুজদের জার্সিতে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার কীর্তি গড়েন তিনি।

ফাইনালে ফরাসিদের হয়ে ১৪৫তম ম্যাচে মাঠে নামেন লরিস। এর আগে রেকর্ডটি ছিল ১৪২ ম্যাচ খেলা লিলিয়ান থুরামের দখলে। রাশিয়া বিশ্বকাপসহ ফ্রান্সের হয়ে সাতটি মেজর টুর্নামেন্ট খেলেছেন লরিস।

Comments