নিজেদের মাঠে মেসি-নেইমার-এমবাপেদের হোঁচট

রোববার লিগ ওয়ানের ম্যাচে পিএসজিকে ১-১ গোলে রুখে দেয় রাঁস।

শুরুর একাদশে ছিলেন দলের সেরা তিন তারকা লিওনেল মেসি, কিলিয়ান এমবাপে আর নেইমার। নেইমারের গোলে জয়ের পথেও ছিল পিএসজি। কিন্তু ৫৭ মিনিটে মার্কো ভেরাত্তি লাল কার্ড দেখলে বদলে যায় হিসাব। পরে সেই গোল আর ধরে রাখতে পারেনি শিরোপা প্রত্যাশিরা।

রোববার লিগ ওয়ানের ম্যাচে পিএসজিকে ১-১ গোলে রুখে দেয় রাঁস। 

৫১ মিনিটে নেইমারের গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি। অন্তিম সময়ে গোল শোধ করেন ফ্লোরিয়ান ব্যালোগান।

এই নিয়ে লিগ ওয়ানে টানা দুই ম্যাচ জিততে পারল না পিএসজি৷ 

নেইমার- মেসি- এমবাপেকে নিয়ে গড়া শক্তিশালী আক্রমণ ভাগ প্রধান্য বিস্তার করলেও গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারে কম। গোলমুখে পিএসজির নেয়া ১২ শটের কেবল ৪টা ছিল লক্ষ্যে। ৮ শটের পাঁচটি নিশানায় রাখতে পারে রাঁস৷ 

খেলার তৃতীয় মিনিটে সুযোগ পেয়েছিলেন মেসি৷ আশরাফ হাকিমির কাছ থেকে পাওয়া বল বারের উপর দিয়ে মারেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা।

৯ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত রাঁসও। ব্যালোগানের নেওয়া শট অল্পের জন্য থাকেনি লক্ষ্যে। ১৭ মিনিটে পিএসজিকে বাঁচান গোলরক্ষক দোন্নারুমা। মুনেটসির শট অসাধারণ নৈপুণ্যে রক্ষা করেন তিনি।

কদিন আগে ফরাসি কাপে পাঁচ গোল করা এমবাপেকে খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছিল না,  মেসিও ছিলেন বিবর্ণ।

বিরতির পর ৫১ মিনিটে মেসি বল নিয়ে ছুটে যান। তার দেয়া বক হুয়ান বেরনাতের পা ঘুরে নেইমারের পায়ে পড়ে। ব্রাজিলিয়ান তারকা নিজেদের সহজাত মুন্সিয়ানায় গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে বল জড়িয়ে দেন জালে।
 
৫৯ মিনিটে বড় ধাক্কা খায় পিএসজি। শুরুতে পেনাল্টি পেয়েছিল পিএসজি। কিন্তু ভিআরএ ধরা পড়ে তার আগে বদলি নামা ভেরাত্তি ফাউল করেন প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়কে৷ সরাসরি লাল কার্ড দেখেন তিনি। বাতিল হয় পেনাল্টিও।

৬২ মিনিটে কর্নার থেকে সার্জিও রামোসের হেড ক্রসবারে লাগলে ব্যবধান বাড়াতে পারেনি পিএসজি। ফিরতি বলেও গোলের চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু গোললাইন থেকে তা প্রতিহত হয়।

তিন মিনিট পর হাকিমি বল জালে জড়ালেও অফসাইডে তা বাতিল হয়ে যায়। পরের কয়েক মিনিটে আক্রমণের তোড়ে গোল বাড়াতে গিয়ে ব্যর্থ হয় পিএসজি। 

রাঁসও খেলায় ফিরতে বাড়ায় চাপ৷ দশজনের পিএসজিকে চেপে ধরে তারা। একদম শেষ মিনিটে গিয়ে আলোর মুখ দেখে তারা৷ 

মাঝমাঠ থেকে বল পেয়ে কামোরি ডুম্বিয়া পাস বাড়ান ব্যালোগানকে। ডিফেন্স ফাঁকা পেয়ে ছুটে গিয়ে গোলরক্ষককে কাটিয়ে দলকে সমতায় ফিরিয়ে উল্লাসে মাতেন তিনি।

ম্যাচ হারলেও ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে পিএসজি৷ তিন পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে রাঁস৷ 

Comments