মেসি ম্যাজিকে জিতল আর্জেন্টিনা

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এদিন শুরুতেই দুর্দান্ত একটি গোল দিয়েছেন মেসি।

বেইজিং। আলাদা আবেগের নাম মেসি, দি মারিয়াদের জন্য। ২০০৮ সালে এই শহর থেকেই অলিম্পিক পদক জিতে নিয়েছিল তারা। দীর্ঘদিন পর স্মৃতি বিজারিত সেই শহরে ফের নামল আর্জেন্টিনা। এবারও তাদের হতাশ করেনি এ শহর। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দারুণ এক জয় তুলে নিয়েছে তারা।

বৃহস্পতিবার বেইজিংয়ের ওয়ার্কার্স স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলের ব্যবধানে জিতেছে আর্জেন্টিনা। দলের হয়ে একটি করে গোল করেছেন মেসি ও হার্মান পেজ্জেয়া। গত বিশ্বকাপের শেষ ষোলোতে এই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে জিতেছিল তারা। সেদিনও গোল পেয়েছিলেন মেসি। অপর গোলটি ছিল হুলিয়ান আলভারেজের।

ওয়ার্কার্স স্টেডিয়াম এদিন সেজেছিল মেসিদের রঙে। গ্যালারী দেখলে মনে হবে যেন আর্জেন্টিনার ঘরের কোনো স্টেডিয়াম। পুরো গ্যালারী ছিল আকাশী-নীল সাদা রঙে রাঙানো। ম্যাচ শুরুর আগে থেকেই চলতে থাকে 'মেসি, মেসি' জয়ধ্বনি। দর্শকদের এই ভালোবাসার জবাব মেসি দিয়েছেন দুই মিনিটেই।

সেই ট্রেডমার্ক শট। যে শটে প্রতিপক্ষকে অনেকবারই ঘায়েল করেছেন মেসি। ম্যাথিউ লেকির ভুলে বল পেয়ে মেসিকে পাস দেন এঞ্জো ফার্নান্দেজ। বল ধরে সামনের দিকে এগিয়ে দুই খেলোয়াড়কে কাটিয়ে আরও দুই খেলোয়াড়কে এড়িয়ে প্রথম বারপোস্ট ঘেঁষে নেওয়া নিখুঁত শটে আদায় করে নেন গোল।

মাত্র ৮০ সেকেন্ডে করা এই গোলটিই আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে মেসির সবচেয়ে দ্রুততম। এর আগে ২০১৪ বিশ্বকাপে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে দুই মিনিট ২৬ সেকেন্ডে গোল দিয়েছিলেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে তার গোল সংখ্যা হলো ১০৩টি। 

মেসিদের এই ম্যাচ নিয়ে দারুণ উন্মাদনা ছিল চীনের সমর্থকদের। গ্যালারির সর্বনিম্ন ৮২ ডলারের টিকিট হতে শুরু করে সর্বোচ্চ ৬৭৫ ডলারের টিকিট সব শেষ হয়ে যায় মাত্র ১০ মিনিটেই। মেসিদের দেখার জন্য বিশাল অঙ্ক খরচ করে টিম হোটেলে রুম নিয়েছেন অনেকেই। তাদের হতাশ করেননি আলবিসেলেস্তেরা।

নবম মিনিটে আরও একটি গোল পেতে পারতেন মেসি। দি মারিয়ার সঙ্গে দেয়া নেওয়া করে ডান প্রান্ত দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েছিলেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। তবে ভালো শট নিতে পারেননি। দুরূহ কোণ থেকে নেওয়া তার শট সাইড নেট কাঁপায়।

তবে দুর্ভাগ্য প্রায় নেমে এসেছিল ২৮তম মিনিটে। এ যাত্রা বড় বাঁচা বেঁচে যায় আর্জেন্টিনা। জর্ডান বসের ক্রস থেকে মিচেল ডিউকের শট ঝাঁপিয়ে কোনোমতে ঠেকান গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেজ। বল গড়িয়ে আবার জালের দিকেই যাচ্ছিল। তবে ফিরে আসে বারপোস্টে লেগে। এবার ঝাঁপিয়ে লুফে নিতে ভুল হয়নি এমিলিয়ানোর।

পরের মিনিটে রিলে ম্যাকগ্রির ক্রস থেকে ম্যাথিউ লেকির হেড এক আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার ব্লক করলে সমতায় ফেরা হয়নি অস্ট্রেলিয়ার। ৩৮তম মিনিটে দিনের সেরা সুযোগটি হাতছাড়া করেন মেসি। দি মারিয়ার থ্রু বল থেকে গোলরক্ষককে একা পেয়ে গিয়েছিলেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। কিন্তু তার ডান পায়ের ভলি বারপোস্টের উপর দিয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। 

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেও গোল পেতে পারতো আর্জেন্টিনা। দি মারিয়ার দুরূহ কোণ থেকে নেওয়া শট ঠেকান গোলরক্ষক ম্যাট রায়ান। ৬৮তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে আর্জেন্টিনা। ছোট কর্নারে মেসির কাছ থেকে বল পেয়ে দারুণ এক ক্রস করেন রদ্রিগো দি পল। লাফিয়ে দারুণ এক হেডে বল জালে পাঠান পেজ্জেয়া।

এর তিন মিনিট পর ব্যবধান আরও বাড়াতে পারতো তারা। ফাঁকায় পেয়ে গিয়েছিলেন আলভারেজ। ভারসাম্য ঠিক রাখতে না পারায় প্রথম দফায় বল নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেননি। তবে দুই খেলোয়াড়কে এড়িয়ে বাঁ প্রান্তে এগিয়ে দারুণ এক শট নিয়েছিলেন তিনি। তারচেয়েও দারুণ দক্ষতায় ঝাঁপিয়ে তার শট আটকে দেন গোলরক্ষক রায়ান।

আগামী সোমবার ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় স্বাগতিকদের বিপক্ষে এবারের আন্তর্জাতিক বিরতির দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে আর্জেন্টিনা। সে ম্যাচে অবশ্য খেলবেন না মেসি।

Comments

The Daily Star  | English
Hijacked MV Abdullah

Pirates release MV Abdullah, crew

The ship, owned by KSRM Group, was captured at gunpoint on March 12 around 600 nautical miles off the Somalian coast while carrying coal from Maputo in Mozambique to Al Hamriyah in the UAE

1h ago