ফিফা নারী বিশ্বকাপ

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন স্পেন

রোববার সিডনিতে ফিফা নারী বিশ্বকাপের ফাইনালে ইংল্যান্ডকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে স্পেন।

গোল শোধে মরিয়া ইংল্যান্ড একের পর এক আক্রমণ চালিয়েও শেষ পর্যন্ত  পারল না। স্পেনের রক্ষণ দেয়ালের দৃঢ়তায় হতাশ হলো তারা। পেনাল্টি থেকে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ হাতছাড়া করলেও প্রথমার্ধে দেওয়া গোল ধরে রাখল স্প্যানিশরা। শেষ বাঁশি  বাজার সঙ্গে প্রথমবারের মতো নারী বিশ্বকাপ জেতার উল্লাসে মাতল তারা।

রোববার সিডনিতে ফিফা নারী বিশ্বকাপের ফাইনালে ইংল্যান্ডকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে স্পেন। ম্যাচের ২৯ মিনিটে অলগা কারামোনার গোলে এগিয়ে যায় স্পেন, সেই গোলই তাদের এনে দিল প্রত্যাশিত শিরোপা। 

স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া সেমিফাইনালে ছিটকে পড়ায় ফাইনালে দর্শক আগ্রহ কম থাকার শঙ্কা ছিল। কিন্তু রোববার ইংল্যান্ড-স্পেন ফাইনাল দেখতে মাঠে উপস্থিত ছিলেন ৭৫ হাজার ৭৮৪ জন দর্শক। দারুণ আবহে তাই দুই দলের খেলাও হয়েছে জম্পেশ। 

এবার অনেকটা আন্ডারডগ থেকে বিশ্বকাপ শুরু করেছিল স্পেন। এর আগে কখনো শেষ ষোলোর বাঁধা পেরুতে না পারা দলটি একের পর এক রোমাঞ্চ ছড়িয়ে পৌঁছায় ফাইনালে। ফাইনালের মঞ্চও করল রঙিন। ম্যাচের ২৯ মিনিটে বা দিক থেকে বল পেয়ে বক্সের দিকে ছুটে আড়াআড়ি প্লেসিং শটে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন কারামোনা। 

গোল শোধে ইংল্যান্ড অনেক চেষ্টা চালালেও ম্যাচে পরিষ্কার সুযোগ বেশি তৈরি স্পেনই। ৬৬ মিনিটে তারা পেতে পারত দ্বিতীয় গোল। বক্সের ভেতর হ্যান্ড বল থেকে ভিএআরে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত আসলে তা থেকে গোল করতে ব্যর্থ হয় স্পেন। ইংল্যান্ডের গোলরক্ষক ম্যারি ইরাপস ঠেকিয়ে দেন তা।

স্পেনের মতো ইংল্যান্ডের মেয়েদেরও ছিল এটি প্রথম ফাইনাল। ১৯৬৬ সালে ছেলেদের বিশ্বকাপে শিরোপা জেতা দলটি এবার লম্বা সময় শিরোপা খরা কাটানোর সুযোগ দেখছিল এটিকে।

Comments