ভিনিসিয়ুসকে নিয়ে দুশ্চিন্তায় রিয়াল

ব্রাজিলের হয়ে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচে খেলতে পারবেন না ভিনিসিয়ুস।

মৌসুম শুরু না হতেই বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে হারিয়েছে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। এবার দলের আরেক তারকা ভিনিসিয়ুস জুনিয়রকে নিয়েও দুশ্চিন্তায় রয়েছে তারা। সেলতা ভিগোর বিপক্ষে চোটে পড়েন এই খেলোয়াড়। আঘাত প্রত্যাশার তুলনায় আরও গুরুতর হতে পারে সংবাদ স্প্যানিশ গণমাধ্যমের।

বালাইদোসে গত শনিবার রাতে সেলতা ভিগোর বিপক্ষে ১-০ গোলের কষ্টার্জিত জয়ের ম্যাচের ১৫ মিনিট যেতেই পায়ে অনুভব করেন ভিনিসিয়ুস। তার ডান পায়ের হ্যামস্ট্রিংয়ে চোটের কারণে পরে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। আজ এমআরআই করানো হবে তার। সব ঠিকঠাক থাকলেও রিয়ালের হয়ে পরবর্তী ম্যাচে হেতাফের বিপক্ষে খেলতে পারবেন না তিনি।

শেষ দুটি দিন কিছুটা অদ্ভুতই কেটেছে ভিনিসিয়ুসের। স্প্রিন্টের সময় 'পাংচার' এর মতো কিছু অনুভব করেছিলেন, তবে কিছুটা হালকা। এর আগে এ ধরণের চোটের খুব একটা অভিজ্ঞতা না থাকায় পরিমাপ করতে পারছেন না এই ব্রাজিলিয়ান। তবে তাকে নিয়ে কোনো ধরণের ঝুঁকি নিতে চায় না ক্লাবটি।

ধারণা করা হচ্ছে আঘাত বেশিই গুরুতর। ম্যাচের হাফ টাইমে শান্তই ছিলেন তিনি। তখন উদ্বেগজনক কিছু বলে মনে হয়নি। কিন্তু গতকাল থেকে চোটের জায়গায় প্রদাহ যথেষ্ট ছিল এবং ব্যথার মাত্রা কমেনি। এখনও কোনও রেজোলিউশন নেই। তবে প্রায় চার থেকে পাঁচ সপ্তাহের জন্য বাইরে থাকতে পারেন তিনি।

আর এমনটা হলে বেশ বড় ধাক্কা রিয়ালের জন্য। কারণ এরই মধ্যে প্রায় পুরো মৌসুমের জন্য ছিটকে গেছেন গোলরক্ষক থিবো কোর্তুয়া ও ডিফেন্ডার এদের মিলিতাও। ফেরলান্দ মেন্দি ও দানি কাবায়োসও চোটের কারণে মাঠের বাইরে। তার চোটে তালিকাটা আরও লম্বা হতে যাচ্ছে।

এদিকে ভিনিসিয়ুসের এই চোটে ধাক্কা খেয়েছে ব্রাজিল দলও। আগামী ৯ সেপ্টেম্বর কনমেবল অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচে বলিভিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে তারা। এর তিন দিন পর পেরুর মাঠে খেলবে দলটি। সেই দুটি ম্যাচে ভিনিসিয়ুসকে পাচ্ছে না তারা। কারণ চোট গুরুতর না হলেও আন্তর্জাতিক ম্যাচের জন্য রিয়াল তাকে ছাড়বে না বলেই জানিয়েছে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মার্কা।

Comments

The Daily Star  | English

Freedom Index: Bangladesh ranks 141 out of 164 countries

Bangladesh’s ranking of 141 out of 164 on the Freedom Index places it within the "mostly unfree" category

48m ago