ইউএস ওপেন থেকে নাদালকে বিদায় করে দিলেন অখ্যাত টিয়াফো

সোমবার আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে ইউএস ওপেনে র‌্যাঙ্কিংয়ের দুই নম্বর তারকা নাদালকে ৬-৪, ৪-৬, ৬-৪, ৬-৩ গেমে হারিয়ে দেন ২৬ নম্বরে থাকা টিয়াফো।

ইউএস ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে  বড় অঘটনের জন্ম দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রে ফ্রান্সিস টিয়াফো। কিংবদন্তি রায়ায়েল নাদালকে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় করে দিয়েছেন তিনি।

সোমবার আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে ইউএস ওপেনে র‌্যাঙ্কিংয়ের দুই নম্বর তারকা নাদালকে ৬-৪, ৪-৬, ৬-৪, ৬-৩ গেমে হারিয়ে দেন ২৬ নম্বরে থাকা টিয়াফো।

তুমুল সাড়া ফেলা এই জয়ের পর আবেগে কেঁদে ফেলেন তিনি। জানান এই অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়, 'আমি জানি না কী বলব, আমি উচ্ছ্বসিত, আমার চোখে জল এসে গেছে।'

এই ম্যাচের আগে টেনিস দুনিয়ায় নামডাক ছিল না টিয়াফোর। কিন্তু নাদালকে হারিয়ে তিনি এখন পুরো দুনিয়ার খবরের শিরোনাম। ২৪ বছর বয়েসে টিয়াফো ২২টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জেতা নাদালকে হারিয়ে নতুন তারকা হওয়ার আভাস দিয়ে দিলেন।

এই বছর দারুণ ছন্দে ছিলেন স্প্যানিশ তারকা নাদাল। গ্র্যান্ড স্ল্যাম টুর্নামেন্টে এই ম্যাচে আগে জিতেছেন টানা ১৭ ম্যাচ। অস্ট্রেলিয়ান ও ও ফ্রেঞ্চ ওপেনে শিরোপা জেতার পর চোটের কারণে উইম্বলডন সেমি-ফাইনাল থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন নাদাল।

এবারের আগে নাদালের সঙ্গে আরও দুবার খেলেছিলেন টিয়াফো। কোনবারই সামান্য লড়াই করতে পারেননি। পরিস্কার ফেভারিট নাদালের বিপক্ষে এদিন ভিন্ন মেজাজে দেখা যায় তাকে। শুরু থেকেই প্রাধান্য বিস্তার করে ভড়কে দেন চ্যাম্পিয়ন তারকাকে।

১৯৯৩ সালে সিয়েরা লিওনে জন্ম হয় টিয়াফোর। এরপর বাবা-মার সঙ্গে থিতু হন যুক্তরাষ্ট্রে। ওয়াশিংটন ডিসির একটি টেনিস সেন্টারে কাজ করতেন তার বাবা। সেই সূত্রেই টেনিসের সঙ্গে সম্পর্ক টিয়াফোর। এবার সেই সম্পর্ক তাকে অন্য স্তরে নিয়ে যাওয়ার পথ করে দিল।

Comments

The Daily Star  | English

How Lucky got so lucky!

Laila Kaniz Lucky is the upazila parishad chairman of Narsingdi’s Raipura and a retired teacher of a government college.

8h ago