খালেদ মাহমুদের ফোন পেয়েই বাংলাদেশের চাকরি নেন শ্রীরাম

দুবাইতে দলের প্রথম দিনের অনুশীলন শেষে কথা বলেন এই সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার।
sridharan sriram
সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন টেকনিক্যাল পরামর্শক শ্রীধরন শ্রীরাম

তামিল নাড়ু প্রিমিয়ার লিগের ধারাভাষ্য দিচ্ছিলেন শ্রীধরন শ্রীরাম, তখন হঠাৎ করে খালেদ মাহমুদ সুজনের ফোন। প্রস্তাব পান বাংলাদেশের কাজ করার। লোভনীয় প্রস্তাবে দ্রুতই রাজি হয়ে যান তিনি।

বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলের টেকনিক্যাল পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ পাওয়া শ্রীরাম দলের সঙ্গে এখন দুবাইতে। দায়িত্ব নিয়ে বাংলাদেশে আসার পর তার গণমাধ্যমের সামনে হাজির হওয়া হয়নি। দুবাইতে দলের প্রথম দিনের অনুশীলন শেষে কথা বলেন এই সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার।

শুরুতেই জানান কি প্রেক্ষাপটে চাকরিটা নিয়েছেন তিনি, 'আমি অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের চাকরিটা ছেড়ে টিএনপিএলে ধারাভাষ্যকার হিসেবে ছিলাম। ওই সময় খালেদ মাহমুদ সুজনের ফোন কল পাই। ওরা বাংলাদেশ দলের সঙ্গে কনসালটেন্ট হিসেবে যোগ দেয়ার ইচ্ছা দেখায়। আমিও সায় দেই এবং সব খুব দ্রুত হয়ে যায়।'

তার পদটা বেশ আলাদা। প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোকে সরিয়ে তাকে টি-টোয়েন্টিতে নিয়ে আসা হলেও দেয়া হয়নি প্রধান কোচের পদ। কেতাবি নাম টেকনিক্যাল পরামর্শক হলেও কাজটা শ্রীরামের প্রধান কোচেরই। তবে তিনি জানালেন অনেকটা সমন্বয়কের ভূমিকা পালন করবেন, 'আমার কাছে আমার দায়িত্বটা খুব পরিষ্কার। এখানে খুব ভাল স্কিল কোচ আছে, আমি ওদের কাজকে সম্পূর্ণ শ্রদ্ধা করি। আমার কাজ হল অধিনায়ক, কোচ ও টিম ডিরেক্টরের সঙ্গে এক হয়ে কাজ করা এবং এই তিন রিসোর্সগুলোর সঠিক সমন্বয় করা। এর সঙ্গে আমার টি-টোয়েন্টি অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগানো যা আমি অস্ট্রেলিয়া ও আইপিএলে পেয়েছি। সেসব এখানে এখানকার রিসোর্সের সঙ্গে সমন্বয় করা। আমি এখানে লিড করতে আসিনি।'

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh lacking in remittance earning compared to four South Asian countries

Remittance hits eight-month high

In February, migrants sent home $2.16 billion, up 39% year-on-year

1h ago