ক্যাচ ফেলা আর্শদিপকে ‘খালিস্তানি’ বলছে উইকি!

একেবারে লোপ্পা একটি ক্যাচ ফেলে দেন আর্শদিপ সিং। যা ধরতে পারলে হয়তো ফলাফল হতে পারতো ভিন্নও। হয়তোবা না। কিন্তু ভুলটা যখন পাকিস্তানের বিপক্ষে তখন সহজেই কি আর পার পাবেন এ তরুণ। তাকে ঘিরে চলছে নানা সমালোচনা। সামাজিকমাধ্যমে তো ব্যক্তিগত আক্রমণ করছেন অনেক ভারতীয় সমর্থক। এরমধ্যেই কেউ আবার তার উইকিপিডিয়ার পেজে দেশ ভারতের জায়গায় 'খালিস্তান' লিখে দিয়েছেন।

একেবারে লোপ্পা একটি ক্যাচ ফেলে দেন আর্শদিপ সিং। যা ধরতে পারলে হয়তো ফলাফল হতে পারতো ভিন্নও। হয়তোবা না। কিন্তু ভুলটা যখন পাকিস্তানের বিপক্ষে তখন সহজেই কি আর পার পাবেন এ তরুণ। তাকে ঘিরে চলছে নানা সমালোচনা। সামাজিকমাধ্যমে তো ব্যক্তিগত আক্রমণ করছেন অনেক ভারতীয় সমর্থক। এরমধ্যেই কেউ আবার তার উইকিপিডিয়ার পেজে দেশ ভারতের জায়গায় 'খালিস্তান' লিখে দিয়েছেন।

পাকিস্তানের ইনিংসের ১৮তম ওভারের ঘটনা এটা। পাকিস্তান তখন ৪ উইকেট হারিয়ে করেছে ১৫১ রান। শেষ ১৫ বলে চাই ৩১ রান। রবি বিশ্নইর করা তৃতীয় বলে শর্ট থার্ডম্যানে সহজ ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন পাকিস্তানি ব্যাটার আসিফ আলী। আগের ওভারেই মাঠে নামেন এ ব্যাটার। তখনও রানের খাতা খোলা হয়নি। কিন্তু ক্যাচটি ধরতে পারেননি আর্শদিপ। এরপর আসিফ ফিরলেও ৮ বলে ১৬ রান করে দলকে জয়ের প্রান্তে রেখে যান।

আর্শদিপের এই ক্যাচ মিসে তাই রীতিমতো উত্তাল সামাজিকমাধ্যম। তবে তার পাশে দাঁড়িয়েছেন অনেক সাবেক ও বর্তমান ক্রিকেট তারকারা। কিন্তু উইকিপিডিয়ার পেজ সম্পাদনা করায় উত্তেজনা ভিন্ন মাত্রা এনে দিয়েছে। মূলত আর্শদিপের উইকিপিডিয়া পেজে সম্পাদনা করে 'ভারত' শব্দের পরিবর্তে 'খালিস্তান' শব্দ বসিয়ে দিয়েছেন কেউ একজন।

উইকিপিডিয়া বিশ্বের সবচেয়ে বড় ওপেন সোর্স প্ল্যাটফর্ম। ভলান্টিয়াররাই প্রতিনিয়ত আপডেট করে থাকেন। চাইলে যে কেউই এই ভলান্টিয়ার হতে পারেন। বিষয়টি ভারতীয় সরকার খুবই গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে বলেই জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম। এই নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবছে আইটি মন্ত্রণালয়। সংবাদে আরও বলা হয়েছে, এরমধ্যেই প্রাথমিক ভাবে সংস্থার কর্তাদের তলব করা হয়েছে। পাকিস্তানকেই সন্দেহের তালিকায় রেখেছে তারা। 

অবশ্য পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ হারলে বিষয়টি স্বাভাবিকভাবে নিতে পারেন না কিছু ভারতীয় সমর্থক। নিজেদের ক্রিকেটারদের উপর তোপ দাগানো নতুন কিছুও তাদের জন্য। এইতো গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেই মোহাম্মদ শামিকে পাকিস্তানি বলে আখ্যা দিয়েছিলেন তারা। ৩.৫ ওভারে ৪৩ রান খরচ করায় এ পেসারকে কাঠগড়ায় তুলেছিল ভারতীয় সমর্থকরা।

Comments

The Daily Star  | English

The cost-of-living crisis prolongs for wage workers

The cost-of-living crisis in Bangladesh appears to have caused more trouble for daily workers as their wage growth has been lower than the inflation rate for more than two years.

1h ago