চ্যাম্পিয়ন হয়ে বন্যার্তদের মুখে হাসি ফেরাতে চান শাদাব

একদিকে পাকিস্তান ক্রিকেট দল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে এশিয়া কাপের ফাইনালে। অন্যদিকে দেশটির সাধারণ মানুষ লড়াই করছে ভয়াবহ বন্যার বিরুদ্ধে।
ছবি: এএফপি

একদিকে পাকিস্তান ক্রিকেট দল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে এশিয়া কাপের ফাইনালে। অন্যদিকে দেশটির সাধারণ মানুষ লড়াই করছে ভয়াবহ বন্যার বিরুদ্ধে। তাদের দুর্ভোগ স্পর্শ করেছে তারকা স্পিনিং অলরাউন্ডার শাদাব খানকে। আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়ে বন্যার্তদের মুখে হাসি ফেরানোর প্রত্যাশা জানিয়েছেন তিনি।

টি-টোয়েন্টি সংস্করণের এশিয়া কাপের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে পরস্পরকে মোকাবিলা করবে শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান। রোববার বাংলাদেশ সময় রাত আটটায় দুবাইতে শুরু হবে ম্যাচটি। এর আগে আসরের সুপার ফোরে মুখোমুখি হয়েছিল দুই দল। ফাইনালের সেই মহড়ায় একই ভেন্যুতে গত শুক্রবার বাবর আজমের নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান হেরে যায় ৫ উইকেটে।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) ওয়েবসাইটে প্রকাশিত কলামে শাদাব জানিয়েছন বন্যার্তদের জন্য কিছু করার ভাবনার কথা, 'অভূতপূর্ব এই দুর্যোগের কারণে দেশের এক-তৃতীয়াংশ এখন পানির নিচে তলিয়ে গেছে। আমরা এখন দেশে নেই। দূর থেকে দেশের মানুষের যন্ত্রণা দেখা আরও কষ্টকর। আমরা এই এশিয়া কাপটা জিতে দেশের বন্যা দুর্গত মানুষের মুখে হাসি ফিরিয়ে আনতে চাই।'

হার দিয়ে আসর শুরুর পরও ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে পাকিস্তান। একেক ম্যাচে তাদের একেক ক্রিকেটার রাখছেন গুরুত্বপূর্ণ অবদান। এ প্রসঙ্গে শাদাব বলেছেন, 'ভারতের কাছে আমরা গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচটা হেরে যাই। তারপরও আমাদের বিশ্বাস ছিল যে ঘুরে দাঁড়াতে পারব। আমরা ঘুরেও দাঁড়িয়েছি। হংকংয়ের বিপক্ষে মোহাম্মদ রিজ়ওয়ান দারুণ ব্যাটিং করে। বোলাররাও অসাধারণ খেলেছিল। এরপর ভারতের বিপক্ষে সুপার ফোরে জয় আসে মোহাম্মদ নওয়াজ়ের অলরাউন্ড পারফরম্যান্সের সুবাদে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে যদিও আমি ম্যাচসেরা নির্বাচিত হয়েছিলাম, শেষ ওভারে নাসিম শাহের ওই দুই ছক্কা ভোলার মতো নয়!'

দাসুন শানাকার নেতৃত্বে দুরন্ত ছন্দে থাকা লঙ্কানদের বিপক্ষে ফাইনাল নিয়ে শাদাব যোগ করেছেন, 'আমরা খুবই ভালো একটা দল। কিন্তু তখনই আমরা চ্যাম্পিয়ন দল হব, যখন এই এশিয়া কাপ ও পরের কয়েকটা গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ় জিতব। আমি আগেও বলেছি, চ্যাম্পিয়ন দলরা যেকোনো পরিস্থিতির চাপ সামলাতে পারে এবং গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে জয়ী হতে পারে। আর রোববারের ফাইনালে সেটাই আমাদের লক্ষ্য থাকবে।'

ফাইনালের আগে নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়ার ম্যাচটা ভালো যায়নি পাকিস্তানের। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৯.১ ওভারে ১২১ রানে অলআউট হয় তারা। জবাবে ১৮ বল বাকি থাকতে ৫ উইকেটে ১২৪ রান তুলে জয় নিশ্চিত করে লঙ্কানরা।

Comments