রাজাপাকসের ক্যাচ ছাড়া শাদাব পাকিস্তানের হারের দায় নিলেন

পাকিস্তান দলের অন্যতম সেরা ফিল্ডার বিবেচনা করা হয় শাদাবকে। কিন্তু শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে তিনিই করেন সবচেয়ে হতাশ।
ছবি: এএফপি

এশিয়া কাপের ফাইনালের সেরা হয়েছেন ভানুকা রাজাপাকসে। দ্রুত উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া শ্রীলঙ্কাকে ভালো সংগ্রহ দিতে দুর্দান্ত ব্যাটিং উপহার দেন তিনি। সেই পুঁজিই পরে শিরোপা জেতার জন্য যথেষ্ট হয়ে যায়। অপরাজিত থেকে যাওয়া রাজাপাকসেকে দুবার আউটের সুযোগ পেয়েছিল পাকিস্তান। তবে শাদাব খান গড়বড় করে ফেলায় বড় খেসারত দিতে হয় তাদের।

রোববার দুবাইতে পাকিস্তানকে ২৩ রানে হারিয়ে এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে লঙ্কানরা। টস হেরে আগে ব্যাট করে দাসুন শানাকার দল তোলে ৬ উইকেটে ১৭০ রান। এরপর দারুণ বোলিংয়ে প্রতিপক্ষকে তারা আটকে দেয় ১৪৭ রানে। আসরে এটি তাদের ষষ্ঠ শিরোপা।

পাঁচ নম্বরে নেমে শ্রীলঙ্কার হয়ে ৭১ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেন রাজাপাকসে। মাত্র ৪৫ বলের ইনিংসে তিনি মারেন ৬ চার ও ৩ ছক্কা। তিনি উইকেটে যখন যান, তখন ষষ্ঠ ওভারে ৩৬ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল দল। দ্রুত আরও ২ উইকেট পড়ে গেলে চাপ আরও বাড়ে। কিন্তু কেবল টিকে থাকার চিন্তা না করে পাল্টা আক্রমণে মনযোগী হন রাজাপাকসে ও ভানিন্দু হাসারাঙ্গা। ৩৬ বলে ৫৮ রানের জুটি গড়েন দুজনে। হাসারাঙ্গার বিদায়ের পর ব্যাট হাতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে আবির্ভূত হন রাজাপাকসে। চামিকা করুনারত্নেকে নিয়ে ৩১ বলে অবিচ্ছিন্ন ৫৪ রানের জুটি গড়েন।

রাজাপাকসে অবশ্য দুবার বেঁচে যান ক্যাচ তুলে। প্রথমবার ব্যক্তিগত ৪৬ রানে, পরেরবার ৫১ রানে। হারিস রউফের করা ১৮তম ওভারে লং-অনে বল হাতে জমাতে পারেননি শাদাব। উল্টো হয়ে যায় তিন রান। পরের ওভারে মোহাম্মদ হাসনাইনের ডেলিভারি মিড উইকেটে উড়িয়েছিলেন রাজাপাকসে। ক্যাচটি ছিল সেখানে থাকা আসিফ আলির। কিন্তু নিজেদের মধ্যে যোগাযোগের অসঙ্গতিতে তার বাঁ দিক থেকে ডাইভ দেন শাদাবও। দুজনের মধ্যে সংঘর্ষের ফলে ক্যাচ নেওয়া তো সম্ভবই হয়নি, বরং বল সীমানা পেরিয়ে স্কোরবোর্ডে যোগ হয় ছক্কা!

পাকিস্তান দলের অন্যতম সেরা ফিল্ডার বিবেচনা করা হয় লেগ স্পিনিং অলরাউন্ডার শাদাবকে। কিন্তু শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে তিনিই করেন সবচেয়ে হতাশ। পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ভক্ত-সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে তিনি লিখেছেন, 'ক্যাচ ম্যাচ জেতায়। দুঃখিত। আমি এই হারের জন্য দায় নিচ্ছি। আমি আমার দলকে ডুবিয়েছি।'

দুঃসময়ে সাবেক তারকা পেসার শোয়েব আখতারকে অবশ্য পাশে পেয়েছেন শাদাব, 'সে আমাদের সেরা ফিল্ডার। তার স্রেফ একটা বাজে দিন গেছে। তবে আমাদের দলের ক্যাচ নেওয়ার সময় সংকেত দেওয়া নিয়ে অবশ্যই কাজ করা উচিত।'

Comments

The Daily Star  | English

Pm’s India Visit: Dhaka eyes fresh loans from Delhi

India may offer Bangladesh fresh loans under a new framework, as implementation of the projects under the existing loan programme is proving difficult due to some strict loan conditions.

3h ago