এশিয়া কাপ ২০২৩

‘অর্ডিনারি শটে বাজে ব্যাটিং প্রদর্শনী’, বলছেন সাকিব

এমন উইকেটে এত অল্প রানে গুটিয়ে যাওয়াকে অধিনায়কের চোখে বাজে ব্যাটিং প্রদর্শনী।
Shakib Al Hasan

লাহোরের ব্যাটিং স্বর্গে কী বিশাল সুযোগ হাতছাড়া করেছেন বাংলাদেশের ব্যাটাররা, তা টের পাচ্ছেন সাকিব আল হাসান। এমন উইকেটে এত অল্প রানে গুটিয়ে যাওয়াকে অধিনায়কের চোখে বাজে ব্যাটিং প্রদর্শনী।

বুধবার এশিয়া কাপের সুপার ফোরের ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে ৭ উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ। আগে ব্যাটিং বেছে স্রেফ ১৯৩ রানে গুটিয়ে যায় লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। ওই রান তুলতে ৬৩ বল কম খেলতে হয়েছে পাকিস্তানকে।

ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশ আগ্রাসী শুরুর চেষ্টা করেও শুরুতেই তালগোল পাকায়। দ্বিতীয় ওভারে প্রথম বলেই ক্যাচ দিয়ে ফেরেন মেহেদী হাসান মিরাজ। জ্বর কাটিয়ে দলে ফিরে লিটন দাস ছিলেন আগ্রাসী মেজাজে।  ৪ বাউন্ডারিতে ১৬ রান করার পর শাহীন আফ্রিদির লাফিয়ে উঠা বলে উইকেটের পেছন ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন।

নাঈম শেখও ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বেরুতে পারেননি, পারেননি তাওহিদ হৃদয়ও। ৪৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। সাকিবের মতে এতেই অনেকটা পিছিয়ে যান তারা,  'আমরা শুরুতেই ধাক্কা খাই। তার খুব ভালো বল করেছে আর আমরা কিছু অর্ডিনারি শট খেলেছি। এরকম উইকেটে প্রথম ১০ ওভারে ৪ উইকেট হারানো উচিত ছিল না।'

৪৭ থেকে জুটি শতরানের জুটি বেধে দলকে টানছিলেন সাকিব-মুশফিক। কিন্তু ভুল সময়ে উচ্চবিলাসী শটে ফিফটি করা সাকিবের বিদায়ে আবার পথ হারায় বাংলাদেশ। এরপর উইকেট পড়তে থাকে দ্রুত। যখন পেছনে আর কোন ব্যাটার নেই তখন মুশফিকুর রহিম পরিস্থিতির বিপরীতে গিয়ে বাজে শটে দেন আত্মাহুতি, একই কাণ্ড করেন আফিফ হোসেন, শামীম হোসেনরাও।

সাকিব এসব আউটকে বলছেন বাজে ব্যাটিং প্রদর্শনী,  'আমরা একটা জুটি পেয়েছিলাম, সেই জুটি আরও ৭-৮ ওভার চালিয়ে নেওয়া দরকার ছিল। আমি আউট হওয়ার পর আর কোন জুটি হয়নি। এরকম উইকেটে খুব বাজে ব্যাটিং প্রদর্শনী ছিল।'

অল্প পুঁজি নিয়েও পেসাররা তাদের কাজটা করেছেন। তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম আর হাসান মাহমুদের প্রচেষ্টা বাহবা পেল সাকিবেরও, তবে ব্যাটিংয়ে ধারাবাহিকতার ঘাটতি বড় পোড়াচ্ছে সাকিবকে,  'আমাদের তিনজন পেসার দুর্দান্ত বল করেছে। আমরা বোলিংয়ে ধারাবাহিকভাবে ভালো করছি। এই মুহূর্ত ব্যাটিংটা উত্থান-পতনের মাঝে দিয়ে যাচ্ছে। আমাদের ব্যাটিংয়ে আরও ধারাবাহিক হতে হবে।'

Comments

The Daily Star  | English

Extreme heat sears the nation

The scorching heat continues to disrupt lives in different parts of the country, forcing the authorities to close down all schools and colleges till April 27.

2h ago