টেক্টরের পর টাকারের ঝলকে আয়ারল্যান্ডের লিড

বৃহস্পতিবার মিরপুরে একমাত্র টেস্টের তৃতীয় দিনে দুটি সেশনই নিজেদের করে নিল আয়ারল্যান্ড। প্রথম সেশনের মতো দ্বিতীয় সেশনেও পড়ল স্রেফ এক উইকেট। দ্বিতীয় সেশনে ২৭ ওভার খেলে ১ উইকেট হারিয়ে ১০৬ রান যোগ করেছে আইরিশরা। দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেটে ১৯৯ রান নিয়ে চা-বিরতিতে গেছে তারা। হাতে ৪ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশ থেকে এগিয়ে গেছে ৪৪ রানে।
Lorcan Tucker
ছবি: ফিরোজ আহমেদ/স্টার

আগের দিন যেভাবে খেলা শেষ হয়েছিল, তাতে তৃতীয় দিনের প্রথম সেশনেই ম্যাচ শেষের আভাস ছিল স্পষ্ট। কিন্তু হ্যারি টেক্টর, লোরকান টাকাররা ভেবেছিলেন ভিন্ন। চোয়ালবদ্ধ দৃঢ়তায় দুর্দান্ত প্রতিরোধ গড়ে নিজেদের সামর্থ্য দেখালেন তারা। তাতে টানা দুটি সেশন হতাশায় পুড়লেন বাংলাদেশের বোলাররা। 

বৃহস্পতিবার মিরপুরে একমাত্র টেস্টের তৃতীয় দিনে দুটি সেশনই নিজেদের করে নিল আয়ারল্যান্ড। প্রথম সেশনের মতো দ্বিতীয় সেশনেও পড়ল স্রেফ এক উইকেট। দ্বিতীয় সেশনে ২৭ ওভার খেলে ১ উইকেট হারিয়ে ১০৬ রান যোগ করেছে আইরিশরা। দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেটে ১৯৯ রান নিয়ে চা-বিরতিতে গেছে তারা। হাতে ৪ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশ থেকে এগিয়ে গেছে ৪৪ রানে।

টেক্টর ৫৬ করে আউট হয়ে গেলেও টাকার ১৩২ বলে ৮৯ রান করে ক্রিজে আছেন। তার সঙ্গে ৭ম উইকেটে ৭৬ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ২৭ রান নিয়ে ক্রিজে আছেন অ্যান্ডি ম্যাকব্রেইন।

৫ উইকেটে ৯৩ রান নিয়ে নেমে লাঞ্চের পরও সাবলীল খেলছিলেন টেক্টর-টাকার। প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও ফিফটি তুলে নেন টেক্টর। তাকে দেখাচ্ছিল বেশ স্বচ্ছন্দ। তবে এক সময় গিয়ে ধৈর্য্যুচ্যুতি হয় টেক্টরের। তাইজুলের বলে সুইপ করতে গিয়ে নিজের বিপদটা ডেকে আনেন তিনি। লাইন মিস করে পরাস্ত হয়ে পা লাগান, রিভিউ নিয়েও বাঁচতে পারেননি। ৭ চার, ১ ছক্কায় ১৫৯ বলে ৫৬ করে বিদায় নেন তিনি। তার আউটে ভাঙে টাকারের সঙ্গে ৬ষ্ঠ উইকেটে ১৪৫ বলে ৭২ রানের জুটি।

টেক্টরকে হারিয়ে অস্থির হননি টাকার। অ্যান্ডি ম্যাকব্রেইনকে নিয়ে আরেকটি প্রতিরোধের গল্প লেখেন তিনি। টিকে থাকার সঙ্গে এই দুজন রানের চাকাও রাখেন সচল।

টেস্ট ক্যারিয়ায়রে প্রথম ফিফটি পেতে কোন সমস্যা হয়নি টাকারের। স্পিনারদের ভালোভাবে সামলে ফেলে টাকারকে থামাতে পেসার এনেও লাভ হয়নি। বরং ইবাদত হোসেন, শরিফুল ইসলামদের বল তিনি খেলেছেন আরও অনায়াসে। বোলিংয়ে ৬ উইকেট নেওয়া ম্যাকব্রেইন ব্যাট হাতেও দেখান নিজের সামর্থ্য। দুজনের জুটিতে ইনিংস হার এড়িয়ে লিড নিয়ে নেয় তারা।

কিপার ব্যাটার টাকার খেলেছেন বেশ কিছু দৃষ্টিনন্দন শট। ইবাদত হোসেন, খালেদ আহমেদদের পুল করে বাউন্ডারিতে পাঠিয়েছেন। পায়ের কাজে জায়গা বের করে খেলেছেন। ম্যাকব্রেইনকেও দেখে গেছে জুতসই। মেহেদী হাসান মিরাজকে ছক্কায় উড়ানোর পর পেসারদেরও ঠিকমতো সামলে ছুটছেন তিনি। শেষ সেশনে তাদের প্রতিরোধ ভাঙতে দ্বিতীয় নতুন বল নিতে পারে বাংলাদেশ। চা-বিরতির ৪ ওভার পরই সেই সুযোগ পাবেন সাকিব। 

Comments

The Daily Star  | English
Trees are Dhaka’s saviours

Trees are Dhaka’s saviours

Things seem dire as people brace for the imminent fight against heat waves and air pollution.

7h ago