মেসির কাজ কঠিন করে দিতে চায় কানাডা

মেসিকে কীভাবে আটকাবেন তা জানালেন কানাডিয়ান কোচ

প্রথমবারের মতো কোপা আমেরিকার মঞ্চে আমন্ত্রণ পেয়েছে কানাডা। আর প্রথম আসরের অভিষেক ম্যাচেই দলটি মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ও বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনার। যেই দলে রয়েছেন তর্ক সাপেক্ষে সর্ব কালের সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি। তবে তাতে বিচলিত নয় তারা। মেসির কাজ কঠিন করে দিতে প্রত্যয়ী দলটি।

আটলান্টার মার্সিডিজ-বেঞ্চ স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় আগামীকাল শুক্রবার (২১ জুন) কোপা আমেরিকার 'এ' গ্রুপের ম্যাচে মুখোমুখি হবে কানাডা ও আর্জেন্টিনা। এই ম্যাচ দিয়ে শুরু হতে ২০২৪ সালের আসর।

ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে বৃহস্পতিবার কানাডার কোচ জেসি মার্শ বললেন, 'আমরা জানি যে এই ধরনের টুর্নামেন্টের জন্য আমাদের মানসিক এবং অনুশীলনে উন্নতি প্রয়োজন। আর্জেন্টিনা এবং তাদের খেলোয়াড়দের মানের প্রতি আমাদের অনেক শ্রদ্ধা রয়েছে। আমরা ব্যক্তিগতভাবে অনেক কিছু প্রস্তুত করেছি কারণ আমরা উন্নতি করতে এবং আমরা কতটা ভালো হতে পারি তা দেখানোর একটি সুযোগ হিসাবে দেখি।'

লিওনেল মেসিকে কীভাবে থামানো যায় জানতে চাওয়া হলে, ক্রমাগত তাকে অনুসরণ করার গুরুত্বের উপর জোর দিয়ে কোচ বললেন, 'এটি কেবল তার গুণমান এবং তার শ্রেণিবিন্যাসই নয়, মাঠে চলার ক্ষমতাও। সে কোথায় আছে সে সম্পর্কে আমাদের সর্বদা সচেতন থাকতে হবে এবং তার কাজ কঠিন করতে নিশ্চিত করতে হবে সে যেন খোলা জায়গা না পায়।'

এবার কানাডা দলের নেতৃত্বের দায়িত্ব থাকছে আলফোনসো ডেভিসের কাঁধে। অধিনায়ক হয়ে দারুণ খুশি বায়ার্ন মিউনিখ তারকা, 'তারা বিশ্বের সেরা দল। এটি একটি লড়াই হতে যাচ্ছে, তবে আমরা মানসিকভাবে শক্তিশালী। কানাডার অধিনায়ক হতে পেরে আমি গর্বিত। এটি এমন কিছু যা আমি ছোটবেলায় স্বপ্ন দেখেছিলাম।'

সম্প্রতি ফিফা ফ্রেন্ডলির শেষ উইন্ডোতে দুটি ম্যাচ খেলেছে কানাডা। ইউরো কাপের ডি গ্রুপের দুটি দল -নেদারল্যান্ডস এবং ফ্রান্সের বিপক্ষে। ডাচদের বিপক্ষে ০-৪ গোলে হারলেও ফরাসিদের ০-০ গোলে রুখে দিয়েছে তারা। আর এই দলদুটি ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে নিজেদের পরবর্তী ম্যাচেই মুখোমুখি হতে যাচ্ছে।

Comments

The Daily Star  | English

Quota protest: Students submit memorandum at Bangabhaban

A delegation of students and job seekers submitted to the president's official residence their memorandum containing the one-point demand for reform in the quota system

1h ago