ইংল্যান্ড-বাংলাদেশ সিরিজ ২০২৩

শুরুর ধাক্কা সামলে মুশফিক-শান্তর প্রতিরোধ

দলীয় ১৭ রানেই সাজঘরে ফেরেন দুই ওপেনার। তাতে আরও একবার বড় চাপে পড়ে বাংলাদেশ। তবে তৃতীয় উইকেটে প্রতিরোধ গড়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও উইকেটরক্ষক-ব্যাটার মুশফিকুর রহিম।
ফাইল ছবি

দলীয় ১৭ রানেই সাজঘরে ফিরলেন দুই ওপেনার। ফলে চলতি সিরিজে ব্যাটিংয়ের শুরুতে আরও একবার চাপে পড়ল বাংলাদেশ। তবে ধাক্কা সামলে তৃতীয় উইকেটে প্রতিরোধ গড়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও মুশফিকুর রহিম।

সোমবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমেছে বাংলাদেশ। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত, ২২ ওভারে ২ উইকেটে ১০১ রান করেছে তারা। তিনে নামা শান্ত ৬৫ বলে ৪৬ ও চারে নামা অভিজ্ঞ মুশফিক ৫৮ বলে ৪২ রানে উইকেটে আছেন।

হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর লক্ষ্যে বাংলাদেশের হাল ধরা দুই ব্যাটার শান্ত ও মুশফিক এখন পর্যন্ত ৮৪ রান যোগ করে অবিচ্ছিন্ন রয়েছেন। ৭৮ বলে পঞ্চাশ ছোঁয়া এই জুটিতে দুইজনই খেলছেন সমান তালে। উভয়েই এগিয়ে যাচ্ছেন ব্যক্তিগত ফিফটির দিকে।

ইনিংসের প্রথম তিন ওভারের মধ্যেই দুই ওপেনারকে হারায় টাইগাররা। প্রথম ওভারেই ফিরে যান রানখরায় থাকা লিটন দাস। ৩ বল খেলে এদিনও রানের খাতা খুলতে পারেননি। স্যাম কারানের আউট সুইং ডেলিভারি জায়গায় দাঁড়িয়ে খেলতে গিয়ে ইংল্যান্ড অধিনায়ক জস বাটলারের তালুবন্দি হন তিনি। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে কারানের বলেই গোল্ডেন ডাকে সাজঘরে ফিরেছিলেন তিনি।

আক্রমণে ফিরে তামিম ইকবালকে বিদায় করেন বাঁহাতি পেসার কারান। লেগ স্টাম্পে থাকা বলে ফ্লিক করেছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। তবে ব্যাটের কানায় লেগে চলে যায় পয়েন্টে। সহজ ক্যাচ ধরেন জেমস ভিন্স। ৬ বলে ১১ রান করেন তিনি। এরপর দলের হাল ধরেছেন শান্ত ও মুশফিক।

শেষ ওয়ানডেতে দুই দলই তাদের একাদশে পরিবর্তন এনেছে। বাংলাদেশ তাসকিন আহমেদকে বিশ্রাম দিয়ে নিয়েছে ইবাদত হোসেনকে। অন্যদিকে, তিনটি পরিবর্তন করেছে ইংলিশরা। চোটের কারণে চলতি সফরই শেষ হয়ে যাওয়া উইল জ্যাকসের পাশাপাশি জায়গা পাননি মার্ক উড ও সাকিব মাহমুদ। একাদশে ফিরেছেন জোফ্রা আর্চার ও ক্রিস ওকস। এছাড়া, অভিষেক ওয়ানডে খেলতে নেমেছেন বোলিং অলরাউন্ডার রেহান আহমেদ।

Comments