'রোনালদো শুধু নিজেকে নিয়েই ভাবে'

পেনাল্টি মিস করে ম্যাচের মাঝেই অঝোরে কেঁদেছেন রোনালদো

অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ম্যাচের তখনও ১৫ মিনিট বাকি। এ সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। এমনকি তাকে সামলানোর চেষ্টা করেও পারছিলেন না সতীর্থ ও কোচিং স্টাফরা। ম্যাচের এমন অবস্থায় রোনালদোর কান্নার ব্যাখ্যায় জার্মানির সাবেক ডিফেন্ডার দাইতমার হামান বললেন, 'সে শুধু নিজেকে নিয়েই ভাবে।'

মূলত অতিরিক্ত সময়ের মধ্য বিরতির কিছুক্ষণ আগে পেনাল্টি মিস করেন রোনালদো। যে কারণে অঝোরে কেঁদেছেন তিনি। সে সময় লক্ষ্যভেদ করতে পারলে হয়তো আগেই জিততে পারতো পর্তুগাল। যদিও তার মিসের পরও জিতেছে দলটি। টাই-ব্রেকারে দলকে জয় এনে দেন গোলরক্ষক দিয়াগো কস্তা।

তবে সব আলোচনা ওই রোনালদোর কান্না নিয়ে। ম্যাচের মাঝেই তার ভেঙে পড়াকে অপেশাদার আচরণ বলে তোপ দাগিয়েছেন অনেকে। এ নিয়ে সামাজিকমাধ্যমে অনেকেই ট্রল করছেন। চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। হামান তো এক প্রকার 'স্বার্থপর'ই বলেছেন রোনালদোকে।

জার্মান সংবাদমাধ্যম আরটিইর সঙ্গে আলোচনাকালে হামান বলেন, 'তাকে (রোনালদো) কৃতিত্ব দিতে হয়, সে প্রথম পেনাল্টিটি নিয়েছে এবং সে এটি ভালোভাবেই নিয়েছে। এটি একটি খুব ভালো পেনাল্টি ছিল। কিন্তু আমি যেমন বলেছি যে 'রোনালদো দলের খেলোয়াড়ে পরিণত হয়েছে', এটা একেবারেই বাজে কথা। সে শুধু নিজেকে নিয়েই ভাবে।'

'আমার মনে হয় সে কালই দেখিয়েছে সে আসলে কি? যখন সে পেনাল্টি মিস করে অতিরিক্ত সময়ের বিরতিতে কান্না শুরু করে দেয় এবং আমার মনে হয়েছে: 'এই সবকিছুই তার সম্পর্কে। ২৬ জন খেলোয়াড়ের একটি স্কোয়াড আছে, ২০ জন স্টাফ আছে, সেখানে ৩০ থেকে ৪০ হাজার ভক্ত আছে, এটি আপনার সম্পর্কে নয়। আপনি নিরপেক্ষ থাকার চেষ্টা করুন। কিন্তু আমি স্লোভেনিয়াকে উল্লাস করার সুযোগ দিয়েছিলাম কারণ আমি প্রতিক্রিয়াটি বিব্রতকর ছিল, আমি ভেবেছিলাম এটি শেষ হয়ে গেছে,' যোগ করেন এই সাবেক জার্মান মিডফিল্ডার।

ম্যাচের ওই সময়ে রোনালদোকে বদলি করা প্রয়োজন ছিল বলেও মনে করেন তিনি, 'আমি আমার জীবনে এর মতো কিছু দেখিনি, কারণ আপনি একবার আবেগ দেখালে, একবার আপনি আবেগপ্রবণ হয়ে গেলে, এটা শেষ হয়ে যায়। তাই ম্যানেজারকে বলা উঠিত ছিল, 'আপনাকে চলে যেতে হবে কারণ আপনি ম্যাচ চালিয়ে যাওয়ার জন্য মনের সঠিক ফ্রেমে নেই।'

ম্যাচে পেনাল্টি থেকে গোল করতে না পারলেও টাই-ব্রেকারে ঠিকই লক্ষ্যভেদ করেছেন রোনালদো। তখন কোনো ধরণের উল্লাস না করে করজোড়ে সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। তার ক্ষমা চাওয়াকেও ভালোভাবে নেননি হামান, 'সে (টাই-ব্রেকারে) পেনাল্টিতে গোল করেছে এবং ভক্তদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে, তার ক্ষমা চাওয়ার দরকার নেই। সে পরের খেলা শুরু করবে কিন্তু আমি ফ্রান্সের জয় ছাড়া অন্য কোনো ফলাফল দেখতে পাচ্ছি না।'

Comments

The Daily Star  | English

PM's comment ignites protests across campuses

Hundreds of students from several public universities, including Dhaka University, took to the streets around midnight to protest what they said was a "disparaging comment" by Prime Minister Sheikh Hasina earlier in the evening

14m ago