আমরা ব্যর্থ হয়েছি, এটা বলতেই হবে: এমবাপে

এবার ইউরোতে অন্যতম ফেভারিট হয়ে এসেছিলো ২০১৮ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। স্কোয়াডের গভীরতাও ছিলেন অনেক। তবে ফ্রান্স খেলতে পারেনি চেনা ছন্দে।
Kylian Mbappe

ইউরো কাপে ফ্রান্স সর্বশেষ শিরোপা জিতেছিলো ২৪ বছর আগে। দীর্ঘ খরা কাটিয়ে এবার শিরোপা জয়ের আনন্দে ভাসতে চেয়েছিল তারা। আশায় ছিলেন দলের সেরা তারকা কিলিয়ান এমবাপেও। তবে সেমিফাইনালে স্পেনের কাছে হেরে যাত্রা থেমে যাওয়ার পর নিজেদের ব্যর্থতা মেনে নিচ্ছেন এই তারকা।

মঙ্গলবার রাতে ইউরোর সেমিফাইনালে স্পেনের কাছে ২-১ গোলে হেরে যায় ফ্রান্স। এতে দীর্ঘ হচ্ছে ফ্রান্সের অপেক্ষা।

এবার ইউরোতে অন্যতম ফেভারিট হয়ে এসেছিলো ২০১৮ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। স্কোয়াডের গভীরতাও ছিলেন অনেক। তবে ফ্রান্স খেলতে পারেনি চেনা ছন্দে। সেমিফাইনালের আগে ওপেন প্লেতে কোন গোলই করেনি তারা। কখনো আত্মঘাতী, কখনো টাইব্রেকারে ভর করে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে সেমিতে উঠে দিদিয়ের দেশমের দল।

সেমিতে এসেই অবশ্য গোল পেয়ে গিয়েছিলো ফ্রান্স। ৮ মিনিটে দলকে এগিয়ে নিয়েছিলেন কুলু মুয়ানি। তবে লামিন ইয়াহাল ও ওলমোর গোলে তাদেরকে দাপট দেখিয়ে জয় তুলে নেয় স্পেন।

ইউরোর প্রথম ম্যাচে নাকে আঘাত পান এমবাপে। এক ম্যাচ খেলতে পারেননি সেজন্য। পরে মাস্ক পরে ফিরলেও তিনিও তার সামর্থ্যের কাছাকাছি ছিলেন না। হারের পর গণমাধ্যমকে এই তারকা ব্যর্থতা স্বীকার করে নেন,  'আমার জন্য টুর্নামেন্ট খুবই কঠিন ছিলো। ব্যর্থই বলতে হবে। আমাদের লক্ষ্য ছিলো ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন হওয়ার, আমার নিজেরও আশা ছিলো তেমন। আমরা পারিনি, কাজেই ব্যর্থ হয়েছি।'

লম্বা ফুটবল মৌসুমের পর আপাতত কদিনের বিরতি। এরপর এমবাপের ক্যারিয়ারের নতুন যাত্রা শুরু হবে। ইউরোর আগেই পিএসজি ছেড়ে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিয়েছেন তিনি। রিয়ালের হয়ে মাঠে ফেরার আগে আপাতত ছুটি কাটাবেন বিশ্বের অন্যতম সেরা ফরোয়ার্ড,  'এটাই ফুটবল। আমাদের সামনে এগুতে হবে। মৌসুমটা অনেক লম্বা ছিলো। এখন ছুটিতে যাচ্ছি, কিছুদিন বিশ্রাম নিতে চাই। এটা আমাকে সাহায্য করবে। শক্তিশালী হয়ে ফিরতে চাইব আগামীতে।'

Comments