জাল নথিতে বাছাই-পর্ব খেলা সেই ক্যাসটিও নেই ইকুয়েডরের বিশ্বকাপ দলে

তার জন্মস্থান নিয়ে ভুল তথ্য দেওয়া নিয়ে অনেক বিতর্ক হয়েছে। চিলিতো ফিফার দরবারে ইকুয়েডরকেই বিশ্বকাপ থেকে নিষিদ্ধ করার আবেদনও করেছিল। তবে শাস্তি পেলেও শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ খেলছে ইকুয়েডর। এবার সেই বায়রন ক্যাসটিওকে বাদ দিয়েই বিশ্বকাপ ঘোষণা করেছে দলটি।

তার জন্মস্থান নিয়ে ভুল তথ্য দেওয়া নিয়ে অনেক বিতর্ক হয়েছে। চিলিতো ফিফার দরবারে ইকুয়েডরকেই বিশ্বকাপ থেকে নিষিদ্ধ করার আবেদনও করেছিল। তবে শাস্তি পেলেও শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ খেলছে ইকুয়েডর। এবার সেই বায়রন ক্যাসটিওকে বাদ দিয়েই বিশ্বকাপ ঘোষণা করেছে দলটি।

সোমবার স্কোয়াড ঘোষণার জন্য ফিফার বেঁধে দেওয়া শেষ দিনে দল দিয়েছে ইকুয়েডর। সেখানে জন্মস্থান নিয়ে ভুল তথ্য দেওয়া ক্যাসটিকেও বাদ দিয়েই ঘোষণা করে তাদের স্কোয়াড। আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালতের দেয়া বৈধতার পরও ২৬ সদস্যের দলে তাই তাকে রাখেননি কোচ গুস্তাভো আলফারো।

মূলত ক্যাসটিওর ইকুয়েডরের হয়ে খেলার বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তোলে চিলি। তারা দাবি করে ২৪ বছর বয়সী ফুলব্যাকের অফিসিয়াল নথিতে উল্লেখ করা জন্মস্থান সঠিক নয়। ইকুয়েডরের শহর জেনারেল ভিয়ামিল প্লায়াসে না জন্মে কলম্বিয়ার তুমাকো শহরে জন্মগ্রহণ করেছেন ক্যাসটিও, এমন অভিযোগ তোলে চিলি।

সেপ্টেম্বরে চিলির আপিল খারিজ করে দেয় ফিফা। তবে ক্রীড়া আদালত জানায় ক্যাসটিওর ভূয়া ডকুমেন্ট ব্যবহার করে ফিফা ডিসিপ্লিনারি কোডের ২১ নং ধারা ভঙ্গ করেছে ইকুয়েডরিয়ান ফুটবল ফেডারেশন। শাস্তিসরূপ কেটে নেওয়া হয় ইকুয়েডরের বাছাইপর্বের মূল্যবান তিন পয়েন্ট। সঙ্গে তাদের গুনতে হয় এক লক্ষ সুইস ফ্রাঁ জরিমানাও।

বিশ্বকাপে গ্রুপ এ তে লড়বে লা ত্রিরা। সেখানে তাদের প্রতিপক্ষ কাতার, সেনেগাল ও নেদারল্যান্ডস। ২০ নভেম্বর আসর শুরুর দিনেই ইকুয়েডর মুখোমুখি হবে স্বাগতিক কাতারের।

ইকুয়েডরের বিশ্বকাপ স্কোয়াড

গোলরক্ষক: আলেক্সান্ডার ডমিনগুয়েজ (কুইতো লিগ), হার্নান গালিন্দেজ (অকাস), মোয়েসেস রামিরেজ (ইন্ডিপেনডিয়েন্টে দেল ভ্যালে);

ডিফেন্ডার: পারভিস এস্তুপিনান (ব্রাইটন), অ্যাঞ্জেলো প্রিসিয়াডো (জেন্ট), পিয়েরো হিনকাপি (লেভারকুসেন), জেভিয়ের আরেগা (সিয়াতল সাউন্দারস), দিয়েগো প্যালাসিওস (লস অ্যাঞ্জেলেস), জ্যাকসন পোরোজো (ট্রয়েস), রবার্ত আরবোলেদা (সাও পাওলো), ফেলিক্স তরেস (সান্তোস লেগুনা), উইলিয়াম পাচো (রয়্যাল এন্তওয়ার্প);

মিডফিল্ডার: ময়েসেস ক্যাসেদো (ব্রাইটন), হোসে সিফুয়েন্তেস (লস অ্যাঞ্জেলেস), অ্যালান ফ্রাঙ্কো (তালেরেস), জেগসন মেন্দেজ (লস অ্যাঞ্জেলেস), কার্লোস গ্রুয়েজো (অগসবার্গ), গনসালো প্লাতা (ভায়াদলিদ), আনহেল মেনা (লিওঁ), আইরতন প্রেসিয়াদো (সান্তোস লেগুনা), রোমারিও ইবাররা (পাচুকা), জেরেমি সারমিয়েন্তো (ব্রাইটন)

ফরোয়ার্ড: এনার ভ্যালেন্সিয়া (ফেনারবাক), মাইকেল এস্ত্রাদা (ক্রুজ আজুল), জোর্কেফ রেসকো (নিওয়েলস ওল্ড বয়েজ), কেভিন রদ্রিগেজ (ইম্বাবুরা এসসি)।

Comments

The Daily Star  | English
Road crash deaths during Eid rush 21.1% lower than last year

Road Safety: Maladies every step of the way

The entire road transport sector has long been plagued by multifaceted problems, which are worsening every day amid sheer apathy from the authorities responsible for ensuring road safety.

3h ago