ব্রাজিল-পর্তুগালের ‘স্বপ্নের ফাইনাল’ চান রোনালদো

পর্তুগাল অধিনায়ক  ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো আশায় আছেন এই দুই দলের ফাইনাল। এরকমটা হলে তা তার কাছে হবে স্বপ্নের মতো ব্যাপার।
Cristiano Ronaldo
ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। ফাইল ছবি

খেলার ধরণ ও ভাষাগত কারণে ব্রাজিল-পর্তুগালের মধ্যে অনেক মিল। ফুটবল রোমান্টিকরা পর্তুগালকে 'ইউরোপের ব্রাজিল' নামেও ডাকেন। পর্তুগাল অধিনায়ক  ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো আশায় আছেন এই দুই দলের ফাইনাল। এরকমটা হলে তা তার কাছে হবে স্বপ্নের মতো ব্যাপার।

বয়স পেরিয়েছে ৩৭। নিজের পঞ্চম এই বিশ্বকাপটাই হতে যাচ্ছে রোনালদোর শেষ। পর্তুগালকে নিয়ে তাই শেষটা রাঙাতে মরিয়া হয়ে আছেন তিনি। স্পোর্টস গণমাধ্যম লাইভস্কোরের সঙ্গে আলাপে পাঁচবারের ব্যালন ডি'অর জয়ী তারকা বিশ্বকাপ ফাইনালে ব্রাজিল-পর্তুগালকে চেয়েছেন। রিয়াল মাদ্রিদ ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে তার ব্রাজিলিয়ান সতীর্থ কাসেমিরোর সঙ্গে এমনটাই নাকি আলাপ করেছেন তিনি, 'আমি আশা করছি (ব্রাজিল-পর্তুগাল ফাইনাল)। আমি কাসেমিরোর সঙ্গে মজা করছিলাম যে ব্রাজিল-পর্তুগালের ফাইনাল হতে পারে। সত্যি করে বললে এটা স্বপ্নের মতো হবে।'

এমন স্বপ্ন যে সহজে পূরণ হওয়ার নয় তা ঠিকই জানেন এই তারকা। গ্রুপ পর্ব থেকেই কঠিন লড়াইয়ে পড়তে হবে তাদের। বিশ্বকাপে ব্রাজিল আছে 'জি' গ্রুপে। পর্তুগাল 'এইচ' গ্রুপে, যেখানে প্রতিপক্ষ হিসেবে তারা পাচ্ছে লাতিন পরাশক্তি উরুগুয়ে, আফ্রিকার ঘানা ও এশিয়ার দক্ষিণ কোরিয়া। দ্বিতীয় রাউন্ডে দুই গ্রুপের মধ্যেই পড়বে লড়াই। পর্তুগাল ও ব্রাজিল যদি নিজ নিজ গ্রুপে সেরা হয় তবে দ্বিতীয় রাউন্ডে নিজেদের এড়াতে পারবে তারা। কিন্তু কোন এক দল দ্বিতীয় হলেই ফাইনালের বদলে দ্বিতীয় রাউন্ডে দেখা হয়ে যেতে পারে তাদের। বাস্তবতার সব দিকটা ভেবেই স্বপ্ন দেখছেন রোনালদো,  'বিশ্বকাপ দুনিয়ার সবচেয়ে কঠিন লড়াই। আমি স্বপ্ন বুনছি। এটা কঠিন (কাপ জেতা)। কিন্তু স্বপ্ন দেখতে কোন বাধা নেই, স্বপ্ন সব সময় থাকছে।'

'আমার ব্যক্তিগত মত হচ্ছে লড়াই করা, মাঠে থাকা। আমার মনে হয় এটা সব সময়ের সেরা বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে।'

কাতারে বিশ্বকাপ হওয়ায় ফুটবল মৌসুমেও গোলমাল লেগেছে। সাধারণ বিশ্বকাপ হয় জুন-জুলাই মাসে। এবার মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির গরমের কথা মাথায় নিয়ে খেলা হচ্ছে নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসে। তবু গরমের সমস্যা কিছুটা থাকবেই। তবে সময় ও আবহাওয়ার এসব প্রতিবন্ধকতাকে সমস্যা নয়, চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছে এই তারকা,  'আমার জন্য আবহাওয়া কোন ইস্যু না। আমরা প্রস্তুত আছি। পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড় হিসেবে আমরা সব ধরনের পরিবেশে খেলার সামর্থ্য রাখি।'

'অনুভূতি খুব ভালো। বছরের শেষ দিকে এরকম একটি প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারা মজার হবে। ভিন্ন রকম চ্যালেঞ্জ থাকবে। আমার পঞ্চম বিশ্বকাপ তাই আমি রোমাঞ্চিত থাকব।'

২৪ নভেম্বর ঘানার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে পর্তুগালের বিশ্বকাপ।

Comments

The Daily Star  | English

Schools to remain shut till April 27 due to heatwave

The government has decided to keep all schools shut from April 21 to 27 due to heatwave sweeping over the country

2h ago