আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩

'একত্রে এখনও নিখুঁত খেলতে পারেনি পাকিস্তান'

সব বিভাগে সম্মিলিতভাবে নিখুঁত না খেলতে পারাকে দায় দিয়েছেন পাকিস্তানের টিম ডিরেক্টর মিকি আর্থার।

'একত্রে এখনও নিখুঁত খেলতে পারেনি পাকিস্তান'

সব বিভাগে সম্মিলিতভাবে নিখুঁত না খেলতে পারাকে দায় দিয়েছেন পাকিস্তানের টিম ডিরেক্টর মিকি আর্থার।
স্লো ওভার রেটের জন্য পাকিস্তানকে জরিমানা

দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হেরে বিশ্বকাপে টানা চতুর্থ পরাজয়ে বরণ করল পাকিস্তান। তাতে সেমি-ফাইনালে খেলার স্বপ্ন এখন প্রায় মৃত। দলের এমন বেহাল অবস্থায় চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। তবে এই অবস্থার জন্য খেলোয়াড়দের সব বিভাগে একত্রে জ্বলে উঠতে না পারাকে দায় দিয়েছেন পাকিস্তানের টিম ডিরেক্টর মিকি আর্থার।

বৃহস্পতিবার চেন্নাইতে বোলারদের সুবাদে লড়াইটা বেশ জমিয়ে করেছিল পাকিস্তান। রোমাঞ্চকর লড়াই শেষে অবশ্য হতাশই হতে হয় তাদের। এক উইকেটের জয় ছিনিয়ে নেয় প্রোটিয়ারা। অথচ শেষ চারটি ম্যাচে জয়ের প্রত্যয় নিয়ে মাঠে নেমেছিলেন বাবর আজমরা। কারণ সেমির স্বপ্ন জোরালো রাখতে জিততেই হতো তাদের। কিন্তু এই ধাক্কায় কাজটা বেশ কঠিন হয়ে গেল তাদের জন্য।

এমএ চিদাম্বরম স্টেডিয়ামের উইকেট আগের দিন ব্যাটারদের জন্য স্বর্গই ছিল বলা চলে। এক সময় মনে হয়েছিল তিনশর বেশিই পুঁজি গড়তে যাচ্ছে পাকিস্তান। কিন্তু ব্যাটারদের দায়িত্বশীলতার অভাবে ২৭০ রানের বেশি করতে পারেনি তারা। মাঝারী পুঁজি নিয়ে এরপর বোলারদের লড়াইয়ে জয়ের খুব কাছেই ছিল তারা। ভালো সহায়তা করেছেন ফিল্ডাররাও। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি।

এর আগে আফগানদের বিপক্ষে ছিল উল্টো চিত্র। সেদিন ব্যাটাররা মোটামুটি ভালো খেলেছিলেন। কিন্তু বোলিং এবং ফিল্ডিং ছিল যাচ্ছেতাই। পুরো আসরে এখনও তিন বিভাগে একত্রে জ্বলে উঠতে পারেনি দলটি। ব্যাটারদের দায়ই ছিল সবচেয়ে বেশি। যে দুটি জয় পেয়েছেন সেখানেও নির্দিষ্ট কোনো বিভাগে আঙুল তোলাই যায়। আর্থার তুলে ধরেছেন সেই বিষয়টিই।

'দেখুন, নির্মম সত্যি হচ্ছে, আমরা এখনও নিখুঁত খেলা একত্রে খেলতে পারিনি। আমি মনে করি না যে আমরা এখনও ইউনিট হিসাবে যথেষ্ট ভালো ব্যাটিং করেছি। আমার মনে হয় এই পিচ, অবশ্যই সেই পিচে ৩০০ রান হওয়া উচিত। আমরা পর্যাপ্ত রান সংগ্রহ করতে পারিনি,' বলেছেন আর্থার।

'এবং তারপরে আমরা এর সঙ্গে যায় এমন একটি বোলিং পারফরম্যান্স একসঙ্গে রাখতে পারিনি। আজ রাতে আমার মনে হয় আমাদের আসরে সেরা বোলিং পারফরম্যান্স হয়েছে। আমরা সত্যিই ভালো বোলিং করেছি, তবে আমার এখনও মনে হয় যে আমাদের রানের দিক থেকে আমরা নিচে ছিলাম,' যোগ করেন তিনি।

তবে এই অবস্থার জন্য খেলোয়াড়দের নিবেদনে কোনো ঘাটতি দেখছেন না আর্থার। পর্যাপ্ত ইনফর্ম খেলোয়াড়ের অভাবেই এমনটা হয়েছে বলে মনে করেন তিনি, 'এটা চেষ্টার অভাবের কারণে হয়নি, আমরা এই মুহূর্তে যথেষ্ট ফর্মে থাকা খেলোয়াড় পাইনি, বিশেষ করে ব্যাট হাতে।'

প্রোটিয়াদের কাছে হারায় বিশ্বকাপ থেকে কার্যত বিদায় নিয়েছে পাকিস্তান। অনেক জটিল সমীকরণে টিকে আছে আশা। যা বেশ কঠিনই। তবে আসরের শেষ তিন ম্যাচে বাংলাদেশ, নিউজিল্যান্ড এবং ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় নিয়ে ফেরাই এখন তাদের লক্ষ্য বলে জানান আর্থার।

Comments

The Daily Star  | English

Create right conditions for Rohingya repatriation: G7

Foreign ministers from the Group of Seven (G7) countries have stressed the need to create conditions for the voluntary, safe, dignified, and sustainable return of all Rohingya refugees and displaced persons to Myanmar

7h ago