ক্রপ সেন্সর নাকি ফুল ফ্রেম ক্যামেরা, কোনটি কিনবেন

ক্রপ সেন্সর নাকি ফুল ফ্রেম? নতুন ক্যামেরা কেনার আগে নেওয়া সবচেয়ে গুরত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তগুলোর মধ্যে একটি। তবে আসলেই কি ক্রপ সেন্সর লেন্স এবং ফুল ফ্রেম লেন্সের মধ্যে কোনো পার্থক্য আছে? চলুন জেনে নেওয়া যাক। 
ছবি: ম্যাক্সফস্টার

ক্রপ সেন্সর নাকি ফুল ফ্রেম? নতুন ক্যামেরা কেনার আগে নেওয়া সবচেয়ে গুরত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তগুলোর মধ্যে একটি। তবে আসলেই কি ক্রপ সেন্সর লেন্স এবং ফুল ফ্রেম লেন্সের মধ্যে কোনো পার্থক্য আছে? চলুন জেনে নেওয়া যাক। 

সেন্সর 

সেন্সরের কাজ হলো ক্যামেরার মধ্যে প্রবেশ করা আলোকে রেকর্ড করা এবং সে অনুযায়ী ইমেজ তৈরি করা। সেন্সরের আকার যত বড় হবে তত বেশি আলো প্রবেশ করবে এবং ছবিকে আরও স্পষ্ট করে তুলবে। 

তবে আকারে বড় হলেই কি সেন্সর ভালো হয়? ক্রপ সেন্সর এবং ফুল ফ্রেম লেন্সের মধ্যে একজন ফটোগ্রাফার কোনটিকে বেছে নেবে? আকারে নয় বরং তা নির্ভর করে কোনো ধরনের ফটোগ্রাফিতে কী লেন্স ব্যবহার করা হচ্ছে। 

ক্রপ সেন্সর ও ফুল ফ্রেম ক্যামেরার মধ্যে পার্থক্য। ছবি: সংগৃহীত

যেমন, স্ট্রিট ফটোগ্রাফিতে সবচেয়ে ভালো ফলাফলের জন্য এক ধরনের লেন্স, আবার রাতে ছবি তোলার জন্য আরেক ধরনের লেন্স ব্যবহার করাই শ্রেয়।

 
ক্রপ সেন্সর এবং ফুলফ্রেম লেন্সের মধ্যে পার্থক্যগুলো কী?

'ক্রপ' এবং 'ফুলফ্রেম' বলতে আসলে সাইজকে বোঝানো হয়। কোনো লেন্সের সেন্সরের আকার আসলে কিরকম তা বোঝা যায় নামের মাধ্যমে। ফুলফ্রেম সেন্সরের আকার ৩৫ মিলিমিটার (২৪ মিলিমিটার X ৩৬ মিলিমিটার)-এই সাইজটিকে একটি আদর্শ ক্যামেরা সেন্সর সাইজ হিসেবে ধরা হয়। 

আর ক্রপ সেন্সর বলতে ক্রপ করা ফ্রেম বোঝানো হয়। এই সেন্সরে ফুলফ্রেম থেকে ছোট এবং জুম ইন করা ফ্রেম পাওয়া যায়। ফলে ছবির শক্ত ফিল্ড অব ভিউ পাওয়া যায়। একদিক থেকে বলতে গেলে ফুল ফ্রেমে যে কোয়ালিটির ছবি পাওয়া যেত, ক্রপ সেন্সরে একই কোয়ালিটির ছবি পাওয়া যাবে। তবে ফ্রেমটি হবে আরও জুম করা। ক্রপ সেন্সরের কোনো বাধা ধরা সাইজ নেই। ক্যামেরার ব্র্যান্ডগুলো নিজেদের মতো করে আলাদা আলাদা সাইজের ক্রপ সেন্সর বাজারে ছাড়ে।

তবে ফুল ফ্রেম সাইজে বড় হওয়ায় বেশি ছবিতে বেশি স্পষ্টতা পাওয়া যায়। ফলে প্রফেশনাল ফটোগ্রাফারদের মাঝে ফুলফ্রেমের জনপ্রিয়তা বেশি, আর এ কারণে ফুলফ্রেম লেন্স ক্যামেরাগুলোর দামও বেশি। 

অপরদিকে ক্রপ সেন্সরের সাইজ ছোট বলে তুলনামূলক দামও কম এবং সাধারণ ব্যবহারকারীদের কাছে তা বেশি জনপ্রিয়। 

ছবি: সংগৃহীত

ক্রপ সেন্সর

ফুল ফ্রেমের চেয়ে সাইজে ছোট কোনো লেন্সের ক্যামেরাকেই ক্রপ সেন্সর বলা হবে। অর্থাৎ যে ফ্রেমের সাইজ ৩৫ মিলিমিটার থেকে ছোট সেগুলোই ক্রপ সেন্সর। 

ক্রপ সেন্সরের প্রকারভেদ
 
সবচেয়ে সাধারণ দুটি ক্রপ সেন্সর হলো এপিএস-সি সেন্সর এবং মাইক্রো ফোর থার্ডস সেন্সর। মাইক্রো ফোর থার্ডস সেন্সরগুলো টু-এক্স এর একটি স্ট্যান্ডার্ড ক্রপ ফ্যাক্টর ব্যবহার করে এবং এপিএস-সি সেন্সরের ক্রপ ফ্যাক্টরগুলো ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে পরিবর্তিত হয়-

  • ক্যামেরার ব্রান্ড                     ক্রপ সেন্সর                             ক্রপ ফ্যাক্টর 
  • Canon                                 APS-C                                          1.6x
  • Nikon                                  APS-C                                          1.5x
  • Sony                                   APS-C                                          1.5x
  • Panasonic                          Micro Four Thirds                          2x
  • Olympus                             Micro Four Thirds                          2x
ছবি: ফটোগ্রাফি লাইফ

ক্রপ সেন্সর না ফুলফ্রেম কোনটি কিনবেন
 
ফটোগ্রাফির বেশ কিছু বিষয় নির্ধারণ করে দেয় কোন লেন্স কোন ধরনের ফটোগ্রাফির জন্য উপযোগী। যেমন, 

ডায়নামিক রেঞ্জ
 
ফুলফ্রেম ক্যামেরায় ডায়নামিক রেঞ্জ বেশি পাওয়া যায়, ফলে বেশি কন্ট্রাস্টসহ ছবি পাওয়া সম্ভব। এ ছাড়া আরও একটি সুবিধা হলো ছবি যদি বেশি আন্ডারএক্সপোজ অথবা ওভার এক্সপোজড হয়ে যায় তখন ফুলফ্রেম ক্যামেরার স্পষ্ট ছবির কারণে তা এডিট করা সহজ হয়।

কম আলোতে কারসাজি
 
আগেই আলোচনা করা হয়েছে ফুলফ্রেমের ক্যামেরায় সেন্সরের সাইজ বড় হওয়ায় বেশি আলো প্রবেশ করতে পারে। ফলে আলো কম থাকলেও স্পষ্ট ছবি তোলা যায়। এমনিতেই অধিক উজ্জ্বলতার ছবি পাওয়া যায়, ফলে আই এস ও নিয়ে কারসাজির ও দরকার নেই এবং ছবিতে অযথা নয়েজের দেখাও কম মেলে। 

ডেপথ অব ফিল্ড
 
ফুল ফ্রেম ক্যামেরা দিয়ে মসৃণ ডেপথ অব ফিল্ডসহ ছবি পাওয়া সম্ভব। এতে ব্যাকগ্রাউন্ডে অসাধারণ বুকেহ পাওয়া  যায় যা প্রোট্রেট ফটোগ্রাফির জন্য বেশ গুরত্বপূর্ণ। 

ছবি: সংগৃহীত

ফিল্ড অব ভিউ

এতক্ষণ তো ফুলফ্রেমের গুণগান গাওয়া হলো। তবে এবার আসা যাক ক্রপ সেন্সরের সুবিধায়। ফুলফ্রেমের আকার বড় হওয়ার কারণে ফ্রেমেরের প্রস্থও বড় হয় যা বিস্তৃত ছবি তোলার জন্য বেশ উপকারি। তবে দূর থেকে ছবির স্পষ্টতা চাইলে ক্রপ সেন্সর এগিয়ে থাকবে। টাইট ফ্রেমে ক্রপ সেন্সরের পারফর্মেন্স (কর্মদক্ষতা) সবচেয়ে ভালো। তাই ওয়াইল্ড লাইফ বা স্পোর্টস ফটোগ্রাফিতে ক্রপ সেন্সরের ব্যবহার বেশি। তাই দূর থেকে ছোট কোনো সাবজেক্টের স্পষ্ট ছবি তোলায় যায় ক্রপ সেন্সর দিয়ে।  

অভিজ্ঞদের পছন্দ
 
বিশেষ করে বড় আকারে প্রিন্ট ফটোগ্রাফির জন্য উচ্চমানের রেজুলিউশন প্রয়োজন তাই পেশাজীবী ফটোগ্রাফারদের মধ্যে ফুলফ্রেম ক্যামেরা অধিক জনপ্রিয়।    

ওজন 

ফুলফ্রেম ক্যামেরা বাল্ক ব্যবহার করা হয় ফলে স্বাভাবিকভাবেই এর ওজন তুলনামূলক বেশি। তবে এদিকে ক্রপ সেন্সর ক্যামেরার ওজন স্বাভাবিক হয়ে থাকে। 

দাম 

এবার আসা যাক মূল বিষয় দামের কথায়। ফুলফ্রেম ক্যামেরা দাম তুলনামূলক বেশি। সাধারণত যারা ফটোগ্রাফিকে পেশা হিসেবে বেছে নেন তারা ফুলফ্রেম ক্যামেরা ব্যাবহার করে থাকেন। আপনি যদি পেশাজীবী ফটোগ্রাফার না হন তবে ক্রপ সেন্সর এবং ফুলফ্রেমের মধ্যে ক্রপ সেন্সর বেছে নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। কারণ সব কিছু মিলিয়ে চিন্তা করলে দুটো ক্যামেরার পারফর্মেন্স একই ধরনের। তাই দামের দিক থেকে ক্রপ সেন্সর এগিয়ে থাকবে। 

ক্রপ সেন্সর ক্যামেরায় কি ফুল ফ্রেম লেন্স ব্যবহার করা সম্ভব

ফুলফ্রমে লেন্স, ক্রপ সেন্সর ক্যামেরায় ব্যাবহার করা গেলেও। ক্রপ সেন্সর লেন্সে ফুলফ্রেম ক্যামেরায় ব্যবহার সম্ভব নয়। এর অর্থ হলো আপনি যদি মনে করেন ভবিষ্যতে আপনার ক্রপ সেন্সর ক্যামেরাটিকে ফুলফ্রেমে পরিবর্তন করতে চান, তাহলে এখনই ফুল ফ্রেম লেন্স কেনা ভালো কাজ।  

শুধু মনে রাখবেন যে আপনি যদি ক্রপ সেন্সরসহ ক্যামেরায় একটি পূর্ণ ফ্রেম লেন্স ব্যবহার করেন তবে আপনি একটি ক্রপ করার ক্ষেত্র পাবেন।

বাস্তব দৃষ্টিকোণটি কী হবে তা নির্ধারণ করতে, লেন্সের ফোকাল দৈর্ঘ্য দ্বারা ক্রপ ফ্যাক্টর ম্যাগনিফিকেশন পরিমাণকে গুণ করুন। উদাহরণস্বরূপ, একটি ক্রপ সেন্সর ক্যামেরায় একটি ৫০মিলিমিটার ফুল ফ্রেম লেন্স (১.৫x ক্রপ ফ্যাক্টরসহ) একটি ৭৫ মিলিমিটার লেন্স হিসেবে কাজ করবে।

গ্রন্থনা: আদনান তূর্য

 

Comments

The Daily Star  | English

Climate change to wreck global income by 2050: study

Researchers in Germany estimate that climate change will shrink global GDP at least 20% by 2050. Scientists said that figure would worsen if countries fail to meet emissions-cutting targets

2h ago