১৫ হাজার টাকায় স্বর্ণ পাচারে চুক্তি, বিমানবন্দর কর্মী ও যাত্রী গ্রেপ্তার

হেল্পলাইন স্টাফ তন্ময়ের কাছ থেকে ৩৪৮ গ্রাম ওজনের ৩টি স্বর্ণের বার জব্দ করা হয়। আলমগীরের কাছ থেকে ৯৯ গ্রাম স্বর্ণালংকার পাওয়া যায়।
শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে স্বর্ণ পাচারের চেষ্টাকালে স্বর্ণের ৩টি বার ও ৯৯ গ্রাম অলংকারসহ ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)।

আজ দুপুর ১১টায় কাস্টমস গ্রিন চ্যানেল পার হওয়ার পর বিমানবন্দরের হেল্প সার্ভিস প্রোভাইডার শুভেচ্ছার স্টাফ মো. নাইমুর রহমান তন্ময় (২৬) এবং যাত্রী মো. আলমগীরকে (৪৮) গ্রেপ্তার করা হয়।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কর্মরত এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জিয়াউল হক জানান, স্বর্ণ আমদানিতে ট্যাক্সের হার বেড়ে যাওয়া এবং বৈধভাবে শুধু ১টি গোল্ডবার ব্যাগেজ সুবিধায় বিনা ট্যাক্সে নিয়ে আসার নিয়ম করার পর পাচারকারী চক্র বিভিন্ন ধরনের কৌশলে স্বর্ণ পাচারের চেষ্টা করছে। হেল্পলাইন স্টাফ ব্যবহার করে স্বর্ণ পাচারের চেষ্টা করেছেন যাত্রী আলমগীর। তিনি আজ সকালে দুবাই থেকে আগত এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ঢাকায় আসেন। দুবাইয়ে থাকা অবস্থাতেই তিনি ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে শুভেচ্ছা সার্ভিসের হেল্পার তন্ময়ের সঙ্গে স্বর্ণ পাচারের চুক্তি করেন। পরিকল্পনা অনুযায়ী, বিমান থেকে নেমে যাত্রী আলমগীর বেল্ট এরিয়ায় দাঁড়িয়ে তন্ময়ের সাথে যোগাযোগ করেন। হেল্পলাইন স্টাফ তন্ময় বেল্ট থেকে তার কাছ থেকে ৩ পিস গোল্ডবার সংগ্রহ করেন এবং মালামালসহ গ্রিন চ্যানেল অতিক্রম করেন।

পরে বিমানবন্দরের কাস্টমস গ্রিন চ্যানেল পার হতে গেলে তাকে আটক করা হয়।

হেল্পলাইন স্টাফ তন্ময়ের কাছ থেকে ৩৪৮ গ্রাম ওজনের ৩টি স্বর্ণের বার জব্দ করা হয়। আলমগীরের কাছ থেকে ৯৯ গ্রাম স্বর্ণালংকার পাওয়া যায়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জিয়াউল হক জানান, আলমগীর (৪৮) মুন্সীগঞ্জ এবং হেল্পলাইন স্টাফ তন্ময় ঢাকার মিরপুরের বাসিন্দা। তাদের বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় মামলা হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

Cattle prices still high

With only a day left before Eid-ul-Azha, the number of buyers was still low, despite a large supply of bulls

2h ago