রাবি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে পুলিশের রাবার বুলেট, ‘গুলিবিদ্ধ ২০’

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) সংলগ্ন বিনোদপুর এলাকায় স্থানীয়দের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনতে রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল ছুড়েছে পুলিশ। এতে অন্তত ২০ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন বলে দাবি করেছেন শিক্ষার্থীরা।
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বিজিবি মোতায়েন করা হয়। ছবি: স্টার

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) সংলগ্ন বিনোদপুর এলাকায় স্থানীয়দের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনতে রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল ছুড়েছে পুলিশ। এতে অন্তত ২০ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন বলে দাবি করেছেন শিক্ষার্থীরা।

আজ শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী মারুফ হাসান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'গুলিবিদ্ধ ২০ জন শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাম্বুলেন্স ও বাসে করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।'

নগর পুলিশ কমিশনার আনিসুর রহমান বলেন, 'পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কিছু টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে। শিক্ষার্থীরা বেশ কয়েকটি দোকান পুড়িয়ে দিয়েছে। তাদের বিষয়টি বেশ স্পর্শকাতর। তাই সাবধানে নিয়ন্ত্রণ করতে হচ্ছে।'

স্থানীয়দের সঙ্গে রাবি শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের সময় বিনোদপুর পুলিশ ফাঁড়ি ও বিনোদপুর বাজারের কয়েকটি দোকানে আগুন দেওয়া হয়। ছবি: ফাইল ফুটেজ

স্থানীয়রা জানান, কমপক্ষে ২০টি দোকানে আগুন দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। রাত সাড়ে ১০টায় তারা বিনোদপুর বাজারের সিটি মার্কেটে আগুন ধরিয়ে দেন। এ সময় একটি বাড়িও ভাঙচুর করা হয়েছে।

স্থানীয়রা বলছেন, শনিবার বিকেলে ভাড়া কম দেওয়াকে কেন্দ্র করে একটি বাসের চালক ও হেলপারকে পেটান শিক্ষার্থীরা। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিনোদপুর বাজারের ব্যবসায়ী ও স্থানীয়দের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয়।

সংঘর্ষে বেশ কিছু মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। এরমধ্যে বিনোদপুর পুলিশ ফাঁড়িতে আগুন দেওয়া হয়েছে। তবে কারা এই আগুন দিয়েছে তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি। সংঘর্ষে অন্তত অর্ধশতাধিক স্থানীয় এলাকাবাসী আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

এদিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) সংলগ্ন বিনোদপুর এলাকায় স্থানীয়দের সঙ্গে সংঘর্ষে ১৫০ থেকে ২০০ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান-উল ইসলাম।

ঘটনাস্থল থেকে দ্য ডেইলি স্টারের সংবাদদাতা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যেতে দেখা গেছে।

এ বিষয়ে রাবি প্রক্টর অধ্যাপক ড. আসাবুল হক ডেইলি স্টারকে বলেন, 'শিক্ষার্থীদের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষের সময় বিনোদপুর বাজারে কয়েকটি দোকানে আগুন দেওয়া হয়েছে। ফায়ার সার্ভিস আগুন নেভানোর চেষ্টা করছে। তবে কে বা কারা এই আগুন দিয়েছে তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি। আমরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছি।'

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত ২ সাংবাদিক আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন শিক্ষার্থীরা। আহত ২ সাংবাদিক হলেন, রায়হান ইসলাম ও জাবের আহমেদ।

এই ঘটনার পর আজ সন্ধ্যা ৬টা থেকে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

Student politics, Buet and ‘Smart Bangladesh’

General students of Buet have been vehemently opposing the reintroduction of student politics on their campus, the reasons for which are powerful, painful, and obvious.

42m ago