শিক্ষা

এইচএসসি পরীক্ষা শুরু ৬ নভেম্বর, কোচিং বন্ধ থাকবে ৪২ দিন

আগামী ৬ নভেম্বর থেকে অনুষ্ঠেয় এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে সারা দেশে ৪২ দিন কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ফাইল ছবি

আগামী ৬ নভেম্বর থেকে অনুষ্ঠেয় এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে সারা দেশে ৪২ দিন কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

আজ বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আসন্ন এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ও নকলমুক্ত পরিবেশে সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে ৩ নভেম্বর থেকে ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখতে বলা হচ্ছে।

তিনি জানান, গত বছর মোট পরীক্ষার্থী সংখ্যা ছিল ১৩ লাখ ৯৯ হাজার ৬৯০, এ বছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২ লাখ ৩ হাজার ৪০৭। অর্থাৎ পরীক্ষার্থী কমেছে ১ লাখ ৯৬ হাজার ২৮৩ জন। মোট প্রতিষ্ঠান কমেছে দুটি আর কেন্দ্র বেড়েছে ২৮টি। বিদেশে আমাদের ৮টি কেন্দ্র রয়েছে। সেখানে ২২২ জন পরীক্ষার্থী এই ৮টি বিদেশের কেন্দ্রে পরীক্ষা দেবে।

এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা প্রত্যেকবারই বলি কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে। কোচিং সেন্টার বন্ধ করা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষে সম্ভব না। এই কাজটি করে স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বন্ধ থাকে, কোথাও কোথাও কেউ বাইরে তালা লাগিয়ে করেন। দুএকটা আছে প্রকাশ্যেই করছেন, একটি কোচিং সেন্টারের আওতায় অনেক রকম কোচিং চলে। আইইএলটিএস, বিসিএস চলে। সেসব ক্ষেত্রে আমরা প্রশাসনকে বলেছি, আরও কঠোর হতে যেন আসলেই বন্ধ থাকে। যদি কোনো শিক্ষক তার বাড়িতে করছেন, যদি সেই তথ্য পাওয়া যায়, তথ্য পাওয়াটাও হয়তো কঠিন একেবারে ব্যক্তি পর্যায়ে; যদি তথ্য পাওয়া যায়, তবে অবশ্যই সেখানে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করবো।

আরেক প্রশ্নের জবাবে দীপু মনি বলেন, অন্যান্য বছরের তুলনায় আমাদের কাজগুলো একটু পিছিয়ে আছে। এখনো আমরা আশা করি, ১ তারিখেই বই দিতে পারবো। প্রেসগুলোর সঙ্গে আমাদের যেভাবে কথা হয়েছে, তাতে সেটি দিতে পারার কথা। বৈশ্বিক কারণে আমাদের পরীক্ষা পিছিয়ে নিয়ে আসতে হয়েছে। সে রকম যদি আগে থেকে একেবারে আমরা বুঝতেই পারলাম না, হঠাৎ করে বিপর্যয় যদি না ঘটে আমরা এখনো বিশ্বাস করি সময় মতো বই দিতে পারবো। বৈশ্বিক কারণে বিদ্যুতের যে অবস্থা আছে, সেটা মনে করা হচ্ছে হয়তো ঠিক হয়ে যাবে। তারপরও আমরা আশাবাদী।

Comments