ছাত্র অধিকার পরিষদের ২৪ নেতাকর্মী কারাগারে

ছাত্রলীগের দায়ের করা মামলায় ছাত্র অধিকার পরিষদের ২৪ নেতাকর্মীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। 
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্য এলাকায় আবরার ফাহাদের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে হামলা করে ছাত্রলীগ। ছবি: সংগৃহীত

ছাত্রলীগের দায়ের করা মামলায় ছাত্র অধিকার পরিষদের ২৪ নেতাকর্মীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। 

আজ শনিবার সকালে গ্রেপ্তার নেতাকর্মীদের আদালতে পাঠানো হলে ঢাকা মেট্রোপলিট ম্যাজিস্ট্রেট শহীদুল ইসলাম তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

গতকাল শুক্রবার ছাত্রলীগের ওপর হামলার অভিযোগে আজ শনিবার ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ২টি মামলা দায়ের করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন ও ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের কর্মী আমিনুর রহমান।

পরে গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় ছাত্রলীগের হামলায় আহত ছাত্রঅধিকার পরিষদের নেতা-কর্মীসহ ২৫ জনকে আটক করে পুলিশ। 

আমিনুর রহমানের দায়ের করা মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, আসামিরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ঢুকে লাঠিসোঁটা, হকিস্টিক, লোহার রড ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মামলার বাদী ও তার বন্ধুদের ওপর হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায়। এ ছাড়া তারা নগদ টাকা ও গুরুত্বপূর্ণ কিছু কাগজপত্র ছিনিয়ে নেয়। এতে হাসপাতালে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। দণ্ডবিধির ১৪৩, ৩২৩, ৩২৬, ৩০৭, ৩৭৯, ১৮৬, ৩৫৩ ও ১০৯ ধারায় তিনি মামলাটি দায়ের করেন।

এ ছাড়া নাজিম উদ্দিনের দায়ের করা মামলায়ও তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতাকর্মীদের জামিনের আবেদন করা হলে আদালত আগামী ১১ অক্টোবর তাদের জামিন শুনানির জন্য দিন ধার্য করেন। 

নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ করেন ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতাকর্মীরা। ছবি: স্টার

এ দিকে গ্রেপ্তার নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে গতকাল রাতে স্বেচ্ছায় কারাবরণ কর্মসূচি ঘোষণা করে গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। আজ সকাল ১১টা থেকে আটক নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ করেন ছাত্রঅধিকার পরিষদের নেতাকর্মীরা। 

নুরুলের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে তারা আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত হন। সেখানে কিছুক্ষণ অবস্থান করার পর আদালত কর্তৃপক্ষের অনুরোধে অবস্থান থেকে সরে আসেন। 

গ্রেপ্তার নেতাকর্মীদের মুক্তি না দেওয়া হলে কঠিন কর্মসূচিতে যাওয়ার কথা উল্লেখ করে নুরুল হক নুর দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, আমরা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছি। ছাত্রলীগের গুণ্ডাবাহিনী আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করে উল্টো মামলা করে হয়রানি করছে। আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূর মোহাম্মদ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনায় সংগঠনটির পক্ষ থেকে ২টি মামলা করা হয়েছে। মামলায় আটককৃতদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

গতকাল বিকেলে বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ছাত্র অধিকার পরিষদ আয়োজিত সভায় হামলা চালায় ছাত্রলীগ। হামলায় আহত ১২ নেতা-কর্মীকে তাৎক্ষণিক ঢামেক হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তাদের দেখাশোনা করছিলেন ছাত্র অধিকার পরিষদের আরও কয়েকজন কর্মী। আহতদের হাসপাতালে নেওয়ার পর সেখানে ছাত্রলীগ তাদের ওপর আবারও হামলা চালায় বলে অভিযোগ করেন ছাত্র অধিকার পরিষদ।

 

 

Comments

The Daily Star  | English

Israeli occupation 'affront to justice'

Arab states tell UN court; UN voices alarm as Israel says preparing for Rafah invasion

2h ago