পাকিস্তানকে হারানোয় আনন্দ দ্বিগুণ রোমানাদের

বিশ্বকাপের মুল পর্বে ওঠার লড়াই। প্রথম ম্যাচেই দারুণ জয়। স্বাভাবিকভাবেই বেশ খুশি বাংলাদেশের মেয়েরা। তবে যদি প্রতিপক্ষ হয় পাকিস্তান। তাহলে আনন্দটা দ্বিগুণ হওয়ারই কথা বাঘিনীদের। কারণে মুল পর্বে ওঠার পথে সবচেয়ে শক্তিশালী প্রতিপক্ষই যে পাকিস্তান।

বিশ্বকাপের মুল পর্বে ওঠার লড়াই। প্রথম ম্যাচেই দারুণ জয়। স্বাভাবিকভাবেই বেশ খুশি বাংলাদেশের মেয়েরা। তবে যদি প্রতিপক্ষ হয় পাকিস্তান। তাহলে আনন্দটা দ্বিগুণ হওয়ারই কথা বাঘিনীদের। কারণে মুল পর্বে ওঠার পথে সবচেয়ে শক্তিশালী প্রতিপক্ষই যে পাকিস্তান।

রোববার হারারেতে পাকিস্তানকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২০১ রান করে পাকিস্তানের মেয়েরা। জবাবে ২ বল বাকি থাকতেই লক্ষ্যে পৌঁছায় বাংলাদেশ। আর এ জয়ের মুল কাণ্ডারি রোমানা আহমেদ। তার হার না মানা ফিফটিতেই কঠিন হয়ে যাওয়া ম্যাচেও জয় মিলে বাংলাদেশের।

ম্যাচ শেষে সেই উচ্ছ্বাসটাই ঝরে রোমানার কণ্ঠে, 'আসলে সবার অনুভূতি অসাধারণ। আমরা অনেকদিন থেকে এই দিনটার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। এটা আমাদের বাছাইপর্বের প্রথম ম্যাচ। আবার খেলছি পাকিস্তানের সঙ্গে কাজেই জেতার অনুভূতি আমাদের আরও দ্বিগুণ।'

সাম্প্রতিক সময়ের ফলাফলের ভিত্তিতে এ জয়টা বাংলাদেশের প্রাপ্য ছিল বলেই মনে করেন এ ব্যাটার, 'সত্যি কথা বলতে আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে সব সময় অন্যরকম খেলার চেষ্টা করি। আর ওদের সঙ্গে শেষ তিনটা ম্যাচের দুটিতেই আমাদের জয় ছিল। কাজেই এই জয় আমাদের প্রাপ্য।'

এবার এ জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখাই মুল উদ্দেশ্য বলে জানালেন রোমানা, 'আমি খুব আনন্দিত, আজকের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আমরা জিততে পেরেছি এবং আমরা খুবই রোমাঞ্চিত ছিলাম এই ম্যাচটি নিয়ে। আশা করছি এই ম্যাচটির ধারাবাহিকতা আমরা পরের ম্যাচেও বজায় রাখবো।'

পাকিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের লড়াইটা বরাবরই হাড্ডাহাড্ডি হয় বাংলাদেশের। তবে বেশ কিছু লড়াইয়ে খুব কাছাকাছি গিয়েও হেরেছে মেয়েরা। এ ম্যাচে নামার আগের ১০ লড়াইয়ে ৬টিতে হেরে কিছুটা পিছিয়ে ছিল বাংলাদেশ। এদিনের জয়ে পরিসংখ্যানটাও উন্নত হলো বাঘিনীদের।

Comments

The Daily Star  | English

Police lob sound grenades at protesting students near TSC

Students were marching towards TSC following a 'gayebana janaza' for the six killed yesterday

9m ago