নিজের মাঠে রায়ো ভায়েকানোর কাছেও হারল বার্সা

ন্যু ক্যাম্পে রোববার রাতে স্প্যানিশ লা লিগার ম্যাচে ১-০ গোলে ধরাশায়ী হয় বার্সেলোনা।
বার্সার জালে গোল ঢুকিয়ে আলভারো গার্সিয়ার উল্লাস। ছবি- রয়টার্স

ইউরোপা লিগে আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্টের বিপক্ষে হার দিয়ে  শুরু, এরপর লা লিগায় তলানির দল কাজিদের বিপক্ষে হার, এবার ১১ নম্বর দল রায়ো ভায়েকানোর বিপক্ষেও নিজেদের মাঠে হেরেছে জাভি হার্নান্দেজের দল।

ন্যু ক্যাম্পে রোববার রাতে স্প্যানিশ লা লিগার ম্যাচে ১-০ গোলে ধরাশায়ী হয় বার্সেলোনা।

বার্সার হারে শিরোপার জেতার একদম হাত ছোঁয়া দূরত্ব চলে গেছে রিয়াল মাদ্রিদ। আরও একটি শিরোপা জিততে ৩৩ ম্যাচে ৭৮ পয়েন্ট  নিয়ে এক নম্বরে কার্লো আনচেলেত্তির দলের পাঁচ ম্যাচ থেকে কেবল এক পয়েন্ট পেলেই চলবে।

সমান ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়েই থাকছে বার্সা। কোচ জাভি অবশ্য বলেই দিয়েছিলেন, এবারের লিগে তাদের লক্ষ্য দ্বিতীয় হওয়া। পরের মৌসুমে তারা খেলবেন শিরোপার জন্য।

তবে ছোট দলের  বিপক্ষে ঘরের মাঠে এরকম বিব্রতকর হার নিশ্চিতভাবে তাদের প্রত্যাশার অনেক বাইরে। চলতি লিগে অবশ্য ভায়োকানোর বিপক্ষে দুই দেখায় দুবারই হেরেছে কাতালান ক্লাবটি।  গত অক্টোবর এই দলটির বিপক্ষে ১-০ গোলে হারের পর চাকরি হারান তখনকার কোচ রোনাল্ড কুমান।

খেলার সপ্তম মিনিটেই গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়ে বার্সা। ভায়োকানোর ফরোয়ার্ড আলভারো গার্সিয়া দারুণ দক্ষতায় বক্সে ঢুকে নিখুঁত শটে জাল খুঁজে নেন।

গোল হজম করে ম্যাচে ফেরার অনেক চেষ্টা চালায় বার্সা। কিন্তু কাঙ্খিত গোল আর আসেনি। প্রথামার্ধে ৮টি শট নিলেও কাজ হয়নি। কেবল একটি শট নিয়ে সেটিতেই গোল পাওয়ায় ভায়োকানো মন দেয় ডিফেন্সিভ ফুটবলে।

এগিয়ে থাকা ভায়োকানোর একটাই লক্ষ্য ছিল গোল ধরে রাখা। জমাট রক্ষণে সেই কাজটি তারা করতে পেরেছে সফলভাবে।

বিরতির পর দুবার পেনাল্টির আবেদন করে ব্যর্থ হয় বার্সা। ৬৯ মিনিটে বক্সের মধ্যে মেমফিস ডিপাইয়ের ভায়োকানোর ডিফেন্ডারের শরীর স্পর্শ করে হাতে লাগলে পেনাল্টির আবেদন করে বার্সেলোনা। রেফারি তাতে সাড়া দেননি। ৮৯ মিনিটে বক্সের মধ্যে ফাউলের আবেদন করেন গাভি। কিন্তু তাতেও সাড়া মেলেনি। হতাশ হয়ে মাঠ ছাড়েড়তে হয় ক্রমশই বিবর্ণ হতে থাকা এক সময়ের দাপুটে দলটি।

Comments

The Daily Star  | English

44 lives lost to Bailey Road blaze

33 died at DMCH, 10 at the burn institute, and one at Central Police Hospital

9h ago