কোহলির দুর্বলতার দিকে রাব্বির চোখ

পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি সাধারণত একটি নিয়ম মেনে চলেন আর সেটি হলো ব্যাটসম্যানকে সঠিকভাবে ‘পড়ে’ নেওয়া, বিশেষ করে তাদের দুর্বলতাগুলোকে খুঁজে বের করা। এটিই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সফলতার একটি চাবিকাঠি।
Rabbi
পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি

পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি সাধারণত একটি নিয়ম মেনে চলেন আর সেটি হলো ব্যাটসম্যানকে সঠিকভাবে ‘পড়ে’ নেওয়া, বিশেষ করে তাদের দুর্বলতাগুলোকে খুঁজে বের করা। এটিই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সফলতার একটি চাবিকাঠি।

নিউজিল্যান্ড সফরের আগে এই ডান-হাতি পেসারের একটা স্বপ্ন ছিল কিউই দলপতি কেন উইলিয়ামসনকে সাজ ঘরে ফেরাবেন। আউট সুইঙ্গার ডেলিভারির প্রতি উইলিয়ামসনের দুর্বলতা কাজে লাগিয়ে রাব্বি সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করেন নিউজিল্যান্ড সফরের সময়।

এখন ভারতীয় দলপ্রধান বিরাট কোহলির উইকেটও নিজের ঝুলিতে নেওয়ার স্বপ্ন দেখছেন রাব্বি। আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি ভারতের হায়দ্রাবাদে স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট শুরু হবে।

গতকাল মিরপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে রাব্বি বলেন, “একদিন উইলামসন জানতে চেয়েছিলেন তার কোন দুর্বলতা আমার চোখে পড়ে। উত্তরে আমি বলেছিলাম তার দুর্বলতা রয়েছে অফ স্টাম্পে অ্যাওয়ে-সুইং বলে। এরপর তিনি বলেন, ব্যাটসম্যনের দুর্বলতা ধরে দেওয়ার এই ক্ষমতা ভবিষ্যতে অন্য ব্যাটসম্যনদের বিরুদ্ধে বল করতে আমাকে অনেক সাহায্য করবে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সফলতা পাওয়ার জন্য বিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের মন বোঝা খুবই জরুরি।”

“সব বোলারই স্বপ্ন দেখেন বড় উইকেটটা ভেঙ্গে দিতে। আমি যখন খেলা শুরু করি তখন স্বপ্ন দেখতাম শচীন টেন্ডুলকারের উইকেট নিতে পারলে একটা বড় পাওয়া হবে। কিন্তু তিনিতো ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। কিন্তু আগামী সিরিজে যদি বিরাট কোহলির উইকেটটা নিতে পারি সেটা আমার জীবনে একটা বড় পাওয়া হবে। কেননা, ভারতের বর্তমান অধিনায়ক এখন বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান।”

পঁচিশ বছর বয়সী রাব্বি এর আগে ভারত সফরে গিয়েছিলেন বাংলাদেশ ‘এ’ দলের সঙ্গে। সেখানকার আবহাওয়া সম্পর্কে তার ধারনা রয়েছে। কিন্তু রাব্বি মনে করেন পেস বোলারদের জন্য ভারত সফরটা খুবই কঠিন হবে।

তার মন্তব্য, “যখন ভারতের বিরুদ্ধে খেলেছিলাম, তখন কোন কিছুই ব্যতিক্রম মনে হয়নি। তাদের আবহাওয়া, সংস্কৃতি এবং অন্যান্য বিষয়ে আমাদের সঙ্গে অনেক মিল রয়েছে। কিন্তু টেস্টে প্রতিপক্ষ হিসেবে ভারত খুবই শক্তিশালী। তাদের অনেক ভালো ব্যাটসম্যান রয়েছে। তাই তাদের বিরুদ্ধে ম্যাচটা সহজ হবে না।”

তবে আগামী সফরে ভারতের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের সাফল্যের ব্যাপারে তিনি আশাবাদী। তিনি বলেন, “আমাদের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়দের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দীর্ঘদিন খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে। এছাড়াও, বড় ইনিংস খেলার ক্ষমতা তাদের রয়েছে। আমরা যদি আমাদের সক্ষমতার সবটুকু দিয়ে খেলতে পারি তাহলে ভারত থেকে আমরা একটা ভালো ফল নিয়ে দেশে ফিরতে পারবো।”



Click here to read the English version of this news

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh's economy is recovering

Inflation isn’t main concern of people: finance minister

Finance Minister Abul Hassan Mahmood Ali yesterday refused to accept that inflation is one of the main concerns of the people of the country

2h ago