মুস্তাফিজকে ঘিরে ধোঁয়াশা

নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশের দুটি টেস্ট ম্যাচেই দলের পেস বোলিং সেনসেশন মুস্তাফিজুর রহমান ছিলেন ভুলে যাওয়া একটি নাম। দ্বিতীয় টেস্টে ১৪ সদস্যের দলে মুস্তাফিজ ছিলেন বটে, সেটাও আবার একজন ফিল্ডার হিসেবে।
Mustafiz
মুস্তাফিজুর রহমান (বামে), ছবি: এএফপি ফাইল ফটো

নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশের দুটি টেস্ট ম্যাচেই দলের পেস বোলিং সেনসেশন মুস্তাফিজুর রহমান ছিলেন ভুলে যাওয়া একটি নাম। দ্বিতীয় টেস্টে ১৪ সদস্যের দলে মুস্তাফিজ ছিলেন বটে, সেটাও আবার একজন ফিল্ডার হিসেবে।

সফরকারীদের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমসহ তিনজন প্রধান খেলোয়াড়ের ইনজুরির ফলে মুস্তাফিজকে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচে রাখা হয়েছিল একজন ব্যাকআপ খেলোয়াড় হিসেবে।

এই বাঁ-হাতি পেস বোলার নিউজিল্যান্ড সফরের প্রথম ও তৃতীয় আন্তর্জাতিক একদিনের ম্যাচে বল করেছিলেন কিন্তু কোন প্রভাব বিস্তার করতে পারেননি। পিঠের ব্যথা শুরু হওয়ার আগে প্রথম ও দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও বোলিং করেছিলেন মুস্তাফিজ। কিন্তু কোনো সুফল বয়ে আনতে পারেননি।

ঘাড়ের ইনজুরির কারণে মুস্তাফিজকে প্রায় ছয় মাস মাঠের বাইরে থাকতে হয়েছিল। তবে এখনো তিনি পুরোপুরি সুস্থ নন। মুস্তাফিজের ফিটনেস প্রশিক্ষক মারিও ভিল্লাভারায়ানের মতে এই পেস বোলার এখনো ঠিক মতো বল করতে গেলেই পিঠে ব্যথা অনুভব করেন।

তবে তার পিঠের ব্যথার জন্য সব ধরনের ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে কিন্তু কোন সমস্যা ধরা পড়েনি। যাহোক, মুস্তাফিজের অসুস্থতা নিয়ে দলের কেউ কোনো কথা বলতে আগ্রহ দেখাননি। বরং সবাই মনে করেন মুস্তাফিজের পিঠের ব্যথা যতটা না শারীরিক তার চেয়ে বেশি মানসিক। সবাই ভাবছেন বল এখন মুস্তাফিজের কোর্টে।



Click here to read the English version of this news

Comments