শীর্ষ খবর

রোহিঙ্গাদের বাসা ভাড়া না দেওয়ার পরামর্শ পুলিশের

কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে স্থানীয় জনগণের প্রতি একগুচ্ছ পরামর্শ ও অনুরোধ জানিয়েছে পুলিশ। রোহিঙ্গাদের বাড়ি ভাড়া না দিতে ও ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে শুধুমাত্র কক্সবাজারের নির্দিষ্ট ক্যাম্পের মধ্যে তাদের গতিবিধি সীমিত রাখতে সহায়তা চাওয়া হয়েছে।
rohingya bgb
বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের নো ম্যানস ল্যান্ডের কাছে একদল রোহিঙ্গা শরণার্থী। ছবি: আনিসুর রহমান

কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে স্থানীয় জনগণের প্রতি একগুচ্ছ পরামর্শ ও অনুরোধ জানিয়েছে পুলিশ। রোহিঙ্গাদের বাড়ি ভাড়া না দিতে ও ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে শুধুমাত্র কক্সবাজারের নির্দিষ্ট ক্যাম্পের মধ্যে তাদের গতিবিধি সীমিত রাখতে সহায়তা চাওয়া হয়েছে।

আজ শনিবার পুলিশ সদর দফতর থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, সরকারিভাবে রোহিঙ্গাদের জন্য নির্দিষ্ট ক্যাম্পে থাকা, খাওয়া ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তারা নিজ দেশে প্রত্যাবর্তন না করা পর্যন্ত সেখানেই অবস্থান করবেন। কক্সবাজারের নির্দিষ্ট ক্যাম্পেই তাদের গতিবিধি সীমাবদ্ধ থাকবে।

আরও বলা হয়, রোহিঙ্গাদের কেউ বাড়ি ভাড়া দিতে পারবেন না। এমনকি ক্যাম্পের বাইরে আত্মীয়-স্বজন অথবা পরিচিত ব্যক্তিদের বাড়িতেও তারা থাকতে পারবেন না।

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের একস্থান থেকে অন্য স্থানে ছড়িয়ে পড়ার অথবা অবস্থানের খবর জানলে স্থানীয় প্রশাসনকে তা অবহিত করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নির্যাতনের মুখে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা যেন সারাদেশে ছড়িয়ে পড়তে না পারে সে কারণেই এই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সড়ক, রেল বা নৌপথে তারা যেন দেশের অন্য কোথাও ভ্রমণ করতে না পারে সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে পরিবহনের সাথে সংশ্লিষ্টদেরও অনুরোধ করেছে পুলিশ।

Comments